বিশ্বের সবচেয়ে বড় জাতীয় উদ্যান

  সালমান রিয়াজ ০৭ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

উদ্যান

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় জাতীয় উদ্যান গ্রিনল্যান্ডে অবস্থিত। নাম নর্থ-ইস্ট গ্রিনল্যান্ড ন্যাশনাল পার্ক। ১৯৭৪ সালে উদ্যানটি সংরক্ষিত এলাকার মর্যাদা পায়। ১৯৮৮ সালে এর আকার প্রসারিত করা হয়। প্রায় ৯ লাখ ৭২ হাজার বর্গ কিলোমিটার উদ্যানটির আয়তন।

সংরক্ষিত এ জাতীয় উদ্যানটি পৃথিবীর ২৯টি দেশের আয়তনের চেয়েও বড়! জীববৈচিত্র্যের অনন্য এক লীলাভূমি এটি। এখানে প্রায় ৩১০ প্রজাতির ভাস্কুলার উদ্ভিদের দেখা মেলে, যার মধ্যে ১৫ প্রজাতির উদ্ভিদ পৃথিবীর অন্য কোথাও নেই।

গ্রিনল্যান্ড আটলান্টিক ও আর্কটিক মহাসাগরের মাঝে অবস্থিত বিশ্বের সবচেয়ে বড় দ্বীপ। উত্তর আমেরিকা মহাদেশের এ স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলটি ডেনমার্কের অধীনে। দ্বীপটি প্রায় ২১ লাখ ৭৫ হাজার ৬০০ বর্গ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বিস্তৃত- যা ফ্রান্স, ব্রিটেন, জার্মানি, স্পেন, ইতালি, অস্ট্রিয়া, সুইজারল্যান্ড এবং বেলজিয়ামের সমান। অঞ্চলটি প্রায় ১৮ লাখ বর্গ কিলোমিটার অঞ্চল বরফে ঢাকা। অর্থাৎ দ্বীপটির চার ভাগের তিন ভাগই বরফে আচ্ছাদিত। ডেনমার্ক এবং গ্রিনল্যান্ডের জীবিকা, বাসস্থান, কৃষি, মৎস্য ও পরিবেশ সম্পর্কিত দুটি মন্ত্রণালয় পরিবেশ সংরক্ষণের দায়িত্ব ভাগ করে নিয়েছে। মন্ত্রণালয় দুটি প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ এবং এলাকার নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে সহযোগিতা করে আসছে।

পার্কটিতে সংরক্ষিত উদ্ভিদ ও প্রাণী বরফে আচ্ছাদিত গ্রিনল্যান্ডকে রক্ষা করে। এখানে বিরল প্রজাতির স্তন্যপায়ী প্রাণীদের মধ্যে রয়েছে মাস্ক ষাঁড়, মরু ভালুক, আর্কটিক নেকড়ে, আর্কটিক খরগোশ, রেইনডিয়ার এবং তুষারময় পেঁচা। সামুদ্রিক জীববৈচিত্র্য সম্পদেও গ্রিনল্যান্ড পৃথিবীখ্যাত। এখানকার সাগর উপকূলে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় হুডেড ও গ্রে শিলদের। আছে সাদা বেলোগা তিমি, বিরল প্রজাতির জলজ স্তন্যপায়ী প্রাণী লম্বা দাঁতের ওয়ালরাস। রয়েছে পেরেগ্রিন ফ্যালকন, বড় পানকৌড়ি, গাঙচিলসহ রংবেরঙের নানা প্রজাতির পাখি। সব মিলিয়ে পার্কটি জীববৈচিত্র্যের সত্যিকারের স্বর্গভূমি। এটি পশুপাখিদের অভয়াশ্রম। কারণ এটি মানুষের হস্তক্ষেপ থেকে দূরে রাখা হয়েছে।

এখানেও কিছু মানুষের উপস্থিতি আছে। গবেষকরা এই অঞ্চলে টানা বৈজ্ঞানিক গবেষণা চালান। অনেক পর্যটকও কৌতূহলবশত গবেষণা চালানোর প্রয়াস করেন। ফলে অনেক সময় উদ্ভিদ এবং প্রাণীর ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। গ্রিনল্যান্ডের সবচেয়ে দূরবর্তী শহর ইতোকরতরমিত থেকে শিল ও তিমি ব্যবসায়ীরা এখানে যাতায়াত করেন। শহরটি পূর্ব গ্রিনল্যান্ডে অবস্থিত। পার্কটির বড় হুমকি জলবায়ু পরিবর্তন। দ্রুত বরফ গলে সমুদ্রের পানি বেড়ে বিপদসীমা অতিক্রম করছে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×