আগামী বাজেট ভাবনা

উৎপাদনশীল খাত প্রাধান্য পাক

  যুগান্তর ডেস্ক    ০৬ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সম্পাদকীয়

প্রতি বছরই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বাজেটের আকার। আগামী অর্থবছরের সম্ভাব্য বাজেট হতে যাচ্ছে চার লাখ ৬৮ হাজার ২০০ কোটি টাকা। নির্বাচনের বছর হওয়ায় এ বছর ঘোষিত বাজেটে কিছু ক্ষেত্রে বাড়তি ব্যয় যোগ হচ্ছে।

বাজেট ব্যয়ের এক-তৃতীয়াংশ তথা এক লাখ ৭৯ হাজার ৮২৪ কোটি টাকা ব্যয় হবে সরকারি কর্মচারীদের বেতন-ভাতা, ঋণের সুদ পরিশোধ, ভর্তুকি ও প্রণোদনা এবং সেবা- এ চারটি খাতে। উৎপাদনশীল না হলেও এসব খাতের ব্যয় যেহেতু অপরিহার্য, তাই এগুলোসহ সব খাতে সরকারের ব্যয় ও আয়ের মাঝে ভারসাম্য থাকতে হবে। একইসঙ্গে উন্নয়নশীল দেশ হওয়ায় অনুৎপাদনশীল খাতের

তুলনায় উৎপাদনশীল খাতের ব্যয় হতে হবে বেশি। অন্যথায় কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন সম্ভব হবে না।

আগামী অর্থবছরের বাজেটে সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা বাবদ ব্যয় হবে ৬৬ হাজার ২২৪ কোটি টাকা; যা বর্তমান অর্থবছরের ৫৩ হাজার ৮৩৩ কোটি টাকা থেকে ১২ হাজার ৩৯১ কোটি টাকা বেশি। এরপরই রয়েছে ঋণের সুদ পরিশোধ বাবদ ৫১ হাজার ৩৩৫ কোটি টাকা ব্যয়, যা বর্তমান অর্থবছরের তুলনায় ৯ হাজার ৮৭৮ কোটি টাকা বেশি। দেখা যাচ্ছে একদিকে সরকারের ঋণ নেয়া ও সুদ পরিশোধের পরিমাণ বাড়ছে, অন্যদিকে বিভিন্ন খাতে বাজেটের বরাদ্দ অর্থ ব্যয় সম্ভব হচ্ছে না। ফলে অহেতুক ঋণ নিয়ে কাজে লাগানো ছাড়াই সরকারকে সুদ পরিশোধ করতে হচ্ছে কিনা, তা খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া দরকার।

২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করছে সরকার। ফলে বাজেট প্রণয়ন এবং তাতে সম্ভাব্য আয়-ব্যয়, এমনকি ভর্তুকির বেলায় উৎপাদনশীল, শিক্ষা ও মানবসম্পদ উন্নয়নের খাতগুলোকে প্রাধান্য দিতে হবে। এছাড়া অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক উৎস থেকে সরকারের ঋণ গ্রহণের বেলায় সতর্ক পদক্ষেপের বিকল্প নেই। আমাদের ব্যাংকিং খাত এমনিতেই সংকটকাল পার করছে। এক্ষেত্রে সরকারকে ঋণ দিতে গিয়ে তারা যেন বেসরকারি উদ্যোক্তা ও কর্মসংস্থান তৈরিকারীদের ঋণদানের সক্ষমতা না হারায়, তা-ও বিবেচ্য হওয়া উচিত। বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডকে সরকার যে ঋণ দেয়, তা পরে ভর্তুকিতে রূপান্তরিত হয় বিধায় বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারের দেয়া ঋণ ও ভর্তুকির সর্বোচ্চ ফলপ্রসূ ব্যবহার নিশ্চিত করার বিকল্প নেই। বাজেট একটি দেশের সম্ভাব্য আয়-ব্যয়ের খতিয়ান। এ কারণে এটি যেন ভারসাম্যমূলক, কার্যকর ও দেশের সার্বিক উন্নয়নে ইতিবাচক সুফল বয়ে আনে, তা নিশ্চিত করতে হবে সবার আগে।

ঘটনাপ্রবাহ : বাজেট ২০১৮

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.