সামান্য লাউয়ের খোসার জন্য যুদ্ধ

  একদিন প্রতিদিন ডেস্ক ১৭ জুন ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পৃথিবীতে অনেক বড় কারণে যেমন যুদ্ধ সংঘটিত হয়েছে তেমনই তুচ্ছ কারণেও ঘটেছে ভয়াবহ যুদ্ধ। কিছু যুদ্ধ আবার খুবই হাস্যকর। পৃথিবীর সেরকম এক হাস্যকর যুদ্ধ...

পাকা লাউয়ের ভেতরের নরম অংশটা ফেলে দিয়ে শক্ত পাত্র বানানো যায়। আফ্রিকার আদিবাসী মেয়েরা পানির কলসি হিসেবে এ পাত্র ব্যবহার করত। এ পানির পাত্র নিয়েই ঘটেছিল এক মজার কাণ্ড। আফ্রিকার বরনু রাজ্যের শাসক আমীর আলী ইবন আল হাজের সময়কার কথা। তার রাজ্যের এক গরিব আদিবাসী মহিলার লাউয়ের কলসির ঢাকনা একদিন চুরি হল।

জানা গেল পাশে সীমান্তের ওপারের রাজ্য আহিরি গ্রামের এক চাষী চুরি করেছে। এ ঘটনা সোজা চলে গেল রাজার কানে। তিনি এতে প্রচণ্ড রেগে গেলেন।

আহিরির লোক তার রাজ্যে এসে চুরি করাতে মানসম্মানে লাগল খুব। রাজার এ রাগ দেখে এক মন্ত্রী বললেন, ‘বাদ দেন বাদশাহ নামদার, সামান্য একটা কলসির ঢাকনাই তো। তারচেয়ে রাজ্যকোষ থেকে একটা স্বর্ণমুদ্রা দিলেই তো গরিব প্রজা এরকম হাজারটা কিনতে পারবে।’ কিন্তু রাজা এ প্রস্তাবে আশ্বস্ত হলেন না।

তিনি বললেন, ‘না, তুমি বুঝতে পারছ না মন্ত্রিবর। এর সঙ্গে দেশের মানসম্মান জড়িত। আহিরিদের অবশ্যই এরকম অপকর্মের জন্য শাস্তি পেতে হবে।’

এরপর আমীর আলী আহিরি যুদ্ধ ঘোষণা করলেন। এক হাজার অশ্বারোহী নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়লেন শত্রুর ওপর। উভয় পক্ষের মধ্যে শুরু হল তুমুল যুদ্ধ। প্রচুর হতাহত হল সেই যুদ্ধে। আমীর আলী যুদ্ধে জয়লাভ করলেন। চোরকে গ্রেফতার করে আনা হল। শাস্তিস্বরূপ তার শিরোশ্ছেদ কার্যকর করা হল।

তবে আমীর আলীরও যে ক্ষয়ক্ষতি হয়নি তা নয়। এই যুদ্ধে তার ৭০ জন সৈন্য প্রাণ দিয়েছে। আহত হয়েছিল শতাধিক। কিন্তু এতেই তিনি খুশি, কারণ পাশের রাজ্যের রাজাকে চরম শাস্তি দিতে পেরেছেন এটাই তার বড় প্রাপ্তি।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত