দেশীয় পণ্যের প্রচারে ফেরদৌস
jugantor
দেশীয় পণ্যের প্রচারে ফেরদৌস

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিবি রাসেলের সঙ্গে মডেল হিসাবে কাজ দিয়েই মিডিয়া ক্যারিয়ার শুরু করেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস। পরে ছবিতে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পান তিনি। পুরো অভিনয় জীবনের ফাঁকে ফাঁকে একাধিকবার স্থিরচিত্রের মডেল হয়েছেন বিভিন্ন পণ্যের প্রচারণার জন্য। কিন্তু প্রথমবার ভিডিওর মাধ্যমে দেশীয় একটি পণ্যের প্রচারণা শুরু করছেন এ চিত্রনায়ক। প্রভিডেন্স নামের একটি দেশীয় অনলাইন ফ্যাশন হাউজের পাঁচটি বিজ্ঞাপনের কাজ এরই মধ্যে শেষ করেছেন তিনি। ফ্যাশন হাউজটি মূলত ছেলেদের পোশাক বাজারজাত করবে।

ছেলেদের সব ধরনের পোশাক, জুতা, ব্লেজার, ঘড়ি, বেল্ট, ব্যাগসহ সব পণ্য এ প্রতিষ্ঠানটি দেশেই উৎপাদন করে বিক্রি করবে। শুধু বিজ্ঞাপনই নয়, প্রথমবার এ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে শুভেচ্ছাদূতও হয়েছেন ফেরদৌস। এ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কেন কাজ করতে আগ্রহী হলেন সে প্রসঙ্গে ফেরদৌস বলেন- ‘ইউরোপিয়ান মাকের্টে প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘদিন ধরে সফলভাবে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালিত করে আসছে। যেহেতু তাদের পণ্য মেড বাই বাংলাদেশ, তাই এ উন্নতমানের পণ্য বাংলাদেশের মানুষের কাছে পৌঁছানোর পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এখন অনলাইনে তাদের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

তাই আমি প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে যুক্ত হয়েছি। আমার কর্মজীবনে এ রকম কোনো কাজ আগে করিনি। দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার পরিকল্পনা নিয়ে প্রভিডেন্স প্রতিষ্ঠানটি কাজ শুরু করছে। আশা করছি শিগগিরই পণ্যটির ভিন্নধর্মী প্রচারণায় আমাকে দেখতে পাবেন সবাই।’

দেশীয় পণ্যের প্রচারে ফেরদৌস

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিবি রাসেলের সঙ্গে মডেল হিসাবে কাজ দিয়েই মিডিয়া ক্যারিয়ার শুরু করেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস। পরে ছবিতে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পান তিনি। পুরো অভিনয় জীবনের ফাঁকে ফাঁকে একাধিকবার স্থিরচিত্রের মডেল হয়েছেন বিভিন্ন পণ্যের প্রচারণার জন্য। কিন্তু প্রথমবার ভিডিওর মাধ্যমে দেশীয় একটি পণ্যের প্রচারণা শুরু করছেন এ চিত্রনায়ক। প্রভিডেন্স নামের একটি দেশীয় অনলাইন ফ্যাশন হাউজের পাঁচটি বিজ্ঞাপনের কাজ এরই মধ্যে শেষ করেছেন তিনি। ফ্যাশন হাউজটি মূলত ছেলেদের পোশাক বাজারজাত করবে।

ছেলেদের সব ধরনের পোশাক, জুতা, ব্লেজার, ঘড়ি, বেল্ট, ব্যাগসহ সব পণ্য এ প্রতিষ্ঠানটি দেশেই উৎপাদন করে বিক্রি করবে। শুধু বিজ্ঞাপনই নয়, প্রথমবার এ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে শুভেচ্ছাদূতও হয়েছেন ফেরদৌস। এ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কেন কাজ করতে আগ্রহী হলেন সে প্রসঙ্গে ফেরদৌস বলেন- ‘ইউরোপিয়ান মাকের্টে প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘদিন ধরে সফলভাবে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালিত করে আসছে। যেহেতু তাদের পণ্য মেড বাই বাংলাদেশ, তাই এ উন্নতমানের পণ্য বাংলাদেশের মানুষের কাছে পৌঁছানোর পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এখন অনলাইনে তাদের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

তাই আমি প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে যুক্ত হয়েছি। আমার কর্মজীবনে এ রকম কোনো কাজ আগে করিনি। দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার পরিকল্পনা নিয়ে প্রভিডেন্স প্রতিষ্ঠানটি কাজ শুরু করছে। আশা করছি শিগগিরই পণ্যটির ভিন্নধর্মী প্রচারণায় আমাকে দেখতে পাবেন সবাই।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন