বিচিত্র

মধ্য এশিয়ার ৪ প্রাণী

  একদিন প্রতিদিন ডেস্ক ২০ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মধ্য এশিয়ার ৪ প্রাণী

বিশ্বের সবচেয়ে বড় গাছপালাবিহীন তৃণভূমির দেখা পাওয়া যাবে মধ্য এশিয়ায়। ফলে স্তন্যপায়ী প্রাণীদের প্রিয় জায়গা সেটি। এমনই তৃণভূমির ৪ প্রাণী নিয়ে আজকের আয়োজন।

* গাধার মতো

এদের নাম খুলান। গাধা গোত্রের এ প্রাণীটি ‘মঙ্গোলিয়ান ওয়াইল্ড অ্যাস’ নামেও পরিচিত। মঙ্গোলিয়া ও উত্তর চীনের বিশাল এলাকাজুড়ে দলবেঁধে ঘুরে বেড়ায় তারা। খাবার আর পানির সন্ধানে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে বেশ কয়েক হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারে খুলান। তবে তাদের মাংসের লোভে ইদানীং শিকারিরা তাদের পেছনে লাগায় হুমকির মুখে পড়েছে তারা।

* মার্কো পোলো ভেড়া

ত্রয়োদশ শতকের অভিযাত্রী মার্কো পোলো তার একটি বইতে এই ভেড়ার নাম রেখেছিলেন আরগালি। তবে এটি মার্কো পোলো ভেড়া নামেও পরিচিত। আফগানিস্তান, চীন, কাজাখস্তান, কিরঘিস্তান, তাজিকিস্তান, পাকিস্তান ও উজবেকিস্তানের মধ্যে অবাধ বিচরণ তাদের। সুন্দর ও মূল্যবান শিংয়ের কারণে শিকারিদের নজর পড়েছে এই ভেড়ার ওপর।

* দুই কুঁজের উট

নাম ‘বেকট্রিয়ান ক্যামেল’। এরা প্রতিদিন প্রায় ৭৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয়। কুঁজের মধ্যে জমা থাকা চর্বি থেকে তারা শক্তি পায়। পথের মধ্যে যেমন আছে উঁচু পর্বত, তেমনি আছে মরুভূমি। নানা কারণে নিজেদের এলাকায় থাকতে না পারা বেকট্রিয়ান উটদের এখন দেখা পাওয়া যায় উত্তর চীন ও দক্ষিণ মঙ্গোলিয়ার তিনটি স্থানে।

* বুখারা হরিণ

কাজাখস্তান, তাজিকিস্তান, তুর্কমেনিস্তান, উজবেকিস্তান ও আফগানিস্তানের বিশাল এলাকাজুড়ে থাকে তারা। সবকিছু ঠিক থাকলে নিজেদের এলাকায় থাকতেই পছন্দ তাদের। তবে পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকলে উন্নত জীবনের আশায় ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ হরিণ অন্যান্য এলাকায় পাড়ি জমিয়ে থাকে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×