বিচিত্র

মায়া সভ্যতার হতভাগ্য ২৪ জন

  যুগান্তর ডেস্ক ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মেক্সিকোর কাম্পেচেতে মায়া সভ্যতা
মেক্সিকোর কাম্পেচেতে মায়া সভ্যতা

জার্মানির বন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক একবার মেক্সিকোর কাম্পেচেতে মায়া সভ্যতার শহর উক্সুলে খননে ব্যস্ত ছিলেন। খুঁড়তে খুঁড়তেই হঠাৎ তারা এমন এক জায়গার সন্ধান পেয়ে যান, যা ছিল পিলে চমকে দেয়ার জন্য যথেষ্ট।

তারা মনুষের তৈরি একটি গুহার সন্ধান পান যা এককালে জলাধার হিসেবে ব্যবহৃত হতো। সেই গুহার ভেতরে তারা ২৪টি কঙ্কাল খুঁজে পান, সবই ছিল মানুষের। অদ্ভুত ব্যাপার হল, সব কঙ্কালেরই মূল দেহ থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করা ছিল। অর্থাৎ শিরছ্ছেদের মাধ্যমে তাদের হত্যা করা হয়েছিল।

তাদের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলোও কেটে এদিক-সেদিক ছড়িয়ে-ছিটিয়ে দিয়েছিল মায়া সভ্যতার সেই লোকেরা। গুহাজুড়েই ছড়ানো ছিল সেসব হাড়গোড়। অনেক কঙ্কালের মাথা আর মূল শরীর কাছাকাছি ছিল না।

কিছু কিছু কঙ্কালের আবার মাথা আর চোয়াল আলাদা হয়ে গিয়েছিল। মৃত্যুর সময় নিহতদের বয়স ছিল ১৮-৪২ বছরের মধ্যে। ২৪ জনের মধ্যে ২ জন নারী ও ১৩ জন পুরুষ। বাকিদের লিঙ্গ নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি।

এ আবিষ্কার থেকে প্রত্নতত্ত্ববিদেরা বুঝতে পারেন, মায়া সভ্যতার লোকেরা শত্রুদের নিধনের বেলায় এমন নৃশংস পন্থাই অবলম্বন করত। নিহতদের একজনের দাঁতে এক ধরনের মূল্যবান সবুজ পাথর পরানো ছিল, যা তার আভিজাত্যের ইঙ্গিত বহন করে।

কিন্তু সেই দুর্ভাগা ২৪ জনের প্রকৃত পরিচয় কিংবা তাদের ভাগ্যে এত নির্মম মৃত্যু নেমে আসার প্রকৃত কারণটা আজও অজানাই রয়ে গেছে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×