টি-শার্টে দেশের পতাকা

  গাজী মুনছুর আজিজ ২৫ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হালের ফ্যাশন হিসেবে টি-শার্ট অনেক তরুণের পছন্দের শীর্ষে। শুধু তরুণরাই নয়, মাঝবয়সী বা একটু বয়স্করাও পরছেন হরহামেশা। অন্যদিকে দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো টি-শার্টের জমিনকে শিল্প-সংস্কৃতি বা ইতিহাস-ঐতিহ্যের ক্যানভাস হিসেবে উপস্থাপন করে আসছে বেশ কয়েক বছর ধরে। বিশেষ করে বিজয় দিবস বা স্বাধীনতা দিবসকে কেন্দ্র করে অনেক ফ্যাশন হাউসই নিয়ে আসে লাল সবুজ রঙের টি-শার্ট। আর এসব টি-শার্ট গায়ে জড়িয়ে ফ্যাশন সচেতনরা প্রকাশ করেন স্বদেশ প্রেম।

বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস বা দেশের বিভিন্ন উৎসব-পার্বণের পাশাপাশি লাল সবুজের টি-শার্টের জোয়ার দেখা যায় ক্রিকেট খেলার সময়। বিশেষ করে ক্রিকেটের বড় আসরে বাংলাদেশ দল যখন খেলেন, তখন ক্রিকেটপ্রেমী ভক্তরা মনে করেন গায়ে টি-শার্ট জড়ালে খেলোয়াড়দের উৎসাহ দেয়া হয় এবং নিজের সমর্থনটাও পাকাপোক্তভাবে বোঝানো যায়। এছাড়া দিবস বা খেলা ছাড়াও অনেক ফ্যাশন সচেতন স্বদেশী চেতনায় জাগ্রত হয়ে লাল সবুজের টি-শার্ট জড়ান বারো মাসই। আর অনেকেই আছেন দেশের বাইরে ঘুরতে বা কাজে গেলে নিজের জন্য বা উপহার দেয়ার জন্য স্মারক হিসেবে নিয়ে যান লাল সবুজের টি-শার্ট।

লাল সবুজের টি-শার্ট চর্চায় পথিকৃৎ শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটের ফ্যাশন হাউস নিত্য উপহার। তারা এ যাবতকাল লাল সবুজ রঙের অনেক ডিজাইনের টি-শার্ট এনেছেন। এছাড়া ফ্যাশন হাউস মেঘও লাল সবুজের টি-শার্ট করে থাকে সব সময়। একই মার্কেটের ফ্যাশন হাউস বার্ডস আই, যোগীসহ বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসেরও আছে লাল সবুজের টি-শার্ট। ফ্যাশন হাউস রঙ বাংলাদেশসহ বিভিন্ন ফ্যাশন ব্র্যান্ডও করে থাকে লাল সবুজের টি-শার্ট।

আজিজ সুপার মার্কেটের একটি ফ্যাশন হাউস থেকে লাল সবুজ রঙের টি-শার্ট কিনেছেন বেসরকারি একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তানজিম। তিনি বলেন, বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস ছাড়াও সব সময়ই লাল সবুজের টি-শার্ট পরি। এটা এক ধরনের ভালো লাগে। আবার ফ্যাশন হিসেবেও দারুণ।

মেঘের কর্ণধার মিল্টন বলেন, লাল সবুজের টি-শার্ট সারা বছরই করা হয় এবং সারা বছরই চলে। তবে বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস ও বাংলাদেশের খেলা থাকলে একটু বেশি চলে। বিভিন্ন ফ্যাশন হাউস ও আজিজ সুপার মার্কেটের বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসে লাল সবুজের টি-শার্ট পাওয়া যাবে ৩২০ থেকে ৩৮০ টাকায়।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×