পৃথিবীর দীর্ঘতম নদী

  প্রকৃতি ও জীবন ডেস্ক ১৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশালতা বরাবরই বিস্ময়ের। বিশালতার সঙ্গে প্রকৃতির ঐশ্বর্য যোগ হলে তৈরি হয় শ্রেষ্ঠতা। তাই পৃথিবীর দীর্ঘতম নদী হিসেবে ‘নীলনদ’ আজ শ্রেষ্ঠতার আসনে। নীলনদের অববাহিকায় গড়ে ওঠা মিসরীয় সভ্যতাও রীতিমতো স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ আছে ইতিহাসের পাতায়। এ নদীর দুটি উপনদী। একটি হল শ্বেত নীল নদ, উৎপত্তি হয়েছে আফ্রিকার মধ্যভাগের হ্রদ অঞ্চল থেকে। অন্যটি নীলাভ নীলনদ। নীলাভ জলরাশির এ নীলনদের উৎসস্থল ইথিওপিয়ার তানা হ্রদ। রহস্যময় হলেও একথা সত্যি, পৃথিবীর সব নদ-নদী উত্তর থেকে দক্ষিণ দিকে প্রবাহিত হলেও নীলনদ দক্ষিণ থেকে উত্তর দিকে প্রবাহিত হয়! এ নদীর আরও একটি বৈশিষ্ট্য হল, বছরের নির্দিষ্ট সময়ে পৃথিবীর অন্যান্য নদী শুকিয়ে গেলেও নীলনদ কানায় কানায় জলে ভরা থাকে। আর নীলনদ যখন শুকিয়ে যায় তখন অন্যান্য নদী জলে ভরা থাকে। নীল নদের ব-দ্বীপে বাস করে প্রায় চার কোটি মানুষ। খ্রিস্টপূর্ব ৩১০০ অব্দ থেকে এ নদী অববাহিকার বিস্তৃতি বেড়ে বর্তমানে ১০টি দেশ এর আশীর্বাদপুষ্ট। সেগুলো হল- মিসর, সুদান, দক্ষিণ সুদান, বুরুন্ডি, রুয়ান্ডা, কঙ্গো, তানজানিয়া, কেনিয়া, ইথিওপিয়া ও উগান্ডা।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×