শিশুর যত্ন
jugantor
শিশুর যত্ন

   

১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছোট্ট সোনামণি, আপনার শিশুদের নিয়ে ভাবনার অন্ত নেই । তার যত্নের নিশ্চয়ই কোনো কমতি আপনি রাখছেন না। শিশুর ত্বক অন্য সবার থেকে অনেক সেনসিটিভ। তার ওপর আমাদের দেশের আবহাওয়া খুব ঘন ঘন পাল্টায়। যা শিশুদের মানিয়ে নিতে অনেক কষ্ট হয়। শিশুর মাথার চুল থেকে পায়ের নখ পর্যন্ত সব কিছুরই প্রতি আলাদা যত্ন নিতে হয়। শিশুর স্কিনে অয়েল, ময়েশ্চারাইজ, মিনারেলসহ বেশকিছু উপাদান যেন ঠিক থাকে তার জন্য স্কিন কেয়ার প্রডাক্ট ব্যবহার করতে হয়।

শিশুর ত্বকের জন্য এখন দেশি-বিদেশি নানা ব্যান্ডের প্রডাক্ট বাজারে পাওয়া যায়। কিন্তু কোন উপকরণ শিশুদের প্রডাক্ট এ থাকা উচিত তা বুঝে কিনছি কিনা এটা জানা দরকার। শিশুদের প্রডাক্টগুলো আসলে কেমন হলে তা আপনার শিশুর যত্নে উপকারী ও উপযোগী হবে সেটা জানা জরুরি।

শিশুর কোমল ত্বকের সুরক্ষার জন্য শিশুর অয়েল এর ম্যাসাজ খুবই জরুরি একটি বিষয়। শিশুর হাড় মজবুত ও শক্তিশালী করে এ অয়েল ম্যাসাজ। ভিটামিন-ই সমৃদ্ধ অয়েল শিশুর স্কিনের আর্দ্রতা ধরে রেখে স্কিনকে নরম ও কোমল করে তোলে।

শরীর ও চুল পরিষ্কার : শিশুদের রুটিনে নিয়মিত গোসল অবশ্যই যোগ করতে হবে। গোসলের সময় নো টিয়ারস ফর্মুলাযুক্ত প্রডাক্ট ব্যবহার করবেন। শিশুদের ত্বকে যে বডিওয়াশ বা সাবানই ব্যবহার করেন না কেন খেয়াল রাখবেন তা যেন পিএইচ ব্যালান্সড এবং ক্ষতিকর কেমিক্যাল মুক্ত হয়। এতে আপনার শিশুর স্কিন এবং হেয়ারের স্বাভাবিক কোমলতা বজায় থাকে।

বেবি লোশন : শিশুদের স্কিন যেহেতু অনেক বেশি সেনসিটিভ, সহজেই কঠিন ও আর্দ্র হয়ে যায়। এ কারণে বছরজুড়ে শিশুর শরীরে লোশন ব্যবহার করা উচিত। ভিটামিন-ই যুক্ত লোশন ব্যবহার করবেন কারণ এটি আপনার শিশুর ত্বককে স্বাস্থ্যকর ও মসৃণ রাখবে। আমাদের সোনামণির যত্নে যেন কোনোরকম হেলাফেলা না হয় তা নিশ্চিত করা আমাদের সবারই দায়িত্ব। সুস্থ ও যত্নে থাকুক আমাদের আদরের ছোট্ট শিশু।

শিশুর যত্ন

  
১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছোট্ট সোনামণি, আপনার শিশুদের নিয়ে ভাবনার অন্ত নেই । তার যত্নের নিশ্চয়ই কোনো কমতি আপনি রাখছেন না। শিশুর ত্বক অন্য সবার থেকে অনেক সেনসিটিভ। তার ওপর আমাদের দেশের আবহাওয়া খুব ঘন ঘন পাল্টায়। যা শিশুদের মানিয়ে নিতে অনেক কষ্ট হয়। শিশুর মাথার চুল থেকে পায়ের নখ পর্যন্ত সব কিছুরই প্রতি আলাদা যত্ন নিতে হয়। শিশুর স্কিনে অয়েল, ময়েশ্চারাইজ, মিনারেলসহ বেশকিছু উপাদান যেন ঠিক থাকে তার জন্য স্কিন কেয়ার প্রডাক্ট ব্যবহার করতে হয়।

শিশুর ত্বকের জন্য এখন দেশি-বিদেশি নানা ব্যান্ডের প্রডাক্ট বাজারে পাওয়া যায়। কিন্তু কোন উপকরণ শিশুদের প্রডাক্ট এ থাকা উচিত তা বুঝে কিনছি কিনা এটা জানা দরকার। শিশুদের প্রডাক্টগুলো আসলে কেমন হলে তা আপনার শিশুর যত্নে উপকারী ও উপযোগী হবে সেটা জানা জরুরি।

শিশুর কোমল ত্বকের সুরক্ষার জন্য শিশুর অয়েল এর ম্যাসাজ খুবই জরুরি একটি বিষয়। শিশুর হাড় মজবুত ও শক্তিশালী করে এ অয়েল ম্যাসাজ। ভিটামিন-ই সমৃদ্ধ অয়েল শিশুর স্কিনের আর্দ্রতা ধরে রেখে স্কিনকে নরম ও কোমল করে তোলে।

শরীর ও চুল পরিষ্কার : শিশুদের রুটিনে নিয়মিত গোসল অবশ্যই যোগ করতে হবে। গোসলের সময় নো টিয়ারস ফর্মুলাযুক্ত প্রডাক্ট ব্যবহার করবেন। শিশুদের ত্বকে যে বডিওয়াশ বা সাবানই ব্যবহার করেন না কেন খেয়াল রাখবেন তা যেন পিএইচ ব্যালান্সড এবং ক্ষতিকর কেমিক্যাল মুক্ত হয়। এতে আপনার শিশুর স্কিন এবং হেয়ারের স্বাভাবিক কোমলতা বজায় থাকে।

বেবি লোশন : শিশুদের স্কিন যেহেতু অনেক বেশি সেনসিটিভ, সহজেই কঠিন ও আর্দ্র হয়ে যায়। এ কারণে বছরজুড়ে শিশুর শরীরে লোশন ব্যবহার করা উচিত। ভিটামিন-ই যুক্ত লোশন ব্যবহার করবেন কারণ এটি আপনার শিশুর ত্বককে স্বাস্থ্যকর ও মসৃণ রাখবে। আমাদের সোনামণির যত্নে যেন কোনোরকম হেলাফেলা না হয় তা নিশ্চিত করা আমাদের সবারই দায়িত্ব। সুস্থ ও যত্নে থাকুক আমাদের আদরের ছোট্ট শিশু।