মুনসের নতুন শোরুম
jugantor
মুনসের নতুন শোরুম

   

২৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বনানী ১১ নম্বরে ২০০৭ সালে যাত্রা শুরু করে মুনস। অল্প সময়ের মধ্যেই ক্রেতাদের মধ্যে সাড়া জাগায় মুনস। প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার নাসরিন জাহান মুনমুনের হাত অভিনব এবং নিত্যনতুন ডিজাইন প্রতিষ্ঠানটিকে অন্যদের থেকে আলাদা করে তুলেছে। আর বনানী ১১ নম্বরেই এইচ ব্লক ৪৭ নম্বর ভবনে মুনসের নতুন একটি শোরুমের উদ্বোধন করা হয়েছে। শীত এবং নতুন বছর সামনে রেখে এই শোরুমটি একেবারে ভিন্ন সাজে সেজেছে। শাড়ি, কামিজ, আনস্টিচ, লেহেঙ্গা, ওয়েস্টার্ন ড্রেস, টপস এবং সব ধরনের বুটিক পণ্যসহ মুনস এ ক্রেতারা পাচ্ছেন পরিপূর্ণ লাইফস্টাইল সলিউশন। মুনসের নিজেদের ফ্যাক্টরিতেই তৈরি হচ্ছে বিশ্বমানের জামদানি, মসলিন, সুতি, সিল্ক কাপড়ের নানান ধরনের ডিজাইন। আর এগুলো দিয়ে তৈরি হচ্ছে শাড়ি, কামিজ, আনস্টিচ, ওয়েস্টার্ন ড্রেস। নতুন শোরুম এবং মুনসের কালেকশন প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার নাসরিন জাহান মুনমুন বলেন, ‘শিগগিরই আমরা আমাদের আরও নতুন অউলেট খুলছি। ক্রেতাদের কাছ থেকে দারুণ সাড়া পেয়েছি। আর আমরা বাংলাদেশের বুটিক পণ্য ও ফ্যাশন পণ্যকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে কাজ করছি।’

মুনসের নতুন শোরুম

  
২৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বনানী ১১ নম্বরে ২০০৭ সালে যাত্রা শুরু করে মুনস। অল্প সময়ের মধ্যেই ক্রেতাদের মধ্যে সাড়া জাগায় মুনস। প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার নাসরিন জাহান মুনমুনের হাত অভিনব এবং নিত্যনতুন ডিজাইন প্রতিষ্ঠানটিকে অন্যদের থেকে আলাদা করে তুলেছে। আর বনানী ১১ নম্বরেই এইচ ব্লক ৪৭ নম্বর ভবনে মুনসের নতুন একটি শোরুমের উদ্বোধন করা হয়েছে। শীত এবং নতুন বছর সামনে রেখে এই শোরুমটি একেবারে ভিন্ন সাজে সেজেছে। শাড়ি, কামিজ, আনস্টিচ, লেহেঙ্গা, ওয়েস্টার্ন ড্রেস, টপস এবং সব ধরনের বুটিক পণ্যসহ মুনস এ ক্রেতারা পাচ্ছেন পরিপূর্ণ লাইফস্টাইল সলিউশন। মুনসের নিজেদের ফ্যাক্টরিতেই তৈরি হচ্ছে বিশ্বমানের জামদানি, মসলিন, সুতি, সিল্ক কাপড়ের নানান ধরনের ডিজাইন। আর এগুলো দিয়ে তৈরি হচ্ছে শাড়ি, কামিজ, আনস্টিচ, ওয়েস্টার্ন ড্রেস। নতুন শোরুম এবং মুনসের কালেকশন প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার নাসরিন জাহান মুনমুন বলেন, ‘শিগগিরই আমরা আমাদের আরও নতুন অউলেট খুলছি। ক্রেতাদের কাছ থেকে দারুণ সাড়া পেয়েছি। আর আমরা বাংলাদেশের বুটিক পণ্য ও ফ্যাশন পণ্যকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে কাজ করছি।’