জ্যাকেটে আরাম শীতে

  একে রাসেল ০৯ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শীতের জ্যাকেট
শীতের জ্যাকেট

এখন বাংলাদেশের সব বয়সের মানুষই ফ্যাশন সচেতন। বিশ্বের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে এগিয়ে চলেছে আমাদের দেশি ফ্যাশন। কেননা ফ্যাশন জীবনযাত্রারই একটি বিশেষ অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যদিও তরুণ-তরুণীদের ফ্যাশনই চোখে লাগে বেশি। কিন্তু সব বয়সের মানুষই এখন ফ্যাশন পছন্দ করেন।

আর এ কারণে আমাদের দেশের ফ্যাশন হাউসগুলোতেও তাই বছরজুড়েই চলে ফ্যাশন নিয়ে নানা আয়োজন। প্রতিনিয়তই বাজারে আসে নতুন নতুন ডিজাইনের পোশাক। বছর জুড়েই থাকে কেনাকাটার ধুম। আর বিশেষ কিছু দিনকে কেন্দ্র করে আয়োজন হয় মহাধুমধামে।

পৌষের হাড় কাঁপানো শীত মানেই গায়ে শীতের কাপড় জড়ানো। কিন্তু শীতের কাপড় গায়ে মাখা মানেই পোশাকের ফ্যাশন ঢাকা পড়া। এ বিষয়টি মাথায় রেখেই ফ্যাশন হাউসগুলো বাজারে এনেছে ফ্যাশনেবল নানা শীতের পোশাক। শীতের ফ্যাশনে জ্যাকেটের ব্যবহার ফ্যাশনকে আরও সমৃদ্ধ করেছে। ফ্যাশনেবল জ্যাকেটগুলো ছেলেমেয়ে সবাই ব্যবহার করতে পারেন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, জ্যাকেটগুলো তৈরি করা হয়েছে শীতের প্রয়োজন ও ফ্যাশন দুটি বিষয়ই মাথায় রেখে। দেশি কাপড়ে চোখ জুড়ানো নকশায় তৈরি হয়েছে এগুলো। এ ধরনের জ্যাকেট তৈরিতে ব্যবহার করা হয়েছে খাদি কাপড়। এছাড়া কাপড়ের গঠনে এসেছে বেশ ভারি ও রুক্ষ টেক্সচার। খাদি কাপড়েই জ্যাকেটের প্যাটার্ন ঠিক থাকে। আর খাদিতে নকশা ও বুননের সমন্বয়ে জ্যাকেটে আনা হয়েছে বৈচিত্র্য। জ্যাকেট নিয়ে কথা হয় ফ্যাশন হাউস প্লাস পয়েন্টের ডিরেক্টর ও ফ্যাশন ডিজাইনার বিপুল ইসলামের সঙ্গে তিনি জানান, আমরা এবার আমাদের শোরুমে নতুন নতুন ডিজাইনের কিছু জ্যাকেট নিয়ে এসেছি যেমন, ওপেন জ্যাকেট, হাফ জ্যাকেট এছাড়া লং জ্যাকেট, সেমি লং জ্যাকেট থাকছেই। দাম ও মানুষের নাগালের মধ্যে আমাদের সব পোশাক। আপনার পোশাক আপনি নিজেই বুঝে নিতে হবে কোনটা পরলে আপনাকে ভালো লাগবে বা মানানসই হবে। সে সঙ্গে সাইজটাও দেখেশুনে কিনতে ও জানা প্রয়োজন। এবং কালার বাছাইটাও খুব জরুরি কেননা সবাইকে সব ধরনের ডিজাইন কিনবা কালারে সুন্দর দেখায় না।

ছেলেদের জিন্স, গ্যাবাডিন, ফরমাল প্যান্ট, মেয়েদের টপস্ প্যান্ট, সালোয়ার কামিজের বা শাড়ির সঙ্গে জ্যাকেটগুলো ব্যবহার করতে পারেন। জ্যাকেট কিনতে পাওয়া যাবে ফ্যাশন হাউসগুলোয়। পার্টি বা ঘরোয়া অনুষ্ঠান, সবটাতেই মানানসই এ জ্যাকেটগুলো।

জ্যাকেট কিনতে পাওয়া যাবে ফ্যাশন হাউসগুলোয়। অনেকই আবার চায়না বা অন্য সব দেশ থেকে এসব শীতের পোশাক এনে থাকে।

কোথায় পাওয়া যাবে

প্লাসপয়েন্ট ইজি, ইয়েলো, এক্সটাসি, ক্যাটস আই, ওয়েস্টেকস, ইনফিনিটি, এক্সটেসি, মেনজ কাব, লারিভ রিচম্যানসহ রাজধানীর বিভিন্ন ফ্যাশন হাউস নানা ডিজাইনের, নানা রঙের জ্যাকেট এনেছে বাজারে।

এ ছাড়া যমুনা ফিউচার পার্ক, পলওয়েল মার্কেট, বসুন্ধরা সিটি,

নিউমার্কেট, বঙ্গবাজারেও পাওয়া যাবে নানা ডিজাইনের জ্যাকেট। এছাড়া দেশের অভিজাত এলাকার সব মার্কেটগুলোতে পাওয়া যাবে শীতের আরামদায়ক সব ধরনের জ্যাকেট। আপনি আপনার পছন্দের পোশাকটি কেনার সময় দরদাম ঠিক করে নিন।

দরদাম

জ্যাকেটের দাম পড়বে ৫০০ থেকে ১৫০০ হাজার টাকা। ব্যান্ডের শোরুমে দাম পড়বে ২৫০০ থেকে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

 
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

gpstar

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter