প্রোটিন হেয়ার ট্রিটমেন্ট

একমাত্র চুলের সঠিক পরিচর্যাই পারে নেতিয়ে পড়া বিবর্ণ চুলকে ঝলমলে করতে। এর জন্য দরকার সাংসারিক জীবনের ফাঁকে ফাঁকে একটু সময় করে চুলের যতœ করা। দুর্বল ও ভঙ্গুর চুলের অবস্থার পরিবর্তন করতে নিয়মিত প্রোটিন হেয়ার ট্রিটমেন্ট করা দরকার। নিয়ম মেনে করলে চুল আগের তুলনায় আরও বেশি ঘন ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হবে। কোনো কারণে চুল ক্ষতিগ্রস্ত হলে বা দৈনন্দিন যত্নের অংশ হিসেবে এ ট্রিটমেন্ট অনন্য। পরামর্শ দিয়েছেন বেয়ার বিজ বডি ওয়াক্স অ্যান্ড বিউটি স্যালনের স্বত্বাধিকারী সারমিন সেলিম তুলি

  যুগান্তর ডেস্ক    ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অনেক সময় চুলে নিয়মিত শ্যাম্পু করা, তেল দেয়ার পরও চুল মনের মতো উজ্জ্বল ও মসৃণ হয় না। তখন বুঝতে হবে আপনার চুলের জন্য দরকার আরও বেশি পরিমাণে পুষ্টি। আমাদের চুল গঠিত হয়েছে কেরোটিন নামক এক ধরনের প্রোটিন দিয়ে। এ কেরোটিনের উপস্থিতির কারণেই আমাদের চুল সুস্থ-সবল থাকে এবং চুলের ইলাস্টিসিটি ধরে রাখে। এ প্যাক তৈরি হয় হারবাল উপাদান দিয়ে। যা চুলের গভীরে পৌঁছে চুলে শক্তি জোগায় এবং প্রোটিনকে সংরক্ষণ করে। নিয়মিত ও যথাযথ ব্যবহারে চুলের ভেঙে পড়া রোধ হয়, চুলের গঠনকে পুনর্বিন্যাস করে, চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ে এবং নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। কোনো ধরনের কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট অর্থাৎ কালারিং, রিবন্ডিং, স্ট্রেইটনিং, পার্মিং, অতিরিক্ত আয়রমিং, কালিংও বোড্রায়িং ইত্যাদির কারণে চুল ক্ষতিগ্রস্ত হলে মাসে দু-তিনবার বা প্রতি সপ্তাহে একবার প্রোটিন হেয়ার ট্রিটমেন্ট করা যেতে পারে। আর সুস্থ স্বাভাবিক চুলেক যত্ন নিয়মিত পরিচর্যার অংশ হিসেবে মাসে একবারই যথেষ্ট। প্রোটিন ট্রিটমেন্টে চুল নরম হয়। চুল পড়া কমে ও চুল স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হয়।

হেয়ার প্যাক

কিছু ঘরোয়া প্রোটিন প্যাক যা চুলের পুষ্টি জোগাবে, প্রাকৃতিক উপাদানের সংমিশ্রণে নিজেই ঘরে তৈরি করে নিতে পারেন।

একটি ডিম, দুই টেবিল চামচ টকদই, এক চামচ মধু একসঙ্গে মিশিয়ে চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত পুরো চুলে লাগিয়ে রাখুন। আধা ঘণ্টা রেখে আপনার চুলের উপযোগী শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আমলকী গুঁড়া দুই চা চামচ+মেথি গুঁড়া এক চা চামচ+বহেরা গুঁড়া এক চা চামচ+হেনাপাউডার এক চা চামচ, ডিম একটি+ মধু এক চা চামচ + চায়ের লিকার আধা কাপ সব একসঙ্গে মিশিয়ে চুলে লাগিয়ে এক ঘণ্টা রেখে দিন। এক ঘণ্টা পর পানি দিয়ে ধুয়ে চুলে শ্যাম্পু করুন।

* একটি পাকা সাগর কলা+একটি ডিম অথবা টকদই ভালোভাবে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত পুরো চুলে লাগিয়ে এক ঘণ্টা রাখুন। তার পর পানি দিয়ে ধুয়ে শ্যাম্পু করুন।

* পাকা সাগরকলা একটি+আমন্ড অয়েল মিশিয়ে নিন ভালো করে। এ মিশ্রণটি চুলে লাগিয়ে, এক ঘণ্টা পর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

* একটি ডিম ভালো করে ফেটিয়ে+তিন চামচ নারিকেল তেল বা অলিভ অয়েল মিশিয়ে+এক চা চামচ লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় ঘষে ঘষে লাগিয়ে মাথা ম্যাসাজ করুন। সব শেষে চুলের গোড়া থেকে ডগা পর্যন্ত ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট পর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

প্রয়োজনীয় সতর্কতা

* সুন্দর স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পেতে প্রোটিন হেয়ার ট্রিটমেন্টই যথেষ্ট নয়, তার সঙ্গে স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস রপ্ত করুন।

* যথেষ্ট পরিমাণে পানি পান করুন।

* চিরুনি, চুলের ব্রাশ, বালিশের কভার, তোয়ালে নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখুন।

* ভালো মান সম্পন্ন এবং ময়েশ্চারাইজার সমৃদ্ধ শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।

* মাথার ত্বকের ম্যাসাজ করুন, হেয়ার ট্রিটিমেন্টগুলো করুন এবং বিউটি স্যালুনে অভিজ্ঞদের হাতে করুন।

* নিয়মিত চুল পরিষ্কার করুন। ভেজা চুল ক্লিপ দিয়ে আটকে রাখবেন না, পানিটেল বা বেণী করবেন না। খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া হেয়ার ড্রাই দিয়ে চুল না শুকিয়ে স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায়ে চুল শুকাবেন, এতে চুলের ক্ষতি হবে না। নিয়মিত চুলের আগা ট্রিম করবেন। ঘুমানোর সময় পানিটেল বা বেণী করে রাখতে পারেন।

* অতিরিক্ত চুল ঝরে পড়লে বা মাথার ত্বকে অ্যালর্জি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

 

 

আরও পড়ুন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.