স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ

  কাজী সুলতানুল আরেফিন ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সাত সকালে নাহিদা বেগমের হই চই শুনা গেল না দেখে অবাক হলাম। আজ দিব্যি আরামে ঘুমাতে পারব। কিন্তু এমন তো হওয়ার কথা ছিল না! তবে কি নাহিদা বেগমের আজ গলাব্যথা? নাকি টনসিলের সমস্যা দেখা দিয়েছে? বছরের ৩৬৫ দিন নাহিদা বেগমের ঝাঁঝালো কণ্ঠের এলার্ম শুনে আমার ঘুম ভাঙে। তবে যে কদিন তিনি বাপের বাড়িতে থাকেন সে কয়দিন শান্তিতে ঘুমাতে পারি।

প্রতিদিন কান ঝালাপালা করা মাইকের মতো বিকট শব্দে ঘুম থেকে ওঠায় অভ্যস্ত এই আমার আর ঘুম এলো না। বিছানা থেকে উঠে পড়লাম। গা ঝাড়া দিয়ে নাহিদা বেগমের অবস্থান জানতে উঁকি ঝুঁকি মারতে শুরু করলাম। অবশেষে নাহিদা বেগমের দেখা মিলল। চুপচাপ তিনি ড্রয়িং রুমে বসে আছেন।

আমাকে দেখে মুচকি হেসে বললেন, ‘আজ তো শান্তিতে ঘুমাতে পারতে!’

তার মুচকি হাসির আড়ালে আমি রহস্যের গন্ধ খুঁজে পেলাম। তার মনের গোপন রহস্য জানতে আমাকে বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হল না।

তিনি আবার বললেন, ‘আজ তোমাকে বিরক্ত করিনি। ঘুমানোর সুযোগ দিয়েছি, যাতে তোমার মাথা ঠাণ্ডা থাকে!’

‘মাথা গরম থাকলেই বা কী! কোন আবদারটা তোমার অপূর্ণ রেখেছি?’

‘না মানে আজকের ধাক্কাটা একটু বড়! ঈদ-টিদ গেল তো, হাত একেবারে খালি। তোমার বউ হয়ে আপা-খালাদের কাছে তো আর ছোট হতে পারি না!’

‘তো!’

‘পাশের বাসার ভাবীর কানে এক জোড়া স্বর্ণের ঝুমকা দেখেছি। এবার ঈদে তার সাহেব তাকে উপহার দিয়েছে। ঠিক সে রকম এক জোড়া আজকের মধ্যে চাই। দাম বিশ হাজার মাত্র!’

‘আচমকা এত বড় ধাক্কা?’

‘কেন? কী হয়েছে?’

‘এত বাজেট নেই এখন! পকেটের অবস্থা ভালো না। বাজারে জিনিসপত্রের দামের খবর তো জানোই। খরচ কমাতে হবে।’

‘বুঝলাম। ভালো উদ্যোগ। কিন্তু গত বাজেটের পর সিগারেটের দাম বেড়েছে, তারপরও তো সিগারেটের ধোঁয়া মুখ দিয়ে টেনে কান দিয়ে ছাড়তে দেখি রোজ! তখন খরচ কমানোর কথা মনে পড়ে না?’

‘আরে থামো, সবাই শুনতে পাবে তো!’

‘মোবাইলের কল রেটেও তো খরচ কম না, তবুও অফিসের মহিলা সহকর্মীদের প্রতিদিন খোঁজ-খবর নিতে দেখি তোমাকে! তখন খরচ কমানোর কথা মনে পড়ে না?’

‘আরে থামো, সবাই শুনতে পাবে!’

‘শুনুক। তোমার চরিত্র সবার কাছে ক্লিয়ার হওয়ার দরকার আছে। ভদ্রলোকের মুখোশ পরে ঘুরে বেড়াবে আর তলে তলে মেনি মাছের মতো ময়লা খাবে তা হবে না। ভালোবাসার উপর তো সরকার কোনও ট্যাক্স বসায়নি। তবুও আমাকে ভালোবাসা দিতে তোমার যত কৃপণতা!’

‘আরে হয়েছে তো, থামো এবার- সবাই শুনতে পাবে!’

‘তারপর...।’

‘ওরে বাবারে থামো, থামো, ঝুমকা জোড়া এনে দিচ্ছি!’

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×