কটির রকমফের

  ঘরেবাইরে ডেস্ক ১৪ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কটির রকমফের। ছবি সংগৃহীত

শীতের আনাগোনা মানেই ফ্যাশনের নতুন মাত্রা। পোশাকের ভিন্নতা আর মনের মতো নানা ডিজাইনের পোশাকের সমারহ কেবল এই শীতের সময়েই চোখে পড়ে। তাই শীতের এ সময়ে নানা রঙের ব্যবহার যেমন দেখা যায় তেমনি নানা ধরনের ফ্যাশনের দেখা মেলে পোশাকের মাঝে। তাই শীতের আমেজ কম কিংবা বেশি, শীত ঋতু মানেই পোশাকে নতুনের একটি ধাপ।

তাই ফ্যাশনপ্রেমী ছেলেদের পোশাকের মাঝেও আসে বৈচিত্র্যের ছাপ। একটা সময় পর্যন্ত শীতের পোশাক বলতেই কেবল সোয়েটার, জ্যাকেট, চাদর কিংবা মাফলার এসব পোশাকেই বন্দি ছিল। বর্তমানে শীতের হিম বাতাস থেকে বাঁচতে সঙ্গে ফ্যাশনের দিক মাথায় রেখে শীতের পোশাকের আগমন ঘটে। আর

তাই নানা ধরনের শীতের পোশাকের ভিড়ে ফ্যাশনপ্রিয় তরুণদের কাছে শীতের এ সময়ের পছন্দের একটি পোশাক হচ্ছে কোটি কিংবা ওয়েস্টকোট। পশ্চিমা এই পোশাকটির ব্যবহার কিছুদিন আগেও এতটা জনপ্রিয় না থাকলেও বর্তমানে এর চাহিদা বেশ। অন্যদিকে কটি বলতেই অনেকে ব্লেজার, স্যুট, ওভারকোটের সঙ্গে মিলিয়ে পরার কথা ভেবে থাকেন।

ফ্যাশনের এই দিক থেকে তাই কটি পোশাকের গণ্ডি পেরিয়ে যুক্ত হয়ে গিয়েছে পাঞ্জাবি কিংবা ফরমাল পোশাকের সঙ্গেও। অল্প শীতে বিয়ে কিংবা ঘরোয়া আয়োজনে পাঞ্জাবির সঙ্গে দেখা মিলের কটির। এসব কটি যেমন এক রঙের হয়ে থাকে তেমন নানা ধরনের রঙের অথবা দুটি রঙের মিশ্রণেও হয়ে থাকে। কাপড়ের দিক থেকে কটি তৈরিতে ব্যবহার করা হয় মোটা কাপড়। এ ছাড়া কটি যাতে যে কোনো পোশাকের সঙ্গে মানিয়ে যায় সেই কথা মাথায় রেখে কটির ক্ষেত্রে গোল গলা কিংবা ভি গলার ব্যবহার করা হয়েছে।

যার কারণে যে কোনো পোশাকের সঙ্গেই কটি মানিয়ে যায় খুব সহজে। অন্যদিকে কটির সঙ্গে আপনি চাইলে শীতের এ সময় নকশা করা কিংবা একরঙ্গা মাফলার ব্যবহার করতে পারেন। এ ছাড়া ফ্যাশনে ভিন্নতা আনতে কটির পকেটে রাখতে পারেন একরঙা রুমাল। অন্যদিকে কটির সঙ্গে মিলিয়ে ফরমালের ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন ক্যাপ কিংবা সিল্কের মাফলার।

এতে করে আপনি শীতের হাত থেকে যেমন রেহাই পাবেন তেমনি শীতের এ সময়ে পাবেন ভিন্নতার ছোঁয়া। অন্যদিকে কটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে আপনি যেমন বানিয়ে পরতে পারবেন তেমনি হাতের নাগালে পেয়েও যাবেন খুব সহজে। আর এভাবেই শীতের এ সময়ে ফ্যাশনের নানা ভিড়ে নিজেকে রাখতে পারবেন ভিন্ন একটি আমেজে আর সবার থেকে ভিন্ন একটি ফ্যাশনে।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত