জ্ঞান ও জ্ঞানীর কদর
jugantor
নবীজি বলেছেন
জ্ঞান ও জ্ঞানীর কদর

  হাফেজ আহমাদ উল্লাহ  

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সাহাবাদের লক্ষ্য করে নবী (সা.) বলেন, খোদাকে খুশি করার উদ্দেশ্যে তুমি যদি অন্য ভাইকে কিছু শেখাও এর চেয়ে উত্তম আর কোনো কাজ নেই। জ্ঞান শিক্ষা দেয়া এবং জ্ঞানার্জন করা দুটিই ইবাদত।

জ্ঞান বিষয়ে আলোচনা করা তসবিহ জপ করার মতো। যে জ্ঞানকে কাজে লাগাল সে যেন জিহাদ করল। কাউকে কিছু শেখানো সদকা করার মতো।

উপযুক্ত কাউকে কিছু শেখাতে পারলে খোদার নৈকট্য লাভ করা যায়। যেহেতু জ্ঞান হালাল-হারাম শেখায়, জান্নাতের রাস্তা প্রশস্ত করে ও একাকিত্ব দূর করে।

তিনি বললেন- যে কেউ কিছু জ্ঞানার্জন করল, আল্লাহকে রাজি করার উদ্দেশ্যে অন্যকে তা শেখাল, আল্লাহতায়ালা তাকে সত্তরজন নবীর পুরস্কারের সমান পুরস্কার দেবেন।

তোমরা যদি জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি পাওয়া কাউকে দেখতে চাও তাহলে জ্ঞানার্জনে বড়দের দেখে নিও। আল্লাহর শপথ করে বলছি- জ্ঞানার্জনের উদ্দেশ্যে যে জ্ঞানীর ঘরের দিকে পা ফেলে তার প্রতিটি পদক্ষেপে আল্লাহ এক বছরের সমান ইবাদতের সওয়াব লিখে দেন।

তার প্রতি পদক্ষেপ একেকটি শহর তৈরি করে দেন জান্নাতে। সে যখন জমিনে হাঁটে তার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করে জমিন। তার সকাল-সন্ধ্যা হয় ক্ষমাপ্রাপ্ত অবস্থায়। জেনে নিও, সে জাহান্নামের আগুন থেকে রেহাই পেয়ে গেছে।

আয়াতুল্লাহ জাওয়াদি আমোলির মাফাতিহুল আয়াত থেকে

লেখক : সাংবাদিক ও শিশু সাহিত্যিক

নবীজি বলেছেন

জ্ঞান ও জ্ঞানীর কদর

 হাফেজ আহমাদ উল্লাহ 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সাহাবাদের লক্ষ্য করে নবী (সা.) বলেন, খোদাকে খুশি করার উদ্দেশ্যে তুমি যদি অন্য ভাইকে কিছু শেখাও এর চেয়ে উত্তম আর কোনো কাজ নেই। জ্ঞান শিক্ষা দেয়া এবং জ্ঞানার্জন করা দুটিই ইবাদত।

জ্ঞান বিষয়ে আলোচনা করা তসবিহ জপ করার মতো। যে জ্ঞানকে কাজে লাগাল সে যেন জিহাদ করল। কাউকে কিছু শেখানো সদকা করার মতো।

উপযুক্ত কাউকে কিছু শেখাতে পারলে খোদার নৈকট্য লাভ করা যায়। যেহেতু জ্ঞান হালাল-হারাম শেখায়, জান্নাতের রাস্তা প্রশস্ত করে ও একাকিত্ব দূর করে।

তিনি বললেন- যে কেউ কিছু জ্ঞানার্জন করল, আল্লাহকে রাজি করার উদ্দেশ্যে অন্যকে তা শেখাল, আল্লাহতায়ালা তাকে সত্তরজন নবীর পুরস্কারের সমান পুরস্কার দেবেন।

তোমরা যদি জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি পাওয়া কাউকে দেখতে চাও তাহলে জ্ঞানার্জনে বড়দের দেখে নিও। আল্লাহর শপথ করে বলছি- জ্ঞানার্জনের উদ্দেশ্যে যে জ্ঞানীর ঘরের দিকে পা ফেলে তার প্রতিটি পদক্ষেপে আল্লাহ এক বছরের সমান ইবাদতের সওয়াব লিখে দেন।

তার প্রতি পদক্ষেপ একেকটি শহর তৈরি করে দেন জান্নাতে। সে যখন জমিনে হাঁটে তার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করে জমিন। তার সকাল-সন্ধ্যা হয় ক্ষমাপ্রাপ্ত অবস্থায়। জেনে নিও, সে জাহান্নামের আগুন থেকে রেহাই পেয়ে গেছে।

আয়াতুল্লাহ জাওয়াদি আমোলির মাফাতিহুল আয়াত থেকে

লেখক : সাংবাদিক ও শিশু সাহিত্যিক