গ্রীষ্মের প্রস্তুতি

  একে রাসেল ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গ্রীষ্মের প্রস্তুতি
গ্রীষ্মের প্রস্তুতি

শীত পেরিয়ে চলে এসেছে গরম। ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে তরুণ-তরুণীদের অন্য সব অভ্যাসের পাশাপাশি পোশাক-আশাকেও আসে নানা পরিবর্তন। কেননা পোশাক মানুষের যেমন ব্যক্তিত্ব প্রকাশের একটি মাধ্যম, তেমনি এটি আপনাকে পুরোদিন ভালো রাখারও একটি উপায়।

পোশাকের মাধ্যমে যেমন আপনি কতটা স্মার্ট তা প্রকাশ পায়, তেমনি আপনি কতটা স্বস্তিতে আছেন তা-ও বোঝা যায়। তাই গরমে স্বস্তি দিতে পারে এমন পোশাকই পরা উচিত। গরমের কথা মাথায় রেখে সবাই চান আরামদায়ক ও ফ্যাশনেবল পোশাক পরতে।

আরামদায়ক পোশাকের জন্য কেউ কেউ ঢুঁ মারছেন ফ্যাশন হাউসগুলোতে, কেউ আবার টেইলার্সের দোকান থেকে তৈরি করে নিচ্ছেন সুতি কাপড়ের পোশাক। কিন্তু প্রকৃত অর্থে কেমন হওয়া উচিত গরমের পোশাক? এ নিয়ে প্রায়ই দ্বিধা-দ্বন্দ্বে থাকেন অনেকে। তাই এবারের আয়োজনে থাকছে গরমে পোশাকের প্রস্তুতি কেমন হওয়া চাই। ইজি ফ্যাশন হাউসের কর্ণধর ডিজাইনার ও তৌহিদ চৌধুরী বলেন, গরমে পাতলা সুতি কাপড়ের পোশাক পরলে একদিক থেকে যেমন গরম কম লাগবে, অন্যদিকে আরামও লাগবে। ফলে স্বাচ্ছন্দ্যে কাজ করা যাবে। পাতলা তাঁত ও খাদি কাপড়ের পোশাক এসময় পরা যায়। গরম এলেই সুতি কাপড়ের প্রসঙ্গ চলে আসে।

এবার আসা যাক মেয়েদের প্রসঙ্গে, মেয়েদের উচিত পোশাক নির্বাচনের ক্ষেত্রে সুতি কাপড়কেই বেশি প্রাধান্য দেয়া। আর রং নির্বাচনেও সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। এ গরমের পোশাকের ক্ষেত্রে সাদা, হালকা গোলাপি, হালকা বেগুনি, হালকা নীল, বাদামি, আকাশি, হালকা হলুদ, ধূসরসহ হালকা রঙের পোশাকগুলো প্রাধান্য পাবে। গরমে সাদা ও অন্যান্য হালকা রঙের পোশাক শুধু তাপ শোষণই করে না, সেই সঙ্গে চোখকে দেয় প্রশান্তি। তবে গরমকালে সাদা রঙের পোশাকের জয়জয়কার সবসময়ই। আবার পোশাকে খুব বেশি টাইট ফিটিংস হলেও সেটা কিন্তু খুব একটা স্বস্তিদায়ক হবে না। একটু ঢিলেঢালা হলেই বরং ভালো হয়। যারা হাইনেক পরেন তারা এ গরমে একটু কলার ছাড়া বড় গলা পরে দেখতে পারেন। আরাম পাবেন। আর হাতাও অবশ্যই ছোট দিতে হবে। গরমে ফুল স্লিভ কিংবা থ্রি কোয়ার্টার আরামদায়ক নয়। গরমে খুব উজ্জ্বল আর গাঢ় রং মোটেও শোভন নয়। হালকা রঙের পোশাক পরলে আপনাকে যেমন দেখতে ভালো লাগবে তেমনি আপনি স্বস্তিতে চলাফেরা ও প্রয়োজনীয় কাজটাও করতে পারবেন। সুতি কাপড়ের সঙ্গে লিনেন, দুপিয়ান, ভয়েল, মসলিন, চিকেন ও তাতের কাপড় গরমের জন্য বেশ উপযোগী। উৎসবে পরতে পারেন কৃত্রিম মসলিন বা পাতলা চোষা কাতান। আমাদের দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো বেশিরভাগই সুতি কাপড় দিয়ে তাদের পোশাক তৈরি করে থাকে।

ফ্যাশনের সঙ্গে আবহাওয়ার সম্পর্ক ওতপ্রোতভাবে জড়িত। বিশেষ করে আমাদের মতো গ্রীষ্মপ্রধান দেশে পোশাক বাছাই করার আগে অবশ্যই সেটি আবহাওয়া উপযোগী কিনা-এ বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। গরমের দিনে পোশাক অবশ্যই হতে হবে আরামদায়ক। এ গ্রীষ্মে ছেলেদের পোশাক কেমন হবে সেইসঙ্গে বাজারে কেমন কালেকশন রয়েছে সেসব বিষয় একটু জেনে নিন।

গরমের উপযোগী পোশাক বলতে প্রথমেই আসে কটন বা সুতি কাপড়ের কথা। আজকাল ফ্যাশন হাউসগুলোতে ছেলেদের জন্য সুতি কাপড়ের বিভিন্ন ধরনের শার্ট পাওয়া যায়। এসময়ের ফ্যাশনে বাটিক, ভেজিটেবল ডাই, টাইডাই, সুবোরি, স্ক্রিনপ্রিন্ট, ব্লক ইত্যাদির মাধ্যমে ডিজাইন করা প্রচুর শার্ট পাওয়া যাচ্ছে। এসব শার্ট ক্যাজুয়াল হিসেবেও যেমন ব্যবহার করা যাবে, তেমনি ফর্মাল হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এ শার্টগুলো গরমে আরামের পাশাপাশি ফ্যাশন হিসেবেও চমৎকার। জিওম্যাট্রিক, ফ্লোরাল, লাইন, বিভিন্ন ফর্ম ব্যবহার করে এসব শার্টে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে নানা ডিজাইন। সুতি ভয়েল কাপড়ের শার্ট এ মৌসুমে খুবই আরামদায়ক। আরেকটু আরামদায়ক হতে পারে হাফ হাতা শার্ট। রঙ হিসেবে গরমে বেছে নিতে পারেন নীল, ধূসর, সাদা, অফহোয়াইট, মেরুন ইত্যাদি। তবে হালকা রঙই গরমে বেশি মানানসই। যে কোনো পার্টিতে বেছে নিতে পারেন সুতি পাঞ্জাবি।

এছাড়া গরমের আরও একটি পোশাক টি-শার্ট। মূলত সুতি কাপড়ে তৈরি টি-শার্টের প্যাটার্ন, ডিজাইন রঙে যে কত ধরনের বৈচিত্র্য রয়েছে সে কথা বলে শেষ করা যাবে না। ক্যাজুয়াল পোশাক হিসেবে টি-শার্টও বেছে নিতে পারেন অনায়াসে।

কোথায় পাবেন

ইজি, অঞ্জন্স, ক্যাটসআই, প্লাস পয়েন্ট, ইয়েলো, মেনজ ক্লাব, রঙ বাংলাদেশ, গ্রামীণ মেলাসহ যে কোনো শো রুম থেকে আপনি সংগ্রহ করতে পারবেন আপনার ফ্যাশনেবল গরমের পোশাক। এছাড়াও বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্ক, নিউমার্কেট, মৌচাক, রাজউক কমপ্লেক্স, বঙ্গবাজার থেকেও গরমের পোশাক সংগ্রহ করতে পারবেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter