বিয়ের আগে
jugantor
বিয়ের আগে

  এনামুল হক (বসির)  

১৮ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পরিবারের সদস্যরা মিলে ঠিক করেছেন আপনার বিয়ে। কিন্তু বিয়ে করার আগে একে-অপরকে কিছুটা চিনে নিতে হবে তো! প্রথম সেই সাক্ষাতে কী জিজ্ঞেস করবেন আপনার হবু জীবন সঙ্গীকে?

অজানা-অচেনা একজন মানুষের সঙ্গে প্রথমবার সাক্ষাতের আগে মনের মধ্যে আবেগ-অনুভূতির যে মিশ্র ককটেল তৈরি হয় এ মিটিংয়ের আয়োজন মূলত মা-বাবা ও পরিবারের বাকি সদস্যরা মিলে ঠিক করে দেন। এমনিতে সাধারণভাবে মনে হতেই পারে যে অ্যারেঞ্জড ম্যারেজের ক্ষেত্রে এ ধরনের প্রথম সাক্ষাৎ বোরিং বিষয়। কিন্তু একজন অচেনা মানুষের সঙ্গে জীবনভর সম্পর্ক তৈরি করার আগে এটাই তো সুযোগ তার ব্যাপারে যতটুকু সম্ভব জেনে নেওয়ার। তবে এ ধরনের আলাপে অনেকেই ভেবে পান না কথাগুলো শুরু করবেন কীভাবে। কিই বা জানতে চাইবেন উলটোদিকের মানুষটার থেকে।

ফর্মাল বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করার জন্য তো পরিবারের বাকিরাও আছেন। তাই আপনারা দু’জন বরং একটু ইনফর্মাল কথাবার্তা দিয়েই শুরু করুন। প্রথমে জানতে চান বেড়াতে যেতে ভালোবাসেন কিনা। কোথায় কোথায় ঘুরেছেন বা কোথায় ঘুরতে যেতে চান, সে ব্যাপারে আপনার পছন্দ-অপছন্দগুলোও জানিয়ে দিতেই পারেন।

যদি কফিশপে বা রেস্তোরাঁয় দেখা করেন তাহলে পার্টনারকে অফার করুন খাবার অর্ডার দেওয়ার জন্য। সবচেয়ে পছন্দের খাবারগুলোর নামই সবার আগে মাথায় আসবে। তাই তার পছন্দের খাবারগুলোর দিকে খেয়াল রাখুন। তার পছন্দ কেমন? এ বিষয়গুলো একজন মানুষের ব্যক্তিত্বের বিভিন্ন দিকগুলোকে স্পষ্ট করে। ছুটির দিনে তিনি কী কী করেন, কোথায় যেতে ভালোবাসেন এগুলোও তার থেকে জানতে চাইতে পারেন।

যদি যৌথ পরিবারের হয়, তাহলে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে কে বেশি কাছের তা জেনে নিন। বিয়ের পর সেক্ষেত্রে আপনারও তার সঙ্গে মিশতে সুবিধা হবে। আপনিও আপনার কাছের বন্ধু বা কোনো আত্মীয়ের কথা শেয়ার করতে পারেন। কোনো মজার মুহূর্তের কথাও জানাতে পারেন।

কেউ যদি খুব ঘরমুখো হন, ছুটির দিনে বাড়িতে থাকতে পছন্দ করেন আর আপনি যদি একেবারেই বিপরীত স্বভাবের হন, বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে চুটিয়ে আড্ডা মারতে চান, তাহলে বুঝতেই পারছেন দু’জনকেই বেশ খানিকটা মানিয়ে নিতে হবে। প্রথমে এত কিছু বোঝা সম্ভব না হলেও একজন মানুষের ব্যক্তিত্বও রুচির পরিচয় কিছুটা হলেও আঁচ করতে পারবেন। সাক্ষাতের সময় আপনি শুধু একাই কথা বলবেন না। সঙ্গীকেও বলার যথেষ্ট সুযোগ দিন।

বিয়ের আগে

 এনামুল হক (বসির) 
১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পরিবারের সদস্যরা মিলে ঠিক করেছেন আপনার বিয়ে। কিন্তু বিয়ে করার আগে একে-অপরকে কিছুটা চিনে নিতে হবে তো! প্রথম সেই সাক্ষাতে কী জিজ্ঞেস করবেন আপনার হবু জীবন সঙ্গীকে?

অজানা-অচেনা একজন মানুষের সঙ্গে প্রথমবার সাক্ষাতের আগে মনের মধ্যে আবেগ-অনুভূতির যে মিশ্র ককটেল তৈরি হয় এ মিটিংয়ের আয়োজন মূলত মা-বাবা ও পরিবারের বাকি সদস্যরা মিলে ঠিক করে দেন। এমনিতে সাধারণভাবে মনে হতেই পারে যে অ্যারেঞ্জড ম্যারেজের ক্ষেত্রে এ ধরনের প্রথম সাক্ষাৎ বোরিং বিষয়। কিন্তু একজন অচেনা মানুষের সঙ্গে জীবনভর সম্পর্ক তৈরি করার আগে এটাই তো সুযোগ তার ব্যাপারে যতটুকু সম্ভব জেনে নেওয়ার। তবে এ ধরনের আলাপে অনেকেই ভেবে পান না কথাগুলো শুরু করবেন কীভাবে। কিই বা জানতে চাইবেন উলটোদিকের মানুষটার থেকে।

ফর্মাল বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করার জন্য তো পরিবারের বাকিরাও আছেন। তাই আপনারা দু’জন বরং একটু ইনফর্মাল কথাবার্তা দিয়েই শুরু করুন। প্রথমে জানতে চান বেড়াতে যেতে ভালোবাসেন কিনা। কোথায় কোথায় ঘুরেছেন বা কোথায় ঘুরতে যেতে চান, সে ব্যাপারে আপনার পছন্দ-অপছন্দগুলোও জানিয়ে দিতেই পারেন।

যদি কফিশপে বা রেস্তোরাঁয় দেখা করেন তাহলে পার্টনারকে অফার করুন খাবার অর্ডার দেওয়ার জন্য। সবচেয়ে পছন্দের খাবারগুলোর নামই সবার আগে মাথায় আসবে। তাই তার পছন্দের খাবারগুলোর দিকে খেয়াল রাখুন। তার পছন্দ কেমন? এ বিষয়গুলো একজন মানুষের ব্যক্তিত্বের বিভিন্ন দিকগুলোকে স্পষ্ট করে। ছুটির দিনে তিনি কী কী করেন, কোথায় যেতে ভালোবাসেন এগুলোও তার থেকে জানতে চাইতে পারেন।

যদি যৌথ পরিবারের হয়, তাহলে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে কে বেশি কাছের তা জেনে নিন। বিয়ের পর সেক্ষেত্রে আপনারও তার সঙ্গে মিশতে সুবিধা হবে। আপনিও আপনার কাছের বন্ধু বা কোনো আত্মীয়ের কথা শেয়ার করতে পারেন। কোনো মজার মুহূর্তের কথাও জানাতে পারেন।

কেউ যদি খুব ঘরমুখো হন, ছুটির দিনে বাড়িতে থাকতে পছন্দ করেন আর আপনি যদি একেবারেই বিপরীত স্বভাবের হন, বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে চুটিয়ে আড্ডা মারতে চান, তাহলে বুঝতেই পারছেন দু’জনকেই বেশ খানিকটা মানিয়ে নিতে হবে। প্রথমে এত কিছু বোঝা সম্ভব না হলেও একজন মানুষের ব্যক্তিত্বও রুচির পরিচয় কিছুটা হলেও আঁচ করতে পারবেন। সাক্ষাতের সময় আপনি শুধু একাই কথা বলবেন না। সঙ্গীকেও বলার যথেষ্ট সুযোগ দিন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন