খুলনার বেশিরভাগ কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

অবাধ ভোটের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিন

  সম্পাদকীয় ০৭ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খুলনা

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। এ সিটি কর্পোরেশনে ছয়টি মৌজা অন্তর্ভুক্ত করে গেজেট প্রকাশ করেছিল নির্বাচন কমিশন।

এই গেজেট চ্যালেঞ্জ করে এক ইউপি চেয়ারম্যানের দায়ের করা রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে রোববার হাইকোর্ট নির্বাচনের ওপর ছয় মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দিয়েছেন। ১৫ মে অনুষ্ঠেয় দুই সিটি নির্বাচনের বাকি থাকল খুলনা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন। খুলনা সিটির ২৮৯টির মধ্যে ২৩৪টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ।

এ অবস্থায় এই সিটি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নিতে হবে। জানা যায়, ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১২ অস্ত্রধারীসহ ২৪ এবং সাধারণ কেন্দ্রের জন্য ১০ অস্ত্রধারীসহ ২২ জন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

কিন্তু ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রের জন্য মাত্র দু’জন বাড়তি পুলিশ বা আনসার সদস্য যথেষ্ট কিনা, এমন প্রশ্ন উঠেছে। আমরা মনে করি, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য প্রয়োজন অনুযায়ী শক্তি মোতায়েন করতে হবে।

মনে রাখা দরকার, এ বছরের শেষ দিকেই জাতীয় নির্বাচন। ফলে জাতীয় নির্বাচনের আগে অনুষ্ঠেয় খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণে সর্বোচ্চ সতর্ক হতে হবে। জনগণ যাতে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগে কোনো ধরনের বাধার সম্মুখীন না হয় এবং সর্বোচ্চ নিরাপত্তার মধ্যে ভোট দিতে পারে, তা নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ যদি নির্বাচন কমিশন (ইসি) নিতে ব্যর্থ হয়, তবে আগামী জাতীয় নির্বাচন নিয়ে জনমনে প্রশ্নের উদ্রেক হবে। এ ধরনের উদ্বেগজনক কোনো পরিস্থিতি যাতে তৈরি না হয় এবং ইসির গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে যেন প্রশ্ন না ওঠে, তা সাংবিধানিক সংস্থাটিকেই নিশ্চিত করতে হবে। এ কারণে খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোট কেন্দ্র ঝুঁকিমুক্ত করা, সব প্রার্থীর জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরির বিকল্প নেই।

সমস্যা হচ্ছে, ক্ষমতায় থাকা দল যে কোনো মূল্যে তা ধরে রাখা এবং বিরোধীরা যে কোনো মূল্যে ক্ষমতায় যাওয়াকেই গণতান্ত্রিক অধিকার মনে করে। একই পরিস্থিতি স্থানীয় সরকারের সব নির্বাচনের বেলায়ও দেখা যায়। অথচ গণতন্ত্রের সত্যিকারের মূল্যবোধ হল জনগণের রায় মেনে নেয়া ও তাতে শ্রদ্ধা প্রদর্শন। খুলনা সিটি নির্বাচন থেকেই সরকারি ও সব বিরোধী দল গণতন্ত্রের এ মূল্যবোধের চর্চা করলে এবং ইসি, প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করলে তা ইতিবাচক নজির হবে, অবশ্যই।

ঘটনাপ্রবাহ : খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২০১৮

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×