ঈদের পরে নিজের যত্ন

  আঞ্জুমান আরা ২০ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঈদের পরে নিজের যত্ন।
ঈদের পরে নিজের যত্ন। ছবি সংগৃহীত

ঈদ শেষ হলেও ঈদের রেশ কাটেনি এখনও। বাড়িতে বাড়িতে চলছে দাওয়াত আর ভারি খাবার-দাবারের আয়োজন। তারপরও কোরবানি ঈদ মানেই নানা ধরনের মাংসের তৈরি মজাদার সব খাবার। এত সব মুখরোচক খাবারের মাঝে কি আর হিসাব করে খাওয়া যায়!

ওজনের চিন্তা ভুলে ঈদের কয়েকটি দিন তাই নিশ্চয়ই একটু একটু করে অনেক পদ-ই খেয়েছেন। একটু একটু করে খেলেও, খাওয়া কিন্তু কম হয়নি। নিজের দিকে একটু মনোযোগ দিয়ে তাকালে বুঝতে পারবেন ওজন কিছুটা বেড়ে গেছে এই ক’দিনেই। ঈদের ধকলে ত্বক আর চুলও হারিয়েছে পুরনো জৌলুস। তাই আর সময় নষ্ট না করে স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য ধরে রাখতে এখনই সচেতন হোন। কীভাবে?

জানতে চেয়েছিলাম বারডেম জেনারেল হাসপাতালের সাবেক বিভাগীয় প্রধান ও প্রধান পুষ্টি কর্মকর্তা আখতারুন নাহার আলো’র কাছে। তিনি জানান, ‘সারা বছর আমরা যতই নিয়ম মেনে খাওয়া-দাওয়া করি না কেন, ঈদ এলেই খাবারের সব বাধা নিষেধ ভুলে যাই।

একটানা কয়েকদিন ক্যালরিবহুল খাবার খেয়ে ফেলি। তারপরও ঈদের ছুটিতে শরীরচর্চা, শারীরিক পরিশ্রমও কম হয়। ফলে ঈদের পর আমাদের অনেকের ওজন বেড়ে যায়। তাই ঈদের পর একটানা কয়েকদিন রিচফুড খাওয়া উচিত নয়। কোরবানি ঈদে যেহেতু রেড মিটের প্রাধান্য থাকে বেশি, তাই ঈদের পর কিছুদিন গরুর, খাসির মাংস খাওয়া একেবারেই বাদ দিন। যদি খেতেই হয় তবে এক বেলা খান। তাও ২/১ টুকরার বেশি নয়। দু’বেলা মাছ, সবজি, সালাদ ও ডাল খান। ওজন বেড়ে গেলে ভাতের পরিমাণ কমিয়ে দিন।’

তিনি আরও বলেন, ‘ঈদের দুই-এক দিন পর থেকেই কম তেল এবং চর্বি ফেলে দিয়ে মাংস রান্না করুন। তেলচর্বিযুক্ত খাবার খাওয়ার পরপরই এক গ্লাস উষ্ণ গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে খেয়ে নিন। এতে ভারি খাবারের কারণে পেটে জমা ফ্যাট তখনই কেটে যাবে।

খাওয়ার পর বোরহানি, টকদই খেলেও উপকার পাবেন। কোরবানির ঈদের পর অনেকেই মাংস-পরোটা নাস্তা করতে পছন্দ করেন। খেতে পারেন তবে পরোটা না খেয়ে তার বদলে রুটি কিংবা তন্দুর খান। এতে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হবে।’ ঈদে যেহেতু মিষ্টি জাতীয় খাবারও বেশি খাওয়া হয়েছে এখন তাই এ ধরনের খাবার কমিয়ে দিন। খেতে চাইলে লো-ফ্যাট দুধে তৈরি ডেজার্ট অল্প পরিমাণে খেতে পারেন। বিকালের নাস্তায় ভাজাপোড়া খাবারের বদলে ফলমূল, জুস খান।

ওজন নিয়ন্ত্রণে আনতে ডায়েট

ঈদের এই ক’দিনে ওজন যদি একটু বেশিই বেড়ে যায়, তবে আপনার ওজন এবং উচ্চতা অনুযায়ী ডায়েট চার্ট ফলো করতে পারেন। এজন্য একজন পুষ্টি বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হতে চেষ্টা করুন। সেটা সম্ভব না হলে নিজেই ওজন নিয়ন্ত্রণ রাখতে খাবার-দাবারের কিছু নিয়ম মেনে চলুন। এজন্য সকালে ঘুম থেকে উঠেই কুসুম গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে খেয়ে নিন। সকালের নাস্তায় রাখতে পারেন সামান্য চিড়া, ১ কাপ টকদই, ১টা কলা, ১টা ডিম সিদ্ধ। নাস্তার ২ ঘণ্টা পর চিনি ছাড়া বিস্কুট ও চা খান।

সকাল এবং দুপুরের মাঝামাঝি সময়ে যে কোনো একটি ফল খেতে পারেন। দুপুরের খাদ্য তালিকায় রাখুন এক কাপ ভাতের সঙ্গে এক পিস মাছ কিংবা এক পিস মুরগির মাংস, দেড় কাপ সবজি, এক কাপ পাতলা ডাল এবং এক কাপ সালাদ।

বিকালে ভাজাপোড়া খাবারের বদলে ফল খান। সন্ধ্যা

৭-৮টার মধ্যেই রাতের খাবার শেষ করুন। রাতে খেতে পারেন আধা কাপ ভাত, এক পিস মাছ, এক কাপ সবজি, ডাল এক কাপ, সালাদ এবং ফল। রাতে ঘুমানোর এক ঘণ্টা আগে এক গ্লাস দুধ খেয়ে নিন।

করতে হবে শরীরচর্চাও

ঈদের পর নিয়মিত শরীরচর্চা এবং শারীরিক পরিশ্রম করুন। এতে শরীরে জমা বাড়তি ক্যালরি বার্ন হবে। প্রতিদিন নিয়ম করে ৪৫ মিনিট হাঁটুন এবং ২০ মিনিট ফ্রি-হ্যান্ড ব্যায়াম করুন। চাইলে ইয়োগা, অ্যারোবিকস, সাঁতার, সাইক্লিংও করতে পারেন। ঘরের টুকটাক কাজ করলেও শরীর নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

ত্বক ও চুলের যত্ন নিন

শুধুই কি স্বাস্থ্য! ঈদের পর ত্বকও নিশ্চয়ই পুরনো সৌন্দর্য হারিয়েছে! এর কারণ ঈদে যেমন দাওয়াত আর ঘোরাঘুরির কারণে সাজগোজ বেশি করা হয়, তেমনই ত্বকের যত্ন নেয়ার সময়-সুযোগও কম হয়। ফলে ত্বকে র‌্যাশ ওঠা, উজ্জ্বলতা নষ্ট হওয়া, চুল রুক্ষ হওয়াসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। এজন্য ঈদের পর খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া কয়েকদিন মেকআপ এড়িয়ে চলুন। ত্বক উজ্জ্বল, কোমল ও ব্রণমুক্ত রাখতে নিয়মিত অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করুন। সপ্তাহে চারদিন বাড়িতে হট অয়েল ম্যাসাজ করুন। চুল প্রাণবন্ত হবে। সপ্তাহে একদিন টকদইয়ের সঙ্গে একটি ডিম পেস্ট করে চুলে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু করে ফেলুন। প্যাকটি ড্যামেজ চুলকে সুরক্ষা দেবে।

পার্লার সেবা

ঈদের পর ত্বক ও চুলের হারানো জৌলুস ফিরিয়ে আনতে এখন ভালো কোনো পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল ও হেয়ার ট্রিটমেন্ট করিয়ে নিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে ত্বকের ট্যান রিমুভ করে এমন ধরনের ফেসিয়াল কিংবা অ্যারোমা থেরাপি করুন। চুলের জন্য বেছে নিন হেয়ার স্মুদিং কিংবা প্রোটিন ট্রিটমেন্ট। হাত ও পায়ের যত্নে করাতে পারেন পেডিকিউর ও মেনিকিউর।

মেনে চলুন

ঈদের পর কাজের ব্যস্ততা কম থাকে বলে অনেকেই দেরি করে ঘুম থেকে ওঠেন। চেষ্টা করুন সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠতে।

রাতে খাওয়ার পর কিছুক্ষণ হাঁটাচলা করুন।

ত্বক সুস্থ ও সুন্দর রাখতে প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে চেষ্টা করুন এবং প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×