বিচিত্র

নুহ নবীর কিস্তির মতোই আরেক কিস্তি

  সালমান রিয়াজ ২৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নুহ নবীর কিস্তির মতোই আরেক কিস্তি

হজরত নুহ (আ.) ছিলেন হজরত আদম আলাইহিস সালামের অষ্টম মতান্তরে দশম অধস্তন পুরুষ। তিনি সুদীর্ঘ ৯৫০ বছর হায়াত লাভ করেন। আল্লাহর নির্দেশে মহাপ্লাবন থেকে বাঁচতে তিনি এক কিস্তি (নৌকা) নির্মাণ করেন।

সম্প্রতি সেই নৌকার কাল্পনিক প্রতিরূপ তৈরি করেছেন নেদারল্যান্ডসের শিল্পী জোহান হুইবার। হজরত নুহের (আ.) তৈরি কিস্তিটি ছিল ৩ তলা বিশিষ্ট। এটি লম্বায় ১২০০ গজ এবং ৬০০ গজ চওড়া ছিল।

এ নৌকায় হজরত নুহ (আ.) তার সঙ্গী ৪০ জোড়া নারী-পুরুষসহ, জীবজন্তু, পশুপাখি ১২০ দিন অবস্থান করেন। মহাপ্লাবন শেষে নৌকাটি তুরস্কের জুদি পাহাড়ের কাছে নোঙর করে।

নেদারল্যান্ডসের শিল্পী জোহানের তৈরি নৌকাটি লম্বায় ৪১০ ফুট, ৯৫ ফুট চওড়া এবং ৩ তলায় বিশিষ্ট, যার উচ্চতা ৭৫ ফুট। ২০১৮ সালের নভেম্বরে ২ হাজার ৫০০ টনের নৌকাটি পানিতে ভাসানো হয়েছে।

শিল্পী জোহান বাইবেলে বর্ণিত বিবরণ অনুযায়ী এ নৌকাটি তৈরি করেছেন। নৌকাটিতে কাঠের তৈরি বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণীও রাখা হয়েছে। নৌকাটি তৈরিতে ১৬ লাখ ডলার খরচ হয়েছে।

২০১২ সালে শিল্পী জোহান এ নৌকাটি তৈরির কাজ শুরু করেন। বর্তমানে নৌকাটি নেদারল্যান্ডসের রাজধানী আর্মস্টারডামে রাখা হয়েছে। যা প্রতিদিন হাজার হাজার দর্শনার্থী পরিদর্শন করছে।

উল্লেখ্য, কোরআনের অনেক সূরার বিভিন্ন আয়াতে হজরত নুহের (আ.) আমলে সংঘটিত মহাপ্লাবন ও নৌকা সম্পর্কে আলোচনা এসেছে। যারা মহান আল্লাহর প্রতি ঈমান এনেছিলেন তারাসহ প্রতিটি জীবজন্তু, পশুপাখি একজোড়া করে নৌকায় স্থান পেয়েছিল।

হাদিসেও এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা রয়েছে। সেসময়ে আল্লাহর বিশ্বাসীরাসহ প্রত্যেক প্রজাতির পশুপাখির জোড়া নিয়ে হজরত নুহ (আ.) নৌকায় উঠলে মহাপ্লাবন শুরু হয়। দীর্ঘ এই মহাপ্লাবনে নৌকার আরোহীরা বাদে সবাই ডুবে মারা যায়।

শিল্পী জোহান হুইবার নৌকাটি নির্মাণ শেষে তা সাগরে ভাসিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইসরাইলে নিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা ছিল। কিন্তু এ বিশাল নৌকাটিতে ইঞ্জিন না থাকায় তার সে ইচ্ছায় বাধা হয়ে দাঁড়ায়।

তরঙ্গ বিক্ষুব্ধ সাগরে পাড়ি দিতে নৌকায় ইঞ্জিনের বিকল্প নেই। তবে শিল্পী জোহান হুইবার যদি অন্য কোনো জাহাজের সহায়তায় তা ভাসিয়ে নিতে চান, সেক্ষেত্রে তাকে খরচ করতে হবে প্রায় ১৩ লাখ ডলার। কোনো আন্তর্জাতিক সংস্থার আর্থিক সহায়তা মিললে শিল্পী জোহানের এ ইচ্ছার বাস্তবায়ন হতে পারে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×