শিক্ষণীয় গল্প

খারাপ সঙ্গ

  আশরাফুল আলম পিনটু ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শহরের কাছে ছোট্ট একটি গ্রাম। সেই গ্রামে বাস করে এক চাষী। গরিব হলেও খুবই পরিশ্রমী। চাষী তার জমিতে বিভিন্ন শস্য ফলাতেন। গম, ভুট্টা, ছোলা, মসুর এসব। সেই শস্য তিনি শহরের দোকানে বিক্রি করতেন।

একদিন চাষীর খুব মন খারাপ। পাজি কাকেরা এসে প্রতিদিন তার শস্য খেয়ে যায়। কাক তাড়ানোর জন্য তিনি জমিতে কাকতাড়ুয়া দাঁড় করালেন। কিন্তু ভয় পাওয়া তো দূরে থাক, কাকতাড়ুয়াটাই ওরা ছিন্নভিন্ন করে ফেলল। চাষী এসব হতচ্ছাড়া কাককে শিক্ষা দিতে চাইলেন। প্রতিদিনই জমির ফসল অর্ধেক নষ্ট হচ্ছে। অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে চাষী এক মোক্ষম বুদ্ধি বের করলেন। ঠিক করলেন, ফাঁদ পাতবেন জমিতে।

যেই ভাবা সেই কাজ। পরদিন চাষী তার পুরো জমিতে একটা জালের ফাঁদ বিছিয়ে দিলেন। তারপর সেটা ঢেকে দিলেন শস্যের গাছ দিয়ে। পাজি কাকের দল যেন বুঝতে না পারে এজন্য এই চালাকিটা করলেন। বুদ্ধিটা কাজে লাগল ভালোই। কিছুক্ষণের মধ্যেই সব কাক ধরা পড়ল। জালে আটকে পড়া কাকেরা ক্ষমা চাইল। কিন্তু চাষী ওদের কোনো কথাই শুনলেন না। চাষী আরও রেগে উঠে বললেন, ‘আমি তোদের একটাকেও ছাড়ব না!’

হঠাৎ চাষী একটা কাতর কান্না শুনতে পেলেন। ভালোভাবে তাকালেন জালের দিকে। দেখতে পেলেন একটা কবুতর জালে ধরা পড়েছে কাকেদের সঙ্গে।

চাষী কবুতরকে বললেন, ‘তুই শয়তান কাকের দলের সঙ্গে বন্ধুত্ব করেছিস? এখন মর ওদের সঙ্গে!’

এভাবে হতভাগা কবুতরও কাকেদের সঙ্গে শাস্তি পেল।

নীতিকথা : খারাপদের সঙ্গে বন্ধুত্ব করলে বিপদ ঘটে।

মূল গল্প : দি ব্যাড কোম্পানি

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×