সংগ্রামী এক নারী ট্রাক্টর চালক

  একদিন প্রতিদিন ডেস্ক ২২ জুন ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

লিয়াং জুন, চীনের প্রথম নারী ট্রাক্টর চালক। তিনি দেখিয়েছেন, একজন পুরুষ যা করতে পারে, নারীর পক্ষেও তা করা সম্ভব।

ট্রাক্টর চালক হয়েও তিনি জাতীয় ব্যক্তিত্বে পরিণত হয়েছিলেন। তার জন্ম ১৯৩০ সালে চীনের প্রত্যন্ত হেইলংজিয়াং প্রদেশের এক হতদরিদ্র পরিবারে। শুরুতে কৃষি জমিতে সাহায্য করার পাশাপাশি গ্রামের একটি স্কুলে পড়াশোনা করতেন।

১৯৪৮ সালে স্থানীয় একটি স্কুলে ট্রাক্টর চালানো প্রশিক্ষণ দেয়া শুরু হলে তিনি তাতে ভর্তি হয়ে যান। ওই ক্লাসে ৭০ প্রশিক্ষণার্থীর মধ্যে তিনি ছিলেন একমাত্র নারী। প্রশিক্ষণ শেষে তিনি হন চীনের প্রথম প্রশিক্ষিত নারী ট্রাক্টর চালক। তখন তার বয়স ছিল ১৮ বছর।

একসময় চীনে কেবল অভিজাত পরিবারের সদস্য, কবি এবং সামরিক নেতাদের কদর ছিল। ১৯৪৯ সালে কমিউনিস্ট পার্টি ক্ষমতা গ্রহণ করলে সমাজের বিভিন্ন পেশার কর্মজীবী মানুষের কদর বাড়ে। কমিউনিস্ট নেতা মাও জেদং গণ-প্রজাতান্ত্রিক চীন গঠনের ঘোষণা দেন। চীনে তখন দরিদ্র, কঠোর পরিশ্রমী মানুষ যারা দেশ গঠনে কাজ করছিলেন তাদের কথা বেশি বেশি প্রচার করা হয়। লিয়াং জুন ছিলেন তাদের মধ্যে অন্যতম প্রথম এবং সবচেয়ে পরিচিত মডেল কর্মী। ১৯৬২ সালে চীনে ট্রাক্টর চালানো অবস্থায় তার ছবিসহ ব্যাংক নোট ছাপানো শুরু হয়।

মুদ্রার ওপর তার হাসিমুখের ছবি দেখে অনেকে এমন কাজে উৎসাহিত হবে ভাবা হয়। কমিউনিস্ট পার্টি নারীদের, বিশেষ করে গ্রামীণ নারীদের দেশটির শ্রমবাজারে বেশি করে যুক্ত করতে চেয়েছিল। সেজন্য ভিন্ন ভিন্ন পেশায় নারীদের যুক্ত করার প্রচারণা হিসেবে তারা একজন ট্রাক্টর চালক নারীর প্রতিচ্ছবি উপস্থাপন করতে চেয়েছিল।

একসময় চীনের পাঠ্যবইগুলোতে লিয়াং জুনের জীবনের গল্প উঠে আসে এবং বহু নারী ট্রাক্টর চালাতে আগ্রহী হয়ে ওঠেন। তিনি চীনের সব নারীর প্রতীক হয়ে উঠেছিলেন। বর্তমানে চীনে নারীদের যে নানা রকম কাজের দ্বার উন্মোচিত হয়েছে সেটাও শুরু হয়েছে তার হাত ধরেই ।

লিয়াং জুন পরবর্তী সময়ে একজন প্রকৌশলী হয়ে উঠেছিলেন। যুক্ত হয়েছিলেন চীনের কমিউনিস্ট পার্টি সিসিপিতে সদস্য হিসেবে। তাকে বেইজিংয়ে কৃষি যন্ত্রপাতির ওপর পড়াশোনা করতে পাঠানো হয়। পড়াশোনা শেষে ফিরে আসেন হেইলংজিয়াংয়ে। সেখানে এগ্রিকালচারাল মেশিনারি রিসার্চ ইন্সটিটিউটে কাজ করেন।

১৯৯০ সালে হার্বিন মিউনিসিপাল ব্যুরো অব এগ্রিকালচারাল মেশিনের প্রধান প্রকৌশলীর পদ থেকে অবসরে যান লিয়াং জুন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে নানারকম শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন। প্রায়ই তিনি সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলতেন। শয্যাশায়ী ছিলেন অনেকদিন ধরেই। ৯০ বছর বয়সে ১৩ জানুয়ারি ২০২০ তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত