ত্বক ও চুলের যত্নের আদ্যোপান্ত

  যুগান্তর ডেস্ক    ১২ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মানুষের সব থেকে বড় সম্পদ হচ্ছে তার সৌন্দর্য। আর এই সৌন্দর্যের প্রায় পুরোটাই নির্ভর করে ত্বকের ওপর। কীভাবে আপনি ত্বক সুন্দর রাখবেন কীভাবে মোকাবেলা করবেন ত্বকের নানাবিধ সমস্যা এ বিষয়ে পরামর্শ দিচ্ছেন আকাঙ্খাস গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের কর্ণধার এ্যারোমা থেরাপিস্ট জুলিয়া আজাদ।

অধিকাংশ নারী পুরুষ অবৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে ত্বকের যত্ন নিয়ে থাকেন। এতে ত্বকের আরও দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতি হয়। যাই হোক, সব সময় মনে রাখবেন খুব তাড়াতাড়ি ফলের আশায় নিজের ক্ষতি ডেকে আনবেন না। ত্বকের যত্ন নেয়ার আগে অবশ্যই নিজের ত্বক সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে হবে। যেহেতু প্রত্যেক মানুষের ত্বক আলাদা আলাদা হয়, তাই ত্বকের যত্ন নেয়ার সময় আপনার ত্বক শুষ্ক, সাধারণ, মিশ্র বা তৈলাক্ত এ ব্যাপারে আপনার ভালো জ্ঞান না থাকলে আপনি ভালো ফলও আশা করতে পারবেন না। আর একটা জিনিস আপনাকে মাথায় রাখতে হবে তা হল আপনার ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক জিনিসের মতো ভালো কিছুই আর এ জগতে নেই।

সাধারণ ত্বক : মসৃণ এবং সুন্দর ত্বককেই সাধারণ ত্বক বলা হয়। এ ধরনের ত্বকে সাধারণত তেমন কোনো সমস্যা থাকে না। তবে যত্ন সব ত্বকেই কমবেশি করতে হবে। আর সব সময় মনে রাখতে হবে। ক্লিজিং টোনিং ময়েশ্চারাইজিং কথা। যখনই ক্লিন করবেন টোনিং না করলে আপনার ত্বকে ওপেন পোর্সের সমস্যা দেখা দেবে ধীরে ধীরে। তাই ক্লিন করার পর টোনিং এবং ময়েশ্চারাইজিং অবশ্যই করবেন।

তৈলাক্ত ত্বক : এ ধরনের ত্বকে ব্রণের সমস্যা বেশি দেখা দেয়, আর সেই সঙ্গে ব্ল্যাক হেডসের সমস্যাও থাকে তাই আপনার যত্ন হবে দু’ভাবে। ব্রণ না থাকলে অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে সমপরিমাণ চিনি মিশিয়ে দানাদার থাকা অবস্থায় ম্যাসাজ করুন সার্কেল মুভমেন্টে। এতে আপনার ত্বকের তৈলাক্ততা কিছুটা কমবে। ব্ল্যাক হেডসও কমে যাবে। কিন্তু যদি ব্রণ থাকে ত্বকে সমপরিমাণ শসা ও টমেটো গ্রেড করে পুরো মুখে ম্যাসাজ করে দুই মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এরপর অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে দুই মিনিট ম্যাসাজ করুন। এরপর মুখ ধুয়ে টোনিং ময়েশ্চারাইজিং করে নিন। রাতে শোয়ার আগে লবঙ্গ পেস্ট করে প্রতিটা ব্রণের মুখে লাগিয়ে দিন। সকালে ধুয়ে ময়েশ্চারাইজিং লাগিয়ে দিন। ধীরে ধীরে ব্রণ কমে যাবে।

শুষ্ক ত্বক : এ ধরনের ত্বকের ক্ষেত্রে সাধারণত সমস্যা বেশি থাকে। এর মধ্যে সব থেকে বেশি সমস্যা হল দাগের সমস্যা। আপনার ত্বকের জন্য সানস্কিন লোশন ভীষণ দরকার। যখনই বাইরে বের হবেন অবশ্যই সানস্কিন ক্রিম লাগাতে ভুলবেন না। দাগ থাকলে রাতে শোবার সময় সমপরিমাণ ভিনেগার ও পেঁয়াজের রস মিলিয়ে দাগের ওপর লাগান সকালে ধুয়ে ময়েশ্চারাইজিং করতে ভুলবেন না।

এভাবে ধীরে ধীরে দাগ কমে আসবে।

চুলের যত্নে : সপ্তাহে দু’দিন হট অয়েল থেরাপি নিন। ম্যাসাজ করুন সঠিকভাবে। এক ঘণ্টা রেখে ভালো কোনো শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে কন্ডিশনিং করে নিন। আজকাল মার্কেটে অনেক ধরনের রেডি হেয়ার মাস্ক পাওয়া যায়। সপ্তাহে একদিন হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করুন। মাসে একবার স্পিটেন্ট কাটুন। চুল সুন্দর ও ঝরঝরে থাকবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×