দাওয়াইয়ের নাম হাসি
jugantor
দাওয়াইয়ের নাম হাসি

  গ্রন্থনা : রাফিয়া আক্তার  

২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছেলে : বাবা, আমি পরীক্ষায় এ প্লাস পাইছি!

বাবা : কোন পরীক্ষায়?

ছেলে : রক্ত পরীক্ষায়!

বাবা : দূর হ আমার চোখের সামনে থেকে।

*

স্ত্রী : শুনেছি তুমি এমএ পাশ। অথচ পত্নীর অর্থ জানো না?

স্বামী : জানব না কেন! যে নিজের পতির পতনের কারণ হয় তাকে পত্নী বলে!

*

স্বামী : তুমি সবসময় মূর্খের মতো কথা বলো কেন?

স্ত্রী : কী করব বলো! কথায় বলে, সঙ্গ দোষে লোহাও ভাসে! আমারও তাই হয়েছে। এটা সঙ্গ দোষের ফল! বিয়ের আগে কিন্তু আমি এরকম মূর্খের মতো কথা বলতাম না!

*

স্ত্রী : আমি জানি, আমি মরলে সঙ্গে সঙ্গে তুমি আবার বিয়ে করবে!

স্বামী : না না, সঙ্গে সঙ্গে বিয়ে করব না। তার আগে অন্তত একমাস বিশ্রাম নেবো!

*

মাথায় হেলমেট পরে রাস্তায় বেরিয়েছে মিন্টু। রাস্তায় তাকে এক ট্রাফিক পুলিশ থামিয়ে দিল, ‘দাঁড়াও এখানে। একদম নড়াচড়া করবে না।’

মিন্টু : কী ব্যাপার, আমাকে থামিয়েছেন কেন?

পুলিশ : তোমাকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হলো!

মিন্টু : আমার অপরাধ কী?

পুলিশ : অপরাধ কী মানে! হেলমেট পরে এসেছ অথচ সঙ্গে বাইক নাই! জলদি ৫০০ টাকা বের করো!

*

স্ত্রী : বিয়ের আগে বলেছিলে আমাকে রাজরানী করে রাখবে! এখন তো দেখছি চাকরানি করে রেখেছ!

স্বামী : আমি তো চেয়েছিলাম, কিন্তু দেশ থেকে রাজতন্ত্র বিদায় নিলে আমার কী দোষ!

দাওয়াইয়ের নাম হাসি

 গ্রন্থনা : রাফিয়া আক্তার 
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছেলে : বাবা, আমি পরীক্ষায় এ প্লাস পাইছি!

বাবা : কোন পরীক্ষায়?

ছেলে : রক্ত পরীক্ষায়!

বাবা : দূর হ আমার চোখের সামনে থেকে।

*

স্ত্রী : শুনেছি তুমি এমএ পাশ। অথচ পত্নীর অর্থ জানো না?

স্বামী : জানব না কেন! যে নিজের পতির পতনের কারণ হয় তাকে পত্নী বলে!

*

স্বামী : তুমি সবসময় মূর্খের মতো কথা বলো কেন?

স্ত্রী : কী করব বলো! কথায় বলে, সঙ্গ দোষে লোহাও ভাসে! আমারও তাই হয়েছে। এটা সঙ্গ দোষের ফল! বিয়ের আগে কিন্তু আমি এরকম মূর্খের মতো কথা বলতাম না!

*

স্ত্রী : আমি জানি, আমি মরলে সঙ্গে সঙ্গে তুমি আবার বিয়ে করবে!

স্বামী : না না, সঙ্গে সঙ্গে বিয়ে করব না। তার আগে অন্তত একমাস বিশ্রাম নেবো!

*

মাথায় হেলমেট পরে রাস্তায় বেরিয়েছে মিন্টু। রাস্তায় তাকে এক ট্রাফিক পুলিশ থামিয়ে দিল, ‘দাঁড়াও এখানে। একদম নড়াচড়া করবে না।’

মিন্টু : কী ব্যাপার, আমাকে থামিয়েছেন কেন?

পুলিশ : তোমাকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হলো!

মিন্টু : আমার অপরাধ কী?

পুলিশ : অপরাধ কী মানে! হেলমেট পরে এসেছ অথচ সঙ্গে বাইক নাই! জলদি ৫০০ টাকা বের করো!

*

স্ত্রী : বিয়ের আগে বলেছিলে আমাকে রাজরানী করে রাখবে! এখন তো দেখছি চাকরানি করে রেখেছ!

স্বামী : আমি তো চেয়েছিলাম, কিন্তু দেশ থেকে রাজতন্ত্র বিদায় নিলে আমার কী দোষ!