হজ এজেন্সির অন্যায্য দাবি

ধর্ম মন্ত্রণালয়কে অনড় অবস্থান নিতে হবে

  যুগান্তর ডেস্ক    ২১ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হজ যাত্রী
ছবি: সংগৃহীত

হজ এজেন্সিগুলো দেশটাকে কী মনে করছে? হজের মতো একটি পবিত্র ধর্মীয় আচার নিয়েও যখন এজেন্সিগুলো প্রতারণার ফাঁদ পাততে চায়, তখন প্রশ্নটা খুবই প্রাসঙ্গিক। হজ নিয়ে হজ এজেন্সিগুলোর কর্মকাণ্ড ইতিমধ্যেই ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে।

গত বৃহস্পতিবার দুদকের কর্মকর্তারা দুটি হজ এজেন্সিতে সশরীরে গিয়ে ব্যাপক দুর্নীতির খোঁজ পেয়েছেন। কর ফাঁকিও এসব দুর্নীতির অন্যতম। এছাড়া হজ গমনেচ্ছুদের হয়রানিসহ অন্যান্য আর্থিক দুর্নীতি তো রয়েছেই।

উপরন্তু এবার তারা ২০ শতাংশ রিপ্লেসমেন্ট সুবিধা চাচ্ছে। অর্থাৎ নিবন্ধিত অনেক হজযাত্রীর শেষ পর্যন্ত হজে যাওয়া না হলে বর্তমানে ৪ শতাংশ রিপ্লেসমেন্টের যে সুযোগ রয়েছে, সেই হার তারা ২০ শতাংশে উন্নীত করতে চাচ্ছে এবং এ দাবিতে অনড় থাকছে। তারা হুমকি পর্যন্ত দিচ্ছে যে, ২০ শতাংশ রিপ্লেসমেন্টের সুযোগ না দিলে এবার ৭ থেকে ১০ হাজার হজযাত্রীর কোটা খালি পড়ে থাকবে।

উল্লেখ করা যেতে পারে, হজযাত্রীদের কেউ মারা গেলেই কেবল ৪ শতাংশ রিপ্লেসমেন্টের নিয়ম ব্যবহার করা যায়, এর বিপরীতে হজ এজেন্সিগুলোর সংগঠন হাব দাবি করছে হাই ব্লাডপ্রেসার ও ডায়াবেটিসের রোগীদের ক্ষেত্রেও রিপ্লেসমেন্ট সুবিধা দিতে হবে।

হাব রিপ্লেসমেন্টের যে দাবি তুলেছে, সেখানে বড় ধরনের শুভঙ্করের ফাঁকি রয়েছে। তারা আসলে জানেন কোন পরিস্থিতিতে কোন নম্বর দেয়া হয়েছে, সেসব ক্ষেত্রেই তারা রিপ্লেসমেন্ট চাচ্ছেন। অতিরিক্ত মুনাফা লোটাই যে এ কারসাজির উদ্দেশ্য, তা বুঝতে অসুবিধা নেই। এই শেষ সময়ে এসে তারা যে বায়না ধরেছে, তা মানা হলে বিপর্যয় দেখা দেবে। এমনিতেই এবার অতিরিক্ত স্লট পাওয়ার সুযোগ নেই। সৌদি এয়ারলাইন্সের শেষ ফ্লাইট ১৭ আগস্ট ও বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ১৫ আগস্ট। এর বাইরে কেউ যেতে পারবেন না।

আমরা মনে করি, ধর্ম মন্ত্রণালয় হাবের দাবি না মানার পক্ষে যে অবস্থান নিয়েছে, তা থেকে সরে আসা ঠিক হবে না। হজ এজেন্সির মালিকরা হজ বাণিজ্য করতে হজে যাবেন না এমন ব্যক্তির পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্মনিবন্ধনের বিপরীতে হজ নিবন্ধন করে রাখেন। পরে বিত্তবান ও জরুরি ভিত্তিতে যারা হজে যেতে চান, তাদের কাছ থেকে ৫০ হাজার থেকে দুই লাখ টাকা পর্যন্ত অতিরিক্ত চার্জ আদায় করেন। এটা স্রেফ প্রতারণা। এই প্রতারণার সঙ্গে আপস করার কোনো সুযোগ নেই।

ঘটনাপ্রবাহ : হজ ২০১৮

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter