গরমে সারাদিন সতেজ ও ফুরফুরে

  হাবীবাহ্ নাসরীন ২৫ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বর্ষাকাল শুরু হয়ে গেছে। যদিও গরম তার প্রভাব বিস্তার করেই চলেছে। একটু বৃষ্টি ঝরছে তো গুমোট গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা। এমন গরমে সারা দিন ঘরে থাকা সম্ভব নয় নিশ্চয়ই। শীত, গ্রীষ্ম কিংবা বর্ষা- কাজের প্রয়োজনে আমাদের ঘরের বাইরে যেতে হয়। আর এ সময়ে নিজের দিকে একটু খেয়াল না রাখলে ঘাম আর অস্বস্তিতে খুব সহজেই নিস্তেজ হয়ে পড়তে পারেন। তাই সবার আগে খেয়াল রাখতে হবে কিছু বিষয়ের প্রতি। যে কাজগুলো করলে আপনি সারা দিন সতেজ ও ফুরফুরে অনুভব করবেন-

গোসল

সকালে বের হওয়ার আগে গোসল সেরে নিন। এতে আপনি যেমন নিজেকে পাবেন ফুরফুরে মেজাজে তেমনি কাজের শুরুতেই দিনটা হবে প্রাণচঞ্চল। গোসলের পানিতে একফোঁটা গোলাপজল মিশিয়ে নিতে পারেন; এটি আপনাকে প্রশান্তি দেবে।

খাবার

সকালের নাশতায় ভারি তেল-চর্বি খাবার না রেখে হাল্কা পানীয় যেমন- কমলার জুস কিংবা মিল্ক সেক রাখতে পারেন। এটি আপনাকে একদিকে যেমন মুখরোচক খাবার দিচ্ছে, তেমনি আপনার শরীরকে দিচ্ছে সারা দিনের এনার্জি। এ সময়ের খাবার হবে জলীয় ও হালকা মসলাযুক্ত। অতিরিক্ত তেল-মসলা দেয়া তরকারি হজমে গণ্ডগোল ও এসিডিটির সৃষ্টি করে। পেট পরিষ্কার না থাকলে তার প্রভাব পড়ে ত্বকে। ফুসকুড়ি, ব্রণ, র‌্যাশ দূরে রাখতে ঝোল তরকারি, সবজি, ডাল ও পর্যাপ্ত পরিমাণ সালাদ খান।

ফল, সবজি ও সালাদ শরীরে পানি ধরে রাখতে সাহায্য করে; পেট পরিষ্কার রাখে এবং কর্মক্ষম রাখে শরীর। এ গরমে শরীর ও ত্বক সুস্থ রাখতে পানির বিকল্প নেই। গরমে ঘামের সঙ্গে শরীর থেকে প্রচুর পানি বেরিয়ে যায়। সারা দিনে ১০ থেকে ১২ গ্লাস পানি পান করুন। বেশি পানি খেতে ভালো না লাগলে ডাবের পানি, চিনি ছাড়া ফলের রস, ছানার পানি, টকদইয়ের ঘোল খেতে পারেন।

টিস্যু

ব্যাগে রাখুন ওয়েট টিস্যু। ওয়াটার স্প্রে বোতলে গোলাপজল ভরে সঙ্গে রাখতে পারেন। দীর্ঘ সময় বাইরে থাকতে হলে ফ্রেশ দেখাতে প্রথমে ওয়েট টিস্যু দিয়ে মুখ মুছে নিন। তারপর গোলাপজল স্প্রে করুন। শুকিয়ে গেলে সানস্ক্রিন আর পাউডার বুলিয়ে নিলেই সতেজ দেখাবে। মাঝারি আকারের ব্যাগ রাখুন সঙ্গে। পানির বোতল, ছাতাসহ প্রয়োজনীয় সবকিছু রাখা যায়। গরমে ঘামে খসখসে কাপড় ব্যবহার না করাই ভালো। এতে চামড়ায় লালচে দাগ পড়ে যায় এবং সঙ্গে সঙ্গে এলার্জিজনিত সমস্যাও দেখা দিতে পারে; তাই গরমে হাত-মুখ মোছার কাপড় ব্যবহারে সতর্কতা অবলম্বন করুন।

হাল্কা রঙের কাপড়

গরমের শুরুতে হাল্কা রঙের কাপড় পরার অভ্যাস গড়ে তুলুন। সাদা রঙের কাপড় হাল্কা গরমে বেশি পরতে পারেন; তবে কালো রঙের কাপড় না পরাই ভালো। ব্যবহারের সময় কাপড়টি সম্পূর্ণ সুতি কিনা সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। সুতির পাশাপাশি লিলেনও এ সময় আরামদায়ক।

চুল বাঁধার ধরন

এ সময় বেঁধে রাখা চুল ছেড়ে রাখার চেয়ে ভালো। এতে আপনার গরম তুলনামূলকভাবে কম লাগবে। এ গরমে কোথাও যেতে খোঁপা কিংবা পলিটেইল খুব সহজেই আপনার সঙ্গে মানিয়ে যাবে।

ত্বকের যত্ন

বাইরে বের হওয়ার আগে নরম সুতি কাপড়ে বরফের টুকরা জড়িয়ে নিন। হাল্কাভাবে মুখে ঘষুন। মুখের ত্বক বেশ স্পর্শকাতর হয়। তাই ত্বকে সরাসরি বরফ না ঘষাই ভালো। এরপর সানস্ক্রিন লাগান। সানস্ক্রিনের ওপর ব্রাশ দিয়ে কমপ্যাক্ট বা লুজপাউডার লাগান। দীর্ঘ সময় সতেজ থাকবে ত্বক।

নিমপাতা সিদ্ধ করে পানি বোতলে ভরে ফ্রিজে রাখুন। গোসল শেষে দুই মগ পানিতে এক গ্লাস নিমপাতা সিদ্ধ পানি মিশিয়ে গায়ে ঢালুন। ঘামের দুর্গন্ধ অনেক কম হবে। আর যে কোনো ত্বকের সমস্যা দূরে থাকবে।

আইস বক্সে ডাবের পানি দিয়ে বরফ বানিয়ে রাখুন। বাইরে থেকে ফিরে প্রথমে মুখ ফেসওয়াশ দিয়ে ধুয়ে নিন। ডাবের আইস কাপড়ে জড়িয়ে মুখে ও হাতের খোলা অংশে ঘষুন। রোদে পোড়া দাগ হবে না।

সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে বাঁচতে কমপক্ষে এসপিএফ ৪০ সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত। ঘামরোধক সানস্ক্রিন ব্যবহার করাও জরুরি, কারণ এতে ত্বক সতেজ থাকবে ও চিটচিটে হবে না। সূর্যালোকে দুই ঘণ্টার বেশি সময় থাকলে আবারও সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে। পানিতে নামলে পানিরোধক সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে এবং তা বাইরে যাওয়ার আধাঘণ্টা আগেই মেখে নিতে হবে। সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি ঠোঁট শুষ্ক ও পানিশূন্য করে ফেলে। লিপ বাম ব্যবহার ঠোঁটকে সূর্য থেকে রক্ষা করে। সানব্লক সমৃদ্ধ লিপ বাম অথবা প্রাকৃতিক উপাদান যেমন- ‘ক্যারট সিড ওয়েল’, ‘কাঠবাদাম তেল’, ‘সিয়া বাটার অয়েল’ ও অন্যান্য উপাদানের মিশ্রণে তৈরি লিপ বাম ব্যবহার করতে পারেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×