এ কেমন আচরণ?

ছাত্রলীগে শুদ্ধি অভিযান দরকার

  সম্পাদকীয় ১৭ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কোটাবিরোধী আন্দোলন
ছবি: যুগান্তর

১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধসহ দেশের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকার কথা আমরা জানি। এ প্রেক্ষাপটে ছাত্রলীগের সব নেতাকর্মীর কাছে দেশের মানুষ দায়িত্বশীল আচরণ প্রত্যাশা করে।

দুঃখজনক হল, বিভিন্ন সময়ে ছাত্রলীগের কিছুসংখ্যক কর্মীর কর্মকাণ্ড নানারকম প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। সম্প্রতি সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও তাদের সমর্থকদের ওপর ছাত্রলীগের একটি অংশ যেভাবে হামলা করেছে, তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

ছাত্রলীগের এসব কর্মীর আচরণ নিয়ে বিভিন্ন মহলে সমালোচনা চলছে। কোটা সংস্কার আন্দোলনের পক্ষে দেশের যে কোনো নাগরিক তার মতপ্রকাশ করতেই পারেন। মতপ্রকাশে বাধা প্রদান কোনোভাবেই কাম্য হতে পারে না।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের কতিপয় সদস্য একাধিকবার হামলা করেছে। এসব হামলার সঙ্গে জড়িত কর্মীদের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ যথাযথ ব্যবস্থা না নিলে কিছুসংখ্যক কর্মীর আচরণের জন্য ঐতিহ্যবাহী সংগঠনটির সুনাম নষ্ট হবে।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যায়- কোটা আন্দোলনে গ্রেফতারকৃত নেতাদের মুক্তি ও নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মিছিলে হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগের কিছুসংখ্যক কর্মী। এতে কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

শিক্ষার্থীদের রক্ষা করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষক। তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন কয়েকজন গণমাধ্যমকর্মীও। এসব ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করে দোষীদের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নেবে এটাই সবার প্রত্যাশা।

যেহেতু প্রকাশ্য দিবালোকে এসব ঘটনা ঘটেছে, সেহেতু দোষীদের চিহ্নিত করতে তেমন একটা বেগ পেতে হবে না। সম্প্রতি ঢাকার বাইরেও কোটা সংস্কার আন্দোলনে যুক্ত কর্মীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। ওইসব হামলার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া দরকার।

ছাত্রলীগের নামে প্রকৃতপক্ষে কারা এসব হামলা চালাচ্ছে, তা চিহ্নিত করতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদেরও সোচ্চার হওয়া দরকার। বাইরে থেকে এসে কেউ ছাত্রলীগের সুনাম নষ্ট করার চেষ্টা করছে কিনা- এটাও খতিয়ে দেখা দরকার।

প্রয়োজনে ছাত্রলীগে শুদ্ধি অভিযান পরিচালনা করা দরকার। তা না হলে কিছুসংখ্যক কর্মীর অপকর্মের কারণে ঐতিহ্যবাহী সংগঠনটির সুনাম ক্ষুণ্ণ হবে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কঠোর পদক্ষেপ নেবেন- এটাই সবার প্রত্যাশা। জাতীয় নির্বাচনের আগে ষড়যন্ত্রকারীরা ছাত্রলীগের সুনাম নষ্ট করার চেষ্টা করতে পারে।

এ ব্যাপারেও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের সতর্ক থাকতে হবে। এবার নতুন করে বিপুলসংখ্যক তরুণ ভোটার হয়েছেন, যাদের অনেকেই শিক্ষার্থী এবং চাকরি প্রত্যাশী। এই তরুণ ভোটারদের চাওয়া-পাওয়াকে সরকার গুরুত্ব দেবে, এটাই কাম্য।

ঘটনাপ্রবাহ : কোটাবিরোধী আন্দোলন ২০১৮

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×