লন্ডনে উড়ছে চট্টগ্রামের ঝাণ্ডা

  শহীদুল্লাহ শাহরিয়ার ১১ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

লন্ডনের মাটিতে উড়ছে চট্টগ্রামের ঝান্ডা। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক কিংবা সেখানে পড়তে যাওয়া এবং ব্রিটিশ সিটিজেনশিপ পেয়ে বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত চট্টগ্রামের হাজার হাজার মানুষ ভুলতে চান না নিজের দেশকে। নিজের ভাষাকে। প্রবাস অথবা মাইগ্রেন্ট জীবন যেন তাদের আরও বেশি দেশপ্রেমিক, মাতৃভূমি প্রেমিক, মাতৃভাষা প্রেমিক করে তুলেছে। পূর্ব লন্ডনের মেনর পার্কে রয়েল রিজেন্সি হলে গ্রেটার চিটাগং অ্যাসোসিয়েশন-জিসিএ ইউকে’র উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছিল বার্ষিক মিলনমেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মেজবানের। এমন আয়োজনের মধ্য দিয়েই জিসিএ সেখানে উড়াচ্ছে চট্টগ্রামের ঝাণ্ডা। এ ঝান্ডা উড়ানোর গুরুদায়িত্বটি পালন করছেন ইমিগ্রেশন ল’য়ার হিসেবে খ্যাত চট্টগ্রামের বোয়াল খালীর সন্তান ব্যারিস্টার মনোয়ার হোসেন। তার সঙ্গে আছেন সেখানকার বারকিং ও ডেগেনহামের কাউন্সিলর সৈয়দ ফিরোজ গণি। জিসিএর যথাক্রমে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তারা লন্ডনে অবস্থানরত বৃহত্তর চট্টগ্রামের মানুষকে এক ছাতার নিচে এনে চট্টগ্রামের আলো জ্বালিয়ে রাখার কাজটি করছেন। লন্ডনে স্থাপন করতে চান তারা চট্টগ্রাম সেন্টার। চট্টগ্রামের কোনো হাসপাতালে খুলতে চান ক্যান্সার ওয়ার্ড।

মেধাবী এবং অর্থ সংকটে থাকা ছাত্রদের পাশে থাকা, দেশের যে কোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে বিদেশে বসেও সহযোগিতা করার চেষ্টা চালিয়ে যাবে জিসিএ। রয়েল রিজেন্সি হলে মিলনমেলায় অন্তত আড়াই হাজার চট্টগ্রামবাসীর জড়ো হয়েছিল। নাচ, গান, কবিতা আবৃত্তি, কমেডিসহ উপভোগের অনেক অনুষঙ্গ ছিল অনুষ্ঠানে। সিনিয়রদের দেয়া হয় সম্মাননা। চট্টগ্রামের মেজবানি মাংসের স্বাদ যারা ভুলতে বসেছেন তারাও নতুন করে সেই স্বাদ পেয়েছেন অনুষ্ঠানে এসে। টাওয়ার হেমলেট, ওয়েচমিনিস্টার, স্টেকহাম, কেনেডি ওয়ার্ফ, সেন্ট্রাল লন্ডন থেকে শুরু করে বিভিন্ন জায়গায় বাস করে চট্টগ্রামের মানুষ। পরিবার-পরিজন নিয়ে বিপুল আনন্দ-উপভোগ করেন দিনভর।

দেশ থেকে নিয়ে যাওয়া হয় দেশের বিশিষ্ট বাউলশিল্পী ফকির শাহাবুদ্দিনকে। গান শোনান লন্ডনে থাকা বাংলাদেশের পাঞ্জাবিওয়ালাখ্যাত আরেক বিশিষ্ট শিল্পী শিরিন। চট্টগ্রামের এই দুই শিল্পী দুই ঘণ্টা মজিয়ে রাখেন শ্রোতাদের। ভারতীয় চ্যানেল জিটিভির মিরাক্কেলের আরমানও চট্টগ্রামের চকরিয়ার ছেলে। তাকেও ওই অনুষ্ঠানে নিয়ে যায় জিসিএ। কমেডি ও জোকস বলে আরমানও হল মাতিয়ে রাখেন। জিসিএর আমন্ত্রণে অতিথি সাংবাদিক হিসেবে সেখানে যাওয়ার সুযোগ হয় আমারও।

জিসিএর মিলনমেলা গোটা চট্টগ্রামবাসীকে মিলিত হওয়ার সুযোগ এনে দিয়েছিল। একে অপরের সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করেন তারা দিনভর।

লেখক : চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.