দান করুন গোপনে

  আজহার মাহমুদ ০৭ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

দান
প্রতীকী ছবি

আত্মশুদ্ধির মাস পবিত্র রমজান। এ মাস দান করার মাস। জাকাত দেয়ার মাস, ফিতরা দেয়ার মাস। রমজান মাস গরিবদের হক আদায়ের মাস। এই হক আদায় করতে গিয়ে কাউকে যেন প্রাণ দিতে না হয়।

প্রতি বছর রমজান মাস এলেই নানা হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটে। জাকাত, ফিতরা, ইফতার সামগ্রী, টাকা ও শাড়ি-লুঙ্গি বিতরণের সময় ভিড়ের চাপে গরিব ও নিরীহ মানুষের প্রাণ যায়। কিছুদিন আগে চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় এমন দানের বলি হয়েছে ১০ গরিব নিরীহ মানুষ।

প্রতি বছর এমন ঘটনা ঘটার পরও এ ব্যাপারে বিত্তবানরা সচেতন হচ্ছে না। যে দান লোক দেখানোর জন্য দেয়া হয় সে দান ইসলাম কখনই সমর্থন করে না। প্রকাশ্যে ঢাকঢোল পিটিয়ে দান যারা করে, তারা আসলে দান করার মনোভাব নিয়ে দান করে না। তাদের লক্ষ্য দেশ, সমাজ ও জাতিকে এসব দেখানো। ইসলামে স্পষ্টভাবে বলা আছে, তুমি এমনভাবে দান করো যেন দানের বিষয়টি কোনো তৃতীয় পক্ষ না জানে।

কারও যদি সত্যিই দান করার ইচ্ছা থাকে, তবে সেটা হতে হবে রাতের অন্ধকারে, গোপনে। নিজে গিয়ে দানসামগ্রী দিয়ে আসা যায়। যথাযথ ব্যবস্থা না করে দানসামগ্রী দেয়ার পরিণাম হচ্ছে মানুষের মৃত্যু। এ দেশে প্রভাবশালীরা নিয়মের ধার ধারেন না। আর সে কারণেই পায়ের তলায় পিষ্ট হয়ে মরছে গরিব-দুঃখী মানুষ।

এসব ক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকেও সজাগ থাকতে হবে। জাকাত যেহেতু বিত্তবানদের ওপর ফরজ, তাই তাদের উচিত নিজ দায়িত্বে গরিবের দুয়ারে গিয়ে জাকাত বণ্টনের মাধ্যমে দায়মুক্ত হওয়া। অনেক বিত্তবান মনে করেন, দায়মুক্ত হওয়ার জন্য গরিবের দুয়ারে কেন যেতে হবে, একবার মাইকে বলে দিলেই তারা প্রাণবাজি রেখে ছুটে আসবে তাদের দুয়ারে।

বাস্তবে এর ফলে দায়মুক্ত হওয়ার বদলে দায়ের ভারটা আরও বেড়ে যায় তাদের ওপর। কারণ প্রকাশ্যে দান প্রকৃত দান নয়। সেই সঙ্গে একজন গরিবের প্রাণ হারানো মানে দায়ের ভার আরও বেড়ে যাওয়া।

এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, অনেক সময় জাকাত পাওয়া তো দূরের কথা, লাঠিপেটাও খেতে হয় এসব গরিব মানুষকে। শরীরের আঘাত নিয়ে খালি হাতে ঘরে ফিরে যেতে হয় অনেক নিরীহ মানুষকে।

কাজেই যদি দানসামগ্রী দিতে হয় তাহলে তা সঠিক ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে এবং প্রশাসনকে জানিয়ে এর আয়োজন করতে হবে। অথবা নিজে অথবা কারও মাধ্যমে গরিবদের ঘরে ঘরে দানসামগ্রী ও জাকাত পৌঁছে দিতে হবে। দানসামগ্রীর জন্য যেন আর কোনো গরিব মানুষকে জীবন দিতে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখা জরুরি।

তাই প্রভাবশালী, বিত্তবান ও ক্ষমতাবান মানুষদের বলব, সঠিক ব্যবস্থাপনা না করে দানসামগ্রী কিংবা জাকাত দেয়ার প্রয়োজন নেই। এ দেশে আর কোনো নিরীহ মানুষের এভাবে মৃত্যু দেখতে চাই না। প্রশাসনসহ সবার প্রতি আহ্বান- এসব বিষয়ে সবাই সচেতন হোন এবং সঠিক পরামর্শ দিন। প্রয়োজনে আইনের সহায়তা নিন।

আজহার মাহমুদ : শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম

 

 

আরও পড়ুন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.