হায়রে দুনিয়া

  গ্রন্থনা : সজিব রায় ২৮ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিমেন্টের ব্যাগে বিয়ের গাউন

বিয়ে মানুষের জীবনে একটি বিশেষ মুহূর্ত। প্রিয় এ মুহূর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। যেমন বিশেষ পোশাক পরা হয়। বিশেষ কোনো বাহন ব্যবহারের চেষ্টা করা হয়। তবে এবারও তেমনই একটি বিশেষ ঘটনা ঘটেছে। বিশেষ ঘটনাটি রীতিমতো বিস্ময়কর। বিয়ের পোশাক সচরাচর জীবনে একবারই পরা হয়। এ সময় বর্ণিল সাজে অতিথিদের সামনে হাজির হয় বর-কনে। পুরো আয়োজনে অতিথিদের আকর্ষণের অনেক বস্তু থাকলেও কনের পোশাকের প্রতি সবারই আলাদা নজর থাকে এবং সেটিই স্বাভাবিক।

সে পোশাকই যদি ‘ব্যতিক্রম’ কিছু হয় তাহলে তো চোখ তোলারই অবস্থা থাকবে না। এমন একটি ঘটনাই ঘটেছে চীনের প্রত্যন্ত এক গ্রামে। চীনের ২৮ বছর বয়সী তান লিলি নামে এক তরুণী সিমেন্টের ব্যাগ দিয়ে বিয়ের পোশাক তৈরি করে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছেন। লিলি জানান, বাড়ি তৈরির পর তার ঘরে সিমেন্টের ব্যাগ পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়েছিল। বৃষ্টিস্নাত এক বিকালে হঠাৎ খেয়ালের বশে তিনি ওই সিমেন্টের ব্যাগ দিয়ে গাউন আকৃতির একটি বিয়ের পোশাক তৈরি করেন। তারপর সেই পোশাক পরিহিত একটি ছবি ইন্টারনেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে দেন; যা এখন ব্যাপক আলোচিত বিষয়। ডেইলি মেইলের এক সংবাদ থেকে জানা যায়, ৪০টি সিমেন্টের ব্যাগ ব্যবহার করে পোশাকটি তৈরি করা হয়েছে।

মাছের দাম দুই কোটি টাকা

একটি মাছ, তার দাম কিনা দুই কোটি টাকা! অবিশ্বাস্য হলেও সিঙ্গাপুরে এশিয়ান অ্যারোয়ানা বা ড্রাগন ফিশ প্রজাতির একটি মাছের দাম হাঁকা হয়েছে ২ কোটি ২০ লাখ টাকা!

হবে নাই বা কেন! শখের তোলার দাম নাকি আশি টাকা! এশিয়ার কোটিপতিদের অন্যতম শখ যে এখন এই মাছ। প্রচলিত আছে মাছগুলো বাড়িতে রাখলে নাকি অর্থ সমৃদ্ধি বাড়ে, হাতে ধন-সম্পদ আসে। আর তাই মাছগুলো অ্যাকোয়ারিয়ামে রাখা শুরু হয়। এর আগে এগুলো ঠিক পোষ্য মাছ ছিল না।

ড্রাগন ফিশ বিশেষজ্ঞ এমিলে ভোগেট বলেন, ‘মাছটিকে নিজের বাড়ির অ্যাকোয়ারিয়ামে রাখার জন্য উৎসাহ প্রবলভাবে বেডে গেছে সমাজের ধনী শ্রেণীদের মধ্যে। আর এর ফলে একটি মাছের দাম ২ কোটি ২০ লাখ টাকায় গিয়ে ঠেকে।’ তবে সিঙ্গাপুরের বাজারে সাধারণত একটা পূর্ণবয়স্ক এশিয়ান অ্যারোয়ানার ন্যূনতম দাম প্রায় ৫২ লাখ টাকা।

মার্কারি নিউজের এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, আশির দশকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় প্রায় তিন ফুট লম্বা মাছগুলোর প্রজনন শুরু হয়। বিরল প্রজাতির এ মাছটি এক সময় পৃথিবীর বুক থেকে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল। এরপর মাছটি রক্ষায় এগিয়ে আসে ১৮৩টি দেশ। ১৯৭৫ সালে দেশগুলোর মধ্যে একটি চুক্তি হয়। এরপর থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে মাছটির বেচাকেনা বন্ধ হয় এবং এটি বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা পায়।

প্রায় কোটি টাকার পাবলিক টয়লেট

সম্প্রতি ভারতের মুম্বাইয়ের মেরিন ড্রাইভ সড়কের পাশে সাধারণ মানুষের জন্য ৯০ লাখ টাকা ব্যয়ে তৈরি করা হয়েছে পরিবেশবান্ধব ও ব্যয়বহুল একটি টয়লেট। এটি দেশটির সবচেয়ে দামি পাবলিক টয়লেট। এ টয়লেটে পানির অপচয় রোধ, সোলার প্যানেল ও ভ্যাকুয়াম প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। সম্প্রতি ভারতের সাউদ মুম্বাইয়ের মেরিন ড্রাইভের পাশে ছয় ব্লকের এ উন্নতমানের টয়লেটটি উদ্বোধন করেন শিবসেনা নেতা আদিত্য ঠাকরে।

জি নিউজ ২৪-এ প্রকাশিত এক সংবাদ থেকে জানা যায়, টয়লেটটির বিশেষত্ব হল, সাধারণ টয়লেটে প্রতি ফ্লাশে যেখানে খরচ হয় ৮ লিটার সেখানে এটাতে খরচ হবে মাত্র ৮০০ এমএল পানি। সকালে হাঁটতে আসা সাধারণ মানুষ ও সাইকেল চালকদের জন্য এ টয়লেট খুব উপকারে আসবে বলে জানিয়েছেন নিমার্তারা। টয়লেটটি ব্যবহারে তাদের কোনো পয়সাও গুনতে হবে না।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×