রেসিপি

ঘরোয়া রান্নায় ঈদ আয়োজন

আর ক’দিন পরেই ঈদুল ফিতর। তবে প্রতিবছরের মতো এবার ঈদ নিয়ে নেই চিরচেনা আনন্দ কিংবা ঈদ আয়োজন। চারদিকে করোনা আতঙ্ক। যা ফিকে করে দিয়েছে ঈদের আনন্দকে। এবার ঘরেই করতে হবে ঈদ উদযাপন। ঈদের রান্নার কয়েকটি সহজ রেসিপি দিয়েছেন রন্ধনশিল্পী-

  দিল আফরোজ সাইদা ও কানিজ ফাতেমা রিপা আলোকচিত্রী মনির আহমেদ ও শরীফ মাহমুদ ২১ মে ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মোরগের রোস্ট

যা লাগবে : মোরগ ২টা, সয়াবিন তেল ভাজার জন্য পরিমাণমতো, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, ঘি আধা কাপ, টক দই ১ কাপ, পেঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ২ চা চামচ, পোস্ত দানা বাটা ২ টেবিল চামচ, জাফরান আধা চা চামচ, কেওড়া ২ টেবিল চামচ, চিনি ২ চা চামচ, জয়ত্রী গুঁড়া ১/৪ চা চামচ, এলাচি বাটা ৮টা, দারুচিনি বাটা আধা চা চামচ, কিশমিশ ২ টেবিল চামচ, পেস্তা বাদাম কুচি ১ টেবিল চামচ, কালার অল্প (না দিলেও হবে), লবণ পরিমাণমতো।

যেভাবে করবেন : মোরগের চামড়া ছাড়িয়ে চার টুকরা করে মোট আট টুকরা করতে হবে। হালকা রং মাখিয়ে তেলে ভেজে রাখতে হবে। পেঁয়াজ ভেঁজে রাখতে হবে। কেওড়াতে জাফরান ভিজিয়ে রাখুন। হাঁড়িতে ঘি, টক দই, পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা, রসুন বাটা, পোস্ত দানা বাটা, লবণ দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে তাতে মোরগ দিয়ে দিন। মাংস সিদ্ধ হলে, পানি কমে এলে, গরম মসলা, কেওড়া, চিনি, লেবুর রস দিয়ে কষাতে হবে। পেঁয়াজ ভাজা দিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

ফ্রুটস জেলি পুডিং

যা লাগবে : দুধ ১ লিটার, কনডেন্স মিল্ক ১ টিন, গুঁড়া দুধ ৪ টেবিল চামচ, চায়না গ্রাস ১৫ গ্রাম, লেমন ফ্লেভার ১ চা চামচ, জেলি ২/৩টা কালার প্যাকেট, মিক্সড ফ্রুট ১ ক্যান।

যেভাবে করবেন : প্যাকেটের জেলি ২ কাপ পানি দিয়ে জ্বাল দিন। এইভাবে ২/৩টা কালার করতে পারেন। সব করা শেষ হলে বাটিতে ঢেলে ঠাণ্ডা করুন। তারপর ডিজাইন করা কেকের পাত্রে সামান্য বাটার লাগিয়ে এ জমানো জেলিগুলো ঢেলে দিন। এরপর ঠাণ্ডা করুন। একটা ডেকচিতে দুধের সঙ্গে কনডেন্স মিল্ক ও গুঁড়া দুধ মিশিয়ে জ্বাল দিন। গরম পানিতে চায়না গ্রাস দিয়ে জ্বাল দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে এই দুধের মধ্যে ঢেলে দিন। ঘন হলে নামিয়ে নেড়ে কিছুটা ঠাণ্ডা করুন। কিছু ফ্রুটস মিশিয়ে দিন। কিছুটা ঠাণ্ডা হয়ে এলে মোল্ডে জমানো জেলির ওপরে ঢেলে দিন। তারপর ফ্রিজে রেখে দিন। আধা ঘণ্টা বা পুডিং জমতে যতক্ষণ লাগে ততক্ষণ রাখুন। পুডিং জমে গেলে সাভিং ডিশে উল্টিয়ে ফ্রুটস দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

কিমা পোলাও

যা লাগবে : পোলাওয়ের চাল ১ কেজি, কিমা ১ কেজি, সরিষার তেল ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, গুঁড়া দুধ আধা কাপ, পানি পরিমাণমতো, লবণ স্বাদমতো, এলাচ ও দারুচিনি ৫-৬টি করে, কাঁচামরিচ ও পুদিনাপাতা প্রয়োজনমতো।

যেভাবে করবেন : হাঁড়িতে তেল দিয়ে তাতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে দিন। তারপর একে একে অর্ধেক আদা, রসুন ও লবণ দিয়ে কিমা দিয়ে দিন। এখন নেড়ে পানি দিয়ে দিন। তারপর অর্ধেক গুঁড়া দুধ দিয়ে দিন। ভালো করে নেড়ে ঢেকে দিন। সিদ্ধ হলে নামিয়ে ফেলুন।

হাঁড়িতে চালের ডবল পানি দিয়ে তাতে বাকি গুঁড়া দুধ দিয়ে দিন। তারপর বাকি আদা ও পেঁয়াজ বাটা, দারুচিনি, এলাচি ও লবণ দিয়ে দিন। ভালো করে নেড়ে দিন। জ্বাল উঠলে পানিতে চাল দিয়ে দিন। ভালো করে জ্বাল উঠলে পানি কিছুটা কমে এলে চুলা কমিয়ে দমে রাখতে হবে আধা ঘণ্টা বা চাল ফুঠে উঠতে যতক্ষণ লাগে। চাল সিদ্ধ হলে এবার তাতে রান্না করা কিমা মিশিয়ে দিন। তারপর তাতে কাঁচামরিচ, পুদিনা পাতা ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

সবজি মালাইকারি

যা লাগবে : সবজি (গাজর, মটরশুঁটি, আলু, ক্যাপসিকাম পেঁয়াজ পাতা) ২ কাপ, টমেটো পেস্ট আধা কাপ, ফ্রেশ ক্রিম ৪ টেবিল চামচ, তেল ৩ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ৩ টেবিল চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, লাল মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনিয়ার গুঁড়া আধা চা চামচ, জিরা গুঁড়া আধা চামচ, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন : সব সবজি ভালো করে ধুয়ে কেটে নিতে হবে। একটি ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে, ক্রিম ছাড়া এতে একে একে সব মসলা দিন। কিছুটা ভুনা হয়ে এলে সব সবজি দিয়ে দিন। সবজি কিছুক্ষণ নেড়ে পানি দিন। সবজি সিদ্ধ হয়ে পানি শুকিয়ে এলে, ক্রিম দিয়ে নেড়েচেড়ে মৃদু আঁচে ঢেকে রাখুন। তেল ওপরে উঠে এলেই নামিয়ে পরিবেশন করুন।

ডিম আলুর চপ

যা লাগবে : আলু আধা কেজি, ডিম ৩টা, জিরার গুঁড়া ১ চা চামচ, টোস্টের গুঁড়া আধা কাপ, সরিষার তেল ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, শুকনামরিচ ৩/৪টা, পুদিনা পাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, তেল ভাজার জন্য পরিমাণমতো।

যেভাবে করবেন : ডিম ২টা আলু একসঙ্গে সিদ্ধ করে নিন। পুদিনাপাতা কুচি করে রাখুন শুকনামরিচ টেলে ভেজে রাখুন। পেঁয়াজ কুচি ভেজে বেরেস্তা করে রাখুন।

সিদ্ধ আলু ২টা ডিম চটকে রাখুন, এবার তাতে একে একে পেঁয়াজ বেরেস্তা, শুকনামরিচ, পুদিনা পাতা, জিরার গুঁড়া, সরিষার তেল ও লবণ দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। গোল চ্যাপ্টা চপ তৈরি করে রাখুন কিছুক্ষণ ফ্রিজে রেখে একটু শক্ত হয়ে গেলে ডিমে ডুবিয়ে টোস্টের গুঁড়া লাগিয়ে ডুবো তেলে ভাজুন মচমচে করে। ভাজা হয়ে গেলে ইচ্ছামতো সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

পায়েস

যা লাগবে : পোলাওয়ের চাল আধা কাপ, দুধ ১ লিটার, গুঁড়া দুধ পৌনে ১ কাপ, এলাচ ৫/৬টা, চিনি আধা কাপ (একটু বেশি দিতে পারেন), কিশমিশ পেস্তা বাদাম ও চেরি সাজানোর জন্য।

যেভাবে করবেন : পোলাওয়ের চাল ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। হাঁড়িতে চাল নিয়ে নরম করে রান্না করুন। আলাদা একটা হাঁড়িতে দুধে গুঁড়া দুধ মিশিয়ে জ্বাল দিন। এবার তাতে এলাচি ও চিনি দিয়ে জ্বাল দিন। এবার এই দুধটা রান্না করা ভাতের ওপরে ঢেলে দিন। ভালোভাবে নেড়ে টেস্ট করে নামিয়ে ফেলুন। ঠাণ্ডা করে এবার ইচ্ছামতো সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত