বয়ঃসন্ধিকালে মেয়েদের সমস্যা ও সমাধান

  ফারিন সুমাইয়া ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বয়ঃসন্ধিকালে মেয়েদের সমস্যা।
বয়ঃসন্ধিকালে মেয়েদের সমস্যা। ছবি সংগৃহীত

শৈশব মানেই রঙিন কিছু স্মৃতি। আবছা এ স্মৃতিগুলোই সারা জীবন মনের পাতায় পাতায় আঁচড় কাটে। এ সময়ে কিশোরীদের পাড়ি দিতে হয় নতুন একটি জগৎ। তাই কিশোরীদের এ সময়ে চাই বাড়তি দেখাশোনা আর যত্নআত্তি।

কৈশোরের এ সময়ে মেয়েদের যেমন মানসিক পরিবর্তন আসে তেমনি আসে শারীরিক পরিবর্তন। নিজের কথা কারও সঙ্গে ভাগাভাগি করে নেয়া সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। মনের কথাগুলো ভাগাভাগি করে নিতে পরিবারকে এ সময়ে বন্ধুরূপে পাওয়া জরুরি। এতে করে জেনে নিতে পারবে তার না জানা অনেক প্রশ্নের উত্তর।

অন্যদিকে পোশাক নির্বাচনের ক্ষেত্রেও চাই বাড়তি নজরদারি। খুব বেশি আঁটসাঁট পোশাক নির্বাচন না করে এ সময়ে ঢিলেঢালা পোশাক কিশোরীদের জন্য উপযোগী। মেকআপের ক্ষেত্রে খুব বেশি ভারী মেকআপ এ সময়ে ত্বকে নানা সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। তাই হালকা মেকআপ যেমন- চোখে কাজল, হালকা রঙের লিপস্টিক কিশোরীদের সাজের ডালায় অনায়াসে জায়গা করে নিতে পারে।

সাজপোশাকের পাশাপাশি যতটা সম্ভব পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার চেষ্টা করা। গোসলের সময় চুলে শ্যাম্পু করা, নিয়মিত নখ কাটা, ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা ইত্যাদির মাধ্যমে নিজের যত্ন নেয়ার বিষয়ে মনোযোগী হওয়া। এছাড়াও খাবারের তালিকায় পরিবর্তন আনা প্রয়োজন। খাবারের তালিকায় ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, শর্করা, আমিষ, প্রোটিনযুক্ত খাবারের পরিমাণ বেশি রাখা আবশ্যক।

এতে করে সঠিকভাবে পুষ্টি পাওয়া সম্ভব। অন্যদিকে দিনে অন্তত আট গ্লাস পানি পান করা থেকে শুরু করে ফলমূল আর মৌসুমি শাকসবজি খেতে হবে। তাতে যেমন সুস্থ থাকা সম্ভব তেমনই মানসিকভাবেও প্রাণবন্ত থাকা সম্ভব।

মেয়েদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে বয়ঃসন্ধিকালীন পরিবর্তন। এ সময়ে মেয়েদের মূলত মাসিকচক্র শুরু হয়। তাই নিজেদের শারীরিক নানা পরিবর্তন নিয়ে নিজেকে গুটিয়ে রাখে অনেকেই। নতুন এ অভিজ্ঞতায় অনেকেই দিশেহারা হন। লজ্জায় অভিভাবকদের কিছু বলতে লজ্জা বোধ করেন। যার ফলে নানা সমস্যার সৃষ্টি হয়। ঘরে স্যানিটারি ন্যাপকিন অথবা প্যাড সময়ের আগে কিংবা হাতের নাগালে প্রস্তুত রাখা উচিত।

স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার সম্পর্কে বড়দের, বিশেষ করে মায়েদের উচিত মেয়েদের সঠিক তথ্য দেয়া। এছাড়া এ সময় অনেকের পেটে ব্যথা অনুভব হয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ না নিয়ে ওষুধ সেবন না করা ভালো।

তাই এ সময় মেয়েদের প্রতি পরিবারের বাড়তি যত্ন যেমন প্রয়োজন তেমনই তার সঙ্গে সময় কাটানো এবং বয়ঃসন্ধিকাল সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান দেয়া খুবই দরকার।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×