ধারাবাহিক রম্য টল TALK

ওর ফেসবুক নাম ‘কচি ওম্যান’

  শায়ের খান ২৩ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মেয়ে মানে জ্যাকিকে ফেসবুকে প্রস্তাব পাঠানো মেয়েটা। ওকে নিয়েই গবেষণা চলছে বাসায়। টেবিলের একপাশে ছানামুখী, চিকি, ম্যাশ। অন্যপাশে জ্যাকি আর টল। চিকি টলকে ওর পাশে এসে বসার ইশারা দিলেও টল সাড়া দেয়নি। জ্যাকিকে একপাশে রাখলে বিষয়টি একপেশে হয়ে যাবে।

সবাই যার যার মোবাইল ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে দেখছে মেয়ের ছবি। যদিও প্রোফাইল পিকচারে লাল লিপস্টিকের আঁকা ছবি দেয়া। কিছুটা আঁকাবাঁকাও। জনে জনে এই গুঞ্জনে মজা পাচ্ছে জ্যাকি। নবাব আর রমিলাও এসে ঢোকে। হাতের মোবাইলে চোখ রেখেই নবাব বলে, ‘কি ওসাম! গুল্লি ভাবি!’ ছানামুখী সবেগে মাথা তুলে উদ্বেগে বলেন, ‘তোরা পেলি কোথায়?’ নবাব বলে, ‘ভাইয়া সেন্ড মি।’

ছানামুখী : দেখাদেখির আগেই ভাইরাল করে দিস না খবরদার।

চিকি : এক্সাক্টলি। রমিলা, বি কেয়ারফুল।

নবাব : রাইট, অকেই বলেন। অর প্যাট পাতলা। ছড়াইয়া দিলে লাইক পড়বে ১০শ!

রমিলা : নবাব, হুঁশ কইরা কথা বইল। তিন ইঞ্চি কাইক্কা মাছের বডি দুই আঙ্গুলের মুচড়ে ভাইঙা দিব। ঘরের এগুলা কি বইলা বেড়ানো ভালো?

নবাব কিছুটা ভয় পায়। কাচুমাচু হেসে গ্ল্যামারাস রমিলাকে বলে, ‘না মানে বলতেসিলাম তুমার তো একটা বড় গুরুপ আছে। জানলে ছড়ায় যাবে।’

ম্যাশ : তোমরা ডিজিটাল ঝগড়া থামাও। বরং আমাদের জন্য এনালগ চা-স্ন্যাকস নিয়ে আসো যাও।

ওরা ঘুরতেই জ্যাকি নবাবকে দুই আঙ্গুল দেখিয়ে সশব্দে বলে, ‘ব্ল্যাক লেবেল।’

চমকে বিব্রত সবাই। ছানামুখী কিছু বলতে যাবে, ফিসফিসিয়ে ম্যাশ বলে, ‘আহ। ডক্টর বলেছে ও যা চাবে তাই যেন দেয়া হয়। এক আধ পেগ ব্ল্যাক লেবেলে ওই জীবিত ড্রাগ গোডাউনের কিছু আসবে যাবে না।’ কথা শেষ না হতেই টল চমকে ওঠে। এক জোড়া পায়েল পরা পা আলতো করে ওর দুই থাইয়ের ওপর অবস্থান নেয় যেন। কার পা? চিকির না ছানামুখীর? মুখের দুষ্টু হাসি দেখে বুঝে নেয়- চিকির। ওর নিশ্চুপতায় চিকি পা দুটো টেবিলের নিচ দিয়ে বাড়িয়ে আয়েশ করে ওর ল্যাপটপে রেখেছে। আর নিজের ইলেকট্রনিক ল্যাপটপে রেখেছে চোখ।

প্রথমেই নাম নিয়ে পড়েন ছানামুখী। বানান করে পড়েন, আর তার পরপরই ফেটে পড়েন, ‘এটা কোনো ডিসেন্ট নাম হল? কচি ওম্যান? একটা পিচ্চি মেয়ের নাম এমন অশ্লীল হবে কেন? ছিহ!’

ম্যাশ : আহ। যে কোনো নামেরই একটা পজিটিভ অর্থ থাকতে পারে। কারণও থাকতে পারে।

ছানামুখী : তাই বলে কচি ওম্যান? নিজের কচি বয়স জানান দেয়াটা কি ভালো?

ম্যাশ : মেয়েরা সবাই একটু কচিই থাকতে চায়। তুমি তো চান্স পেলে পিকনিকের উসিলায় সাভারের বাগানবাড়ি গিয়ে ফ্রক পরে ছি বুড়ি খেলতে নেমে যাও।

ছানামুখী : বাজে কথা বলবে না ম্যাশু! আমি রিসেন্টলি কবে ছি বুড়ি খেলেছি?

ম্যাশ : বুড়িদের আবার ছি বুড়ি কী? বাই দ্য ওয়ে, শব্দবিজ্ঞানী কী ভাবছো? ওহ, নবাব দেখি আমাদের ড্রিংক্স দিয়ে গেছে। চল সবাই টোস্ট করে নিই আগে। ফর দ্য সাকসেসফুল জার্নি টু কচি ওম্যান- চিয়ার্স!

ম্যাশ-ছানামুখী-চিকি কফির কাপ তুলে ধরে, জ্যাকি তুলে গ্লাস। টল গ্লাস তুলতে ইতস্তত করে।

চিকি : মিস্টার টল, আমরা সবাই আপনার ব্ল্যাক হিস্ট্রি জানি। ভণ্ডামি না করে টোস্ট করে আপনার মতামত জানান।

টল মিডিয়াম পেস বোলিয়ের ভঙ্গিমায় স্লোয়ার ডেলিভারীর গতিতে আস্তে গ্লাসটা উঠিয়ে নামিয়ে রাখে।

টল : আসলে আমার মনে হয়, কচি ওম্যান দুটো কারণে তার এই নাম রেখেছে।

ম্যাশ : কীরকম?

টল : কচি ওর নাম। কচি হচ্ছে একটা উভলিঙ্গ নাম। কচি ছেলের নামও হয়, মেয়ের নামও হয়। তাই আমাদের কচি যে আসলে মেয়ে, সেটা বোঝাতেই সে কচির পর ওম্যান লাগিয়ে কনফার্ম করেছে।

ছানামুখী : আর দ্বিতীয় কারণ?

টল : সম্ভবত কচি ওম্যান নিজেকে লুকিয়ে রাখতে চেয়েছে।

ছানামুখী : কার কাছ থেকে?

টল : ইভটিজারদের কাছ থেকে। যেহেতু সুন্দরী, সে চায় না, তাকে কেউ সার্চ দিয়ে খুঁজে পাক। তাই কড়পযর না লিখে বানানটা কধপযর লিখেছে। কধপযর ডড়সধহ! অর্থাৎ নিজ নিরাপত্তায় নিজের সুন্দর নামটা স্যাক্রিফাইস করে ধারালো কাঁচি লিখতে সে পিছপা হয়নি।

চিকি : আমারও তাই মনে হয়েছে।

ম্যাশ : তাহলে কি আমরা কচি ওম্যানকে জ্যাকের জন্য দেখতে যেতে পারি?

টল : অফকোর্স। মেয়ের ব্যাকগ্রাউন্ড ভালো। বাই দ্য ওয়ে, নবাব কি কাবাব দিতে পারবে?

চমকে টলের গ্লাস দেখে খুশিতে মিটিমিটি হেসে ওঠে চিকি। গ্লাস অর্ধেক খালি। জ্যাকিও তার সেই পুরনো স্টাইলে মিটিমিটি হেসে আদর করে টলের কানের লতি মুচড়ে দিচ্ছে।

চিকি : শুধু কাবাব কেন? গ্রিল-তান্দুরি সবই আসবে। আরও আসবে অনেক কিছু।

ল্যাপটপে টপাটপ টাইপ করতে থাকে। সম্ভবত অনলাইনে খাবারের অর্ডার দিবে।

(চলবে)

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×