হাসপাতালে দালালদের দৌরাত্ম্য

রোগী হয়রানি প্রতিরোধে কঠোর হতে হবে

  যুগান্তর ডেস্ক    ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা মেডিকেল

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল অনিয়ম ও দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হওয়ার বিষয়টি বহুল আলোচিত হলেও সারা দেশের হাজার হাজার রোগী এ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন। প্রতিদিন বিপুলসংখ্যক গরিব ও স্বল্পআয়ের রোগী ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন, যাদের অনেকের প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা এ হাসপাতালে করানো সম্ভব হয় না।

চিকিৎসকের পরামর্শে এসব রোগী বাইরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করিয়ে আনেন। এতে রোগীর অতিরিক্ত অনেক অর্থ খরচ হয়ে যায়। বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার সুব্যবস্থা থাকলে রোগ নির্ণয়ের জন্য রোগীকে অতিরিক্ত অর্থ খরচ করতে হতো না।

সরকারি হাসপাতালের বিভিন্ন যন্ত্রপাতি নষ্ট থাকার সুযোগটি নেয় বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিক। বিভিন্ন ক্লিনিকের দালালরা ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসারত রোগীদের টেস্টের স্যাম্পল সংগ্রহে কী ধরনের প্রতিযোগিতায় নেমেছে তা সোমবার যুগান্তরের এক প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে।

বস্তুত এ প্রতিযোগিতা কেবল যে ঢামেকে চলছে তাই নয়, সারা দেশের সরকারি হাসপাতালেই এমনটি চলছে। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য, কেবল ঢামেক হাসপাতালেই বিভিন্ন ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিকের দেড় শতাধিক দালাল সকাল-সন্ধ্যা অফিস ডিউটির মতোই উপস্থিত থাকে।

হাসপাতালের কিছু দুর্নীতিবাজ কর্মচারী ও নিরাপত্তারক্ষীর সহযোগিতায় ক্লিনিকের দালালরা তাদের অপতৎপরতা অব্যাহত রাখার সুযোগ পায়। অভিযোগ রয়েছে, চিকিৎসকদের কেউ কেউ এ অপতৎপরতার সঙ্গে যুক্ত।

বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে বিদ্যমান অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষ মাঝে মাঝে কিছু পদক্ষেপ নিলেও দালালদের দৌরাত্ম্য কমছে না। ফলে একদিকে রোগী ও তাদের স্বজনরা যেমন সর্বস্বান্ত হচ্ছে, অন্যদিকে ভুল চিকিৎসার কারণে রোগীর অপূরণীয় ক্ষতি হচ্ছে।

উন্নত চিকিৎসার নাম করে দালালরা রোগীদের প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করলেও অনেক প্রাইভেট ক্লিনিকেই মানসম্মত চিকিৎসার ব্যবস্থা নেই। ফলে অনেক রোগী চিকিৎসার স্থলে প্রতারণার শিকার হচ্ছে। কোনো কোনো প্রাইভেট ক্লিনিকে অতিরিক্ত অর্থের বিনিময়েও মানসম্মত চিকিৎসা না পাওয়ার বিষয়টি বহুল আলোচিত।

সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গিয়ে কাউকে যাতে হতাশ হয়ে ফিরে যেতে না হয় সে জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে। কোনো যন্ত্রপাতি বিকল হলে জরুরি ভিত্তিতে তা মেরামত অথবা ক্রয় করার ব্যবস্থা নিতে হবে। দেশের সব হাসপাতাল যাতে দালালদের দৌরাÍ্যমুক্ত হয় তা নিশ্চিত করতে হবে।

 

 

আরও পড়ুন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.