ত্বক ও চুলের যত্ন
jugantor
সাজঘর
ত্বক ও চুলের যত্ন
পরামর্শ দিয়েছেন আকাঙ্খা’স গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অ্যারোমা থেরাপিস্ট জুলিয়া আজাদ

  লাইফস্টাইল ডেস্ক  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছবি সংগৃহীত

সময়ের পরিবর্তনে রূপচর্চারও কিছু পরিবর্তন করতে হয়। তবে যা কিছু করবেন সবসময় চেষ্টা করবেন কেমিক্যাল প্রোডাক্ট ব্যবহার না করে প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে যত্ন করা। যদিও কেমিক্যাল প্রোডাক্ট সহজলভ্য হয় কিন্তু একটু কষ্ট করে আপনার হাতের কাছের উপাদান যদি আপনার সব সমস্যা সমাধান করতে পারে তবে কেন কেমিক্যাল প্রোডাক্ট ব্যবহার করবেন।

করোনার এ সময়ে যদিও বাইরে খুব বেশি বের হচ্ছে না আর বের হলেও হ্যান্ড গ্লাভস মুখে মাস্ক কারও কারও আবার মাথায়ও ক্যাপ থাকছে। নিজেকে সুরক্ষিত রাখার জন্য এটুকু তো আমাদের করতেই হবে।

এবং সেই সঙ্গে বাড়ি ফিরেই ভালো করে হাত মুখ সাবান দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। মুখে যে মাস্ক ব্যবহার করছেন সেটাও ভালো করে ধুয়ে ফেলুন এতেই আপনি অনেকটা সুরক্ষিত হচ্ছে। কিন্তু এ নিজেকে সুরক্ষিত রাখার এ উপাদানগুলো আপনার ত্বক ও চুলের কিছু করছে এবং বিশেষ করে বারবার সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ফলে হাতের ত্বক রুক্ষ শুষ্ক প্রাণবিহীন হয়ে পড়েছে।

মুখে মাস্ক পড়ার ফলে মুখের ত্বকেও কিছু সমস্যা দেখা দিচ্ছে। আপনি হয়তো এসব সমস্যা সমাধানে অনেক কিছু চেষ্টাও করছেন। কেউ হয়তো উপকার ও কিছু পেয়েছেন। সেই সঙ্গে আপনার জন্য একটু এক্সট্রা কিছু যত্নের কথাও বলব যাতে খুব অল্প সময়ে আপনার সমস্যার সমাধান করতে পারেন। প্রথমেই বলি চুলের কথা। কারণ এ সময় চুল পড়ছে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না।

এক কাপ ঠাণ্ডা অলিভ অয়েল এক কাপ ঠাণ্ডা পানি ভালো করে ব্লেন্ডারে ফেটিয়ে নিলে একটা ঘন ক্রিমের মতো তৈরি হবে। এ মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় ভালোভাবে লাগাবেন এবং পুরো চুলে অল্প অল্প করে নিয়ে লাগিয়ে ম্যাসাজ করবেন।

আপনার চুল যদি ছোট হয় তাহলে এতটা মিশ্রণ একেবারে লাগবে না। যদি বেঁচে যায় সেটুকু পরে ব্যবহার করতে পারবেন, মোট কথা যতটা তেল ততটা পানি একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিলেই হবে। যদিও দুইটা মিশ্রণ ঠাণ্ডা তবে ব্লেন্ড করার ফলে হালকা গরম হয়ে যাবে। পুরো চুলে তেল লাগিয়ে এক ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনিং করে নিন এতেই হয়ে যাবে আপনার চুলের যত্ন এবং চুলের রুক্ষতা কমবে, চুল পড়াও কমবে।

হাত পা এর যত্ন : দুই চা চামচ মাখন অথবা অলিভ অয়েল, এক চা চামচ চিনি, এক চা চামচ মধু ভালো করে ফেটিয়ে নিন। এ মিশ্রণ দিয়ে ম্যাসাজ করুন গোসলের সময় এটা আপনার হাতে পায়ের ত্বকের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করবে।

মুখের যত্ন : অ্যালোভেরা জেল এক চা চামচ মধু, এক চামচ চালের গুঁড়া বা বেসন এক চা চামচ, ডিম ফেটানো এক চা চামচ, সেই সঙ্গে গোলাপ জল এক চা চামচ ভালো করে মিশিয়ে এই মিশ্রণ দিয়ে মুখ গলা ঘাড় হালকা হাতে আপওয়ার্ড ডাইরেশন ম্যাসাজ করুন। বিশ মিনিট পর উষ্ণ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনার মুখের ত্বকের জেল্লা ফিরে আসবে, এ সময় সম্ভব হলে প্রতিদিন এক টুকরা কাঁচা হলুদ, দুটি লবঙ্গ চারটি গোলমরিচ খালি পেটে খেয়ে উষ্ণ গরম পানি খেয়ে নিন। আপনার সব সমস্যার সঙ্গে সঙ্গে ভেতর থেকে আপনার শরীরকেও সুস্থ রাখবে।

সাজঘর

ত্বক ও চুলের যত্ন

পরামর্শ দিয়েছেন আকাঙ্খা’স গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অ্যারোমা থেরাপিস্ট জুলিয়া আজাদ
 লাইফস্টাইল ডেস্ক 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

সময়ের পরিবর্তনে রূপচর্চারও কিছু পরিবর্তন করতে হয়। তবে যা কিছু করবেন সবসময় চেষ্টা করবেন কেমিক্যাল প্রোডাক্ট ব্যবহার না করে প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে যত্ন করা। যদিও কেমিক্যাল প্রোডাক্ট সহজলভ্য হয় কিন্তু একটু কষ্ট করে আপনার হাতের কাছের উপাদান যদি আপনার সব সমস্যা সমাধান করতে পারে তবে কেন কেমিক্যাল প্রোডাক্ট ব্যবহার করবেন।

করোনার এ সময়ে যদিও বাইরে খুব বেশি বের হচ্ছে না আর বের হলেও হ্যান্ড গ্লাভস মুখে মাস্ক কারও কারও আবার মাথায়ও ক্যাপ থাকছে। নিজেকে সুরক্ষিত রাখার জন্য এটুকু তো আমাদের করতেই হবে।

এবং সেই সঙ্গে বাড়ি ফিরেই ভালো করে হাত মুখ সাবান দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। মুখে যে মাস্ক ব্যবহার করছেন সেটাও ভালো করে ধুয়ে ফেলুন এতেই আপনি অনেকটা সুরক্ষিত হচ্ছে। কিন্তু এ নিজেকে সুরক্ষিত রাখার এ উপাদানগুলো আপনার ত্বক ও চুলের কিছু করছে এবং বিশেষ করে বারবার সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ফলে হাতের ত্বক রুক্ষ শুষ্ক প্রাণবিহীন হয়ে পড়েছে।

মুখে মাস্ক পড়ার ফলে মুখের ত্বকেও কিছু সমস্যা দেখা দিচ্ছে। আপনি হয়তো এসব সমস্যা সমাধানে অনেক কিছু চেষ্টাও করছেন। কেউ হয়তো উপকার ও কিছু পেয়েছেন। সেই সঙ্গে আপনার জন্য একটু এক্সট্রা কিছু যত্নের কথাও বলব যাতে খুব অল্প সময়ে আপনার সমস্যার সমাধান করতে পারেন। প্রথমেই বলি চুলের কথা। কারণ এ সময় চুল পড়ছে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না।

এক কাপ ঠাণ্ডা অলিভ অয়েল এক কাপ ঠাণ্ডা পানি ভালো করে ব্লেন্ডারে ফেটিয়ে নিলে একটা ঘন ক্রিমের মতো তৈরি হবে। এ মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় ভালোভাবে লাগাবেন এবং পুরো চুলে অল্প অল্প করে নিয়ে লাগিয়ে ম্যাসাজ করবেন।

আপনার চুল যদি ছোট হয় তাহলে এতটা মিশ্রণ একেবারে লাগবে না। যদি বেঁচে যায় সেটুকু পরে ব্যবহার করতে পারবেন, মোট কথা যতটা তেল ততটা পানি একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিলেই হবে। যদিও দুইটা মিশ্রণ ঠাণ্ডা তবে ব্লেন্ড করার ফলে হালকা গরম হয়ে যাবে। পুরো চুলে তেল লাগিয়ে এক ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনিং করে নিন এতেই হয়ে যাবে আপনার চুলের যত্ন এবং চুলের রুক্ষতা কমবে, চুল পড়াও কমবে।

হাত পা এর যত্ন : দুই চা চামচ মাখন অথবা অলিভ অয়েল, এক চা চামচ চিনি, এক চা চামচ মধু ভালো করে ফেটিয়ে নিন। এ মিশ্রণ দিয়ে ম্যাসাজ করুন গোসলের সময় এটা আপনার হাতে পায়ের ত্বকের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করবে।

মুখের যত্ন : অ্যালোভেরা জেল এক চা চামচ মধু, এক চামচ চালের গুঁড়া বা বেসন এক চা চামচ, ডিম ফেটানো এক চা চামচ, সেই সঙ্গে গোলাপ জল এক চা চামচ ভালো করে মিশিয়ে এই মিশ্রণ দিয়ে মুখ গলা ঘাড় হালকা হাতে আপওয়ার্ড ডাইরেশন ম্যাসাজ করুন। বিশ মিনিট পর উষ্ণ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনার মুখের ত্বকের জেল্লা ফিরে আসবে, এ সময় সম্ভব হলে প্রতিদিন এক টুকরা কাঁচা হলুদ, দুটি লবঙ্গ চারটি গোলমরিচ খালি পেটে খেয়ে উষ্ণ গরম পানি খেয়ে নিন। আপনার সব সমস্যার সঙ্গে সঙ্গে ভেতর থেকে আপনার শরীরকেও সুস্থ রাখবে।