ধামতীর পীর সাহেব হুজুর স্মরণে
jugantor
ধামতীর পীর সাহেব হুজুর স্মরণে

  মুহাম্মদ ছফিউল্লাহ হাশেমী  

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুমিল্লা জেলার ঐতিহ্যবাহী ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ ও ধামতী দরবারের পীর সাহেব হুজুর, উস্তাজুল ওলামা মাওলানা আবদুল হালিম (রহ.) পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিয়েছেন ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০। তিনি কুমিল্লার ধামতী গ্রামে ২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা উপমহাদেশের অন্যতম আধ্যাত্মিক রাহবার ফুরফুরা শরিফের পীর মুজাদ্দিদে জামান আবু বকর সিদ্দিকী আল-কুরাইশী (রহ.)-এর অন্যতম খলিফা পীরে কামেল মাওলানা আজিম উদ্দীন আহমদ (রহ.)।

তিনি পিতার কাছে ইলমে তাসাওউফের আধ্যাত্মিক দীক্ষা লাভ করেন। এরপর আমৃত্যু ধামতী দরবারের পীর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৭৩ সালে তিনি দেশসেরা দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ঐতিহ্যবাহী ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসার উস্তাদ হন এবং ১৯৭৫ সালে অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হন। ইলমে দ্বীনের প্রসারই ছিল মাওলানা আবদুল হালিম (রহ.)-এর জীবনব্যাপী ব্রত। তিনি ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসাকে এমন একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলেছেন, যেখান থেকে বিশ্বব্যাপী বিচ্ছুরিত হয়েছে দ্বীন শিক্ষার আলো। কেন্দ্রীয় পরীক্ষায় এ মাদ্রাসার ফলাফল প্রশংসনীয়। ১৯৮৮ সালে এ মাদ্রাসা শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসার পুরস্কার লাভ করে।

ধামতীর পীর সাহেব ছিলেন বড় অন্তরের অধিকারী। উদার দৃষ্টিভঙ্গি ও সহৃদয়তার কারণে সর্বস্তরের মানুষের কাছে তিনি জনপ্রিয় ছিলেন। দলমত নির্বিশেষে সব মানুষকে আপন করে নেয়ার গুণ ছিল তার। ধামতীর সর্বস্তরের মানুষ তার বিদায়ে চোখের জল ফেলছে। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন মরহুম পীর সাহেব হুজুরকে জান্নাতের সর্বোচ্চ মর্যাদা দান করুন।

লেখক : কলেজ শিক্ষক ও সাবেক শিক্ষার্থী, ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা

ধামতীর পীর সাহেব হুজুর স্মরণে

 মুহাম্মদ ছফিউল্লাহ হাশেমী 
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুমিল্লা জেলার ঐতিহ্যবাহী ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ ও ধামতী দরবারের পীর সাহেব হুজুর, উস্তাজুল ওলামা মাওলানা আবদুল হালিম (রহ.) পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিয়েছেন ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০। তিনি কুমিল্লার ধামতী গ্রামে ২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা উপমহাদেশের অন্যতম আধ্যাত্মিক রাহবার ফুরফুরা শরিফের পীর মুজাদ্দিদে জামান আবু বকর সিদ্দিকী আল-কুরাইশী (রহ.)-এর অন্যতম খলিফা পীরে কামেল মাওলানা আজিম উদ্দীন আহমদ (রহ.)।

তিনি পিতার কাছে ইলমে তাসাওউফের আধ্যাত্মিক দীক্ষা লাভ করেন। এরপর আমৃত্যু ধামতী দরবারের পীর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৭৩ সালে তিনি দেশসেরা দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ঐতিহ্যবাহী ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসার উস্তাদ হন এবং ১৯৭৫ সালে অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হন। ইলমে দ্বীনের প্রসারই ছিল মাওলানা আবদুল হালিম (রহ.)-এর জীবনব্যাপী ব্রত। তিনি ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসাকে এমন একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলেছেন, যেখান থেকে বিশ্বব্যাপী বিচ্ছুরিত হয়েছে দ্বীন শিক্ষার আলো। কেন্দ্রীয় পরীক্ষায় এ মাদ্রাসার ফলাফল প্রশংসনীয়। ১৯৮৮ সালে এ মাদ্রাসা শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসার পুরস্কার লাভ করে।

ধামতীর পীর সাহেব ছিলেন বড় অন্তরের অধিকারী। উদার দৃষ্টিভঙ্গি ও সহৃদয়তার কারণে সর্বস্তরের মানুষের কাছে তিনি জনপ্রিয় ছিলেন। দলমত নির্বিশেষে সব মানুষকে আপন করে নেয়ার গুণ ছিল তার। ধামতীর সর্বস্তরের মানুষ তার বিদায়ে চোখের জল ফেলছে। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন মরহুম পীর সাহেব হুজুরকে জান্নাতের সর্বোচ্চ মর্যাদা দান করুন।

লেখক : কলেজ শিক্ষক ও সাবেক শিক্ষার্থী, ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা