দুর্নীতি দূর করার কৌশল
jugantor
দুর্নীতি দূর করার কৌশল

  জুবের আহমদ  

২০ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

এক দেশে এক দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা সরকারের কাছে খেলার মাঠে একটা পুকুর খননের আবেদন করল। সরকার আবেদন মঞ্জুর করে অর্থ বরাদ্দ করল।

রামবাসীকে ওই কর্মকর্তা বলল, ‘খেলার মাঠের জায়গায় পুকুর নির্মাণ হবে। আপনাদের ছেলেমেয়েদের আর কোনো খেলার জায়গা নেই। আপনারা চাইলে আমি খেলার মাঠে পুকুর নির্মাণ বন্ধ করব।’ গ্রামবাসী বলল, কীভাবে? সে বলল, ‘আপনারা যদি আমাকে ১ লাখ টাকা দেন, আমি ওই পুকুর নির্মাণ না করে পুকুর নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে মর্মে সরকারের কাছে রিপোর্ট দেব।

পুকুর নির্মাণ হয়েছে মর্মে আপনারা কাগজে সাক্ষ্য দেবেন।’ গ্রামবাসী রাজি হল। কর্মকর্তা পুকুর খনন না করে সব টাকা চুরি করল। ঘুষের ১ লাখ টাকাও নিল।

সরকারের কাছে রিপোর্ট দিল- পুকুর নির্মাণ সম্পন্ন। এরপর সে সরকারের কাছে আবেদন করল ওই পুকুরটা ভরাট করে খেলার মাঠ তৈরি করতে হবে। সরকার আবেদন মঞ্জুর করে খেলার মাঠ নির্মাণের অর্থ বরাদ্দ করল। এবারও সে মাঠ নির্মাণের সব টাকা চুরি করল।

কিছুদিন পর সরকার একটা আইন করল- কোথাও পুকুর নির্মাণ করতে হলে পুকুর নির্মাণের আগে একবার ওই জায়গার পুরোটা অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে ও ইউটিউব চ্যানেলে লাইভে প্রচার করতে হবে এবং সরকারি ওয়েবসাইটে ভিডিও করে দিতে হবে।

পুকুর নির্মাণের পর আরেকবার ওই জায়গার পুরোটা অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে ও ইউটিউব চ্যানেলে লাইভে দিতে হবে। ফলে কর্মকর্তার দুর্নীতির এ পথ বন্ধ হয়ে গেল।

ওই এলাকার একটা খালে শুষ্ক মৌসুমে পানি থাকে ৩ ফুট, বর্ষাকালে ১০ ফুট। শুষ্ক মৌসুমে খালে ৩ ফুট পানি দেখিয়ে সে খালটি পুনঃখননের আবেদন করল। সরকার অর্থ বরাদ্দ করল। সে খাল পুনর্নির্মাণের কাজ বর্ষাকালে শুরু করল। বৃষ্টিতে খাল ভরে ১০ ফুট পানি হয়ে গেল। ফলে তার কোনো কাজ করতে হল না।

খাল পুনঃখনন না করে সব টাকা চুরি করল সে। তারপর সরকার আইন করল- বর্ষাকালে খাল খনন করা যাবে না, খাল খনন শুষ্ক মৌসুমে করতে হবে। দুর্নীতির এ পথও বন্ধ হয়ে গেল।

একটা উদাহরণ দিই। বাদী ও বিবাদীদের কোর্টে হাজিরার কাগজ লিখে পেসকারের কাছে জমা দিতে হয়। মনে করুন, পেশকার সাহেব বললেন, টাকা না দিলে হাজিরা জমা নেব না। লোকজন বাধ্য হয়ে পেশকারকে ঘুষ দেবে। ঘুষ বন্ধের জন্য কিছুদিন পর সরকার ঘোষণা দিল- মামলায় কারও হাজিরার কাগজ জমা দেয়া লাগবে না। আদালত নির্দিষ্ট তারিখে সিরিয়াল অনুযায়ী মামলা নম্বর দিয়ে ডাকবেন। বাদী, বিবাদী উপস্থিত থাকলে হাজির হবেন। অথবা সরকার সফটওয়্যারের মাধ্যমে ব্যবস্থা করলে ঘরে বসে যে কেউ হাজিরা জমা দিতে পারবেন। পেশকারের ঘুষ খাওয়ার এ রাস্তা বন্ধ হয়ে যাবে।

এবার মনে করুন, মামলার নথি, বাদী, বিবাদীর জবানবন্দি, সাক্ষ্য, চার্জশিট, রায়, ডিগ্রিসহ মামলার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পেশকার সাহেবের কাছ থেকে তুলতে হবে।

পেশকার সাহেব বললেন, ঘুষ না দিলে দেব না। লোকজন বাধ্য হয়ে ঘুষ দেবে। সরকার যদি সব অনলাইনে দিয়ে দেয়, লোকজন নিজের ঘরে বসে কম্পিউটার দিয়ে অনলাইন থেকে সব কাগজ তুলতে পারে, তাহলে কেউ পেশকারের কাছে যাবে না। ঘুষও দেবে না।

সুতরাং দুর্নীতি বন্ধ করতে হলে প্রচলিত পদ্ধতি বদলাতে হবে। যে কার্যালয়ে দুর্নীতি হয় সে কার্যালয়ের কার্যপদ্ধতি বদলাতে হবে। কার্যপদ্ধতির মধ্যে দুর্নীতি করার কোনো ফাঁক থাকলে দুর্নীতি বন্ধ করা সম্ভব নয়। যে কার্যালয়ে দুর্নীতি হয় না, দুর্নীতি বন্ধের জন্য সে কার্যালয়ের পরিচালনা পদ্ধতি বদলানোর প্রয়োজন নেই।

তবে কাজ গতিশীল করার স্বার্থে বদলানোর প্রয়োজন হলে বদলানো যেতে পারে। কার্যপদ্ধতি বদলানোর জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় ও দুদকের এগিয়ে আসা উচিত।

জুবের আহমদ : প্রাবন্ধিক

[email protected]

দুর্নীতি দূর করার কৌশল

 জুবের আহমদ 
২০ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

এক দেশে এক দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা সরকারের কাছে খেলার মাঠে একটা পুকুর খননের আবেদন করল। সরকার আবেদন মঞ্জুর করে অর্থ বরাদ্দ করল।

রামবাসীকে ওই কর্মকর্তা বলল, ‘খেলার মাঠের জায়গায় পুকুর নির্মাণ হবে। আপনাদের ছেলেমেয়েদের আর কোনো খেলার জায়গা নেই। আপনারা চাইলে আমি খেলার মাঠে পুকুর নির্মাণ বন্ধ করব।’ গ্রামবাসী বলল, কীভাবে? সে বলল, ‘আপনারা যদি আমাকে ১ লাখ টাকা দেন, আমি ওই পুকুর নির্মাণ না করে পুকুর নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে মর্মে সরকারের কাছে রিপোর্ট দেব।

পুকুর নির্মাণ হয়েছে মর্মে আপনারা কাগজে সাক্ষ্য দেবেন।’ গ্রামবাসী রাজি হল। কর্মকর্তা পুকুর খনন না করে সব টাকা চুরি করল। ঘুষের ১ লাখ টাকাও নিল।

সরকারের কাছে রিপোর্ট দিল- পুকুর নির্মাণ সম্পন্ন। এরপর সে সরকারের কাছে আবেদন করল ওই পুকুরটা ভরাট করে খেলার মাঠ তৈরি করতে হবে। সরকার আবেদন মঞ্জুর করে খেলার মাঠ নির্মাণের অর্থ বরাদ্দ করল। এবারও সে মাঠ নির্মাণের সব টাকা চুরি করল।

কিছুদিন পর সরকার একটা আইন করল- কোথাও পুকুর নির্মাণ করতে হলে পুকুর নির্মাণের আগে একবার ওই জায়গার পুরোটা অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে ও ইউটিউব চ্যানেলে লাইভে প্রচার করতে হবে এবং সরকারি ওয়েবসাইটে ভিডিও করে দিতে হবে।

পুকুর নির্মাণের পর আরেকবার ওই জায়গার পুরোটা অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে ও ইউটিউব চ্যানেলে লাইভে দিতে হবে। ফলে কর্মকর্তার দুর্নীতির এ পথ বন্ধ হয়ে গেল।

ওই এলাকার একটা খালে শুষ্ক মৌসুমে পানি থাকে ৩ ফুট, বর্ষাকালে ১০ ফুট। শুষ্ক মৌসুমে খালে ৩ ফুট পানি দেখিয়ে সে খালটি পুনঃখননের আবেদন করল। সরকার অর্থ বরাদ্দ করল। সে খাল পুনর্নির্মাণের কাজ বর্ষাকালে শুরু করল। বৃষ্টিতে খাল ভরে ১০ ফুট পানি হয়ে গেল। ফলে তার কোনো কাজ করতে হল না।

খাল পুনঃখনন না করে সব টাকা চুরি করল সে। তারপর সরকার আইন করল- বর্ষাকালে খাল খনন করা যাবে না, খাল খনন শুষ্ক মৌসুমে করতে হবে। দুর্নীতির এ পথও বন্ধ হয়ে গেল।

একটা উদাহরণ দিই। বাদী ও বিবাদীদের কোর্টে হাজিরার কাগজ লিখে পেসকারের কাছে জমা দিতে হয়। মনে করুন, পেশকার সাহেব বললেন, টাকা না দিলে হাজিরা জমা নেব না। লোকজন বাধ্য হয়ে পেশকারকে ঘুষ দেবে। ঘুষ বন্ধের জন্য কিছুদিন পর সরকার ঘোষণা দিল- মামলায় কারও হাজিরার কাগজ জমা দেয়া লাগবে না। আদালত নির্দিষ্ট তারিখে সিরিয়াল অনুযায়ী মামলা নম্বর দিয়ে ডাকবেন। বাদী, বিবাদী উপস্থিত থাকলে হাজির হবেন। অথবা সরকার সফটওয়্যারের মাধ্যমে ব্যবস্থা করলে ঘরে বসে যে কেউ হাজিরা জমা দিতে পারবেন। পেশকারের ঘুষ খাওয়ার এ রাস্তা বন্ধ হয়ে যাবে।

এবার মনে করুন, মামলার নথি, বাদী, বিবাদীর জবানবন্দি, সাক্ষ্য, চার্জশিট, রায়, ডিগ্রিসহ মামলার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পেশকার সাহেবের কাছ থেকে তুলতে হবে।

পেশকার সাহেব বললেন, ঘুষ না দিলে দেব না। লোকজন বাধ্য হয়ে ঘুষ দেবে। সরকার যদি সব অনলাইনে দিয়ে দেয়, লোকজন নিজের ঘরে বসে কম্পিউটার দিয়ে অনলাইন থেকে সব কাগজ তুলতে পারে, তাহলে কেউ পেশকারের কাছে যাবে না। ঘুষও দেবে না।

সুতরাং দুর্নীতি বন্ধ করতে হলে প্রচলিত পদ্ধতি বদলাতে হবে। যে কার্যালয়ে দুর্নীতি হয় সে কার্যালয়ের কার্যপদ্ধতি বদলাতে হবে। কার্যপদ্ধতির মধ্যে দুর্নীতি করার কোনো ফাঁক থাকলে দুর্নীতি বন্ধ করা সম্ভব নয়। যে কার্যালয়ে দুর্নীতি হয় না, দুর্নীতি বন্ধের জন্য সে কার্যালয়ের পরিচালনা পদ্ধতি বদলানোর প্রয়োজন নেই।

তবে কাজ গতিশীল করার স্বার্থে বদলানোর প্রয়োজন হলে বদলানো যেতে পারে। কার্যপদ্ধতি বদলানোর জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় ও দুদকের এগিয়ে আসা উচিত।

জুবের আহমদ : প্রাবন্ধিক

[email protected]