ঘর সাজাতে আসবাবপত্র
jugantor
ঘর সাজাতে আসবাবপত্র

  ঘরেবাইরে ডেস্ক  

০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিয়ে এক পবিত্র বন্ধন। যেই বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে দুটি মানুষ একে অপরের পাশে থাকে সারা জীবন। সুখ কিংবা দুঃখ সব কিছুই ভাগাভাগি করে নেন সমানভাবে। নতুন করে শুরু হয় এক পথচলা। এই পথচলায় নতুন দুটো আলাদা মানুষ এক হয়ে শুরু করে যাত্রা। তাই নিজেদের এই পৃথিবী সাজিয়ে তুলতে প্রস্তুতি নিতে হয় বিয়ের পর পরই। যেহেতু বিয়ের সময় নানা কাজে থাকে ব্যস্ততা তাই বিয়ের পর একটু সময় নিয়ে শুরু করতে হয় ঘর গোছানোর পালা। এ ক্ষেত্রে কাজে আসে বিয়ের উপহার সামগ্রী। নতুন সংসার সাজাতে তাই ব্যস্ততা বেড়ে যায়। এ ক্ষেত্রে অনেকেই উপহারের বেলায় তাই ভিন্নতা আনেন। পরিবারের যারা আছেন তারা ঘর সাজানোর আসবাবপত্রেই বেশি মনোযোগ দিয়ে থাকেন। নতুন দম্পতিদের নিজ নিজ জায়গা থেকে মত নিয়েই ঘর গোছানোর আসবাবপত্র কেনা ভালো। এতে কোথায় কি লাগছে তা যেমন তারা আপনাকে জানাতে পারছেন তেমনি আপনিও তাকে সঠিক জিনিসটি উপহার দিতে পারছেন। আসবাবপত্রের শুরুতেই আসে খাট, আলমিরা, ড্রেসিং টেবিল, খাবার টেবিল, এসি, ফ্রিজ কিংবা ঘর সাজানোর আরও টুকিটাকি জিনিস। এসব আসবাবপত্রের ক্ষেত্রে দেখে শুনে কেনা সবচেয়ে ভালো। তাই মার্কেট ঘুরে যাচাই-বাছাই করেই কিনুন। অনেকেই অল্প খরচে পুরো ঘর সাজিয়ে দিতে চান নব দম্পতিদের। এ ক্ষেত্রে সাময়িকভাবে আসবাবপত্র হলেও তা টেকসই হয়ে ওঠে না। তাই ভালো কাঠের আসবাবপত্র বেছে নেওয়াই ভালো। আর এ ক্ষেত্রে ভালোবাসা মিশ্রিত এ উপহারের বিষয়টি ছেলে কিংবা মেয়ের সঙ্গে আগেভাগেই বলে নেওয়া ভালো। এতে করে আপনি তাদের পরিকল্পনা সম্পর্কেও জেনে নিতে পারবেন। এক সঙ্গে গিয়ে পছন্দ অনুযায়ী কিনে নিতে পারবেন ঘর সাজানোর এসব আসবাবপত্র। অনেকেই এখন যতটা পারেন ঘরে আসবাবপত্র কম রাখতেই ভালোবাসেন। এ ক্ষেত্রে অর্ডার করেও দেয়ালে এটাচ করে আসবাবপত্র বানিয়ে দিতে পারছেন। এতে খরচ কিছুটা বাড়তি পড়লেও দেখতে লাগবে বেশ দৃষ্টিনন্দন আর আলাদা। আর যারা ভারি কারুকাজ পছন্দ করেন তারা কিনে নিতে পারেন সেগুন কাঠের আসবাবপত্র। সঙ্গে কাচের ভিন্নতা আনতে পারেন। এতে ঘরের আসবাবপত্র টেকসই যেমন হবে তেমনি দেখতেও ভালো লাগবে।

কোথায় পাবেন : যমুনা ফিউচার পার্ক, গুলশান ২ ডিসিসি মার্কেট, উত্তরা জনপথ রোড, নতুন বাজার, সায়েদাবার, যাত্রাবাড়ি, বনানী, গুলশান ১ ডিএনসিসি মার্কেট।

দাম : খাটের দাম পড়বে দশ হাজার থেকে শুরু সত্তর হাজারের মধ্যে, আলমিরা পড়বে পনেরো হাজার থেকে শুরু করে চল্লিশ হাজারের মধ্যে, ড্রেসিং টেবিল দশ হাজার থেকে পঁচিশ হাজারের মধ্যে পেয়ে যাবেন।

ঘর সাজাতে আসবাবপত্র

 ঘরেবাইরে ডেস্ক 
০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিয়ে এক পবিত্র বন্ধন। যেই বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে দুটি মানুষ একে অপরের পাশে থাকে সারা জীবন। সুখ কিংবা দুঃখ সব কিছুই ভাগাভাগি করে নেন সমানভাবে। নতুন করে শুরু হয় এক পথচলা। এই পথচলায় নতুন দুটো আলাদা মানুষ এক হয়ে শুরু করে যাত্রা। তাই নিজেদের এই পৃথিবী সাজিয়ে তুলতে প্রস্তুতি নিতে হয় বিয়ের পর পরই। যেহেতু বিয়ের সময় নানা কাজে থাকে ব্যস্ততা তাই বিয়ের পর একটু সময় নিয়ে শুরু করতে হয় ঘর গোছানোর পালা। এ ক্ষেত্রে কাজে আসে বিয়ের উপহার সামগ্রী। নতুন সংসার সাজাতে তাই ব্যস্ততা বেড়ে যায়। এ ক্ষেত্রে অনেকেই উপহারের বেলায় তাই ভিন্নতা আনেন। পরিবারের যারা আছেন তারা ঘর সাজানোর আসবাবপত্রেই বেশি মনোযোগ দিয়ে থাকেন। নতুন দম্পতিদের নিজ নিজ জায়গা থেকে মত নিয়েই ঘর গোছানোর আসবাবপত্র কেনা ভালো। এতে কোথায় কি লাগছে তা যেমন তারা আপনাকে জানাতে পারছেন তেমনি আপনিও তাকে সঠিক জিনিসটি উপহার দিতে পারছেন। আসবাবপত্রের শুরুতেই আসে খাট, আলমিরা, ড্রেসিং টেবিল, খাবার টেবিল, এসি, ফ্রিজ কিংবা ঘর সাজানোর আরও টুকিটাকি জিনিস। এসব আসবাবপত্রের ক্ষেত্রে দেখে শুনে কেনা সবচেয়ে ভালো। তাই মার্কেট ঘুরে যাচাই-বাছাই করেই কিনুন। অনেকেই অল্প খরচে পুরো ঘর সাজিয়ে দিতে চান নব দম্পতিদের। এ ক্ষেত্রে সাময়িকভাবে আসবাবপত্র হলেও তা টেকসই হয়ে ওঠে না। তাই ভালো কাঠের আসবাবপত্র বেছে নেওয়াই ভালো। আর এ ক্ষেত্রে ভালোবাসা মিশ্রিত এ উপহারের বিষয়টি ছেলে কিংবা মেয়ের সঙ্গে আগেভাগেই বলে নেওয়া ভালো। এতে করে আপনি তাদের পরিকল্পনা সম্পর্কেও জেনে নিতে পারবেন। এক সঙ্গে গিয়ে পছন্দ অনুযায়ী কিনে নিতে পারবেন ঘর সাজানোর এসব আসবাবপত্র। অনেকেই এখন যতটা পারেন ঘরে আসবাবপত্র কম রাখতেই ভালোবাসেন। এ ক্ষেত্রে অর্ডার করেও দেয়ালে এটাচ করে আসবাবপত্র বানিয়ে দিতে পারছেন। এতে খরচ কিছুটা বাড়তি পড়লেও দেখতে লাগবে বেশ দৃষ্টিনন্দন আর আলাদা। আর যারা ভারি কারুকাজ পছন্দ করেন তারা কিনে নিতে পারেন সেগুন কাঠের আসবাবপত্র। সঙ্গে কাচের ভিন্নতা আনতে পারেন। এতে ঘরের আসবাবপত্র টেকসই যেমন হবে তেমনি দেখতেও ভালো লাগবে।

কোথায় পাবেন : যমুনা ফিউচার পার্ক, গুলশান ২ ডিসিসি মার্কেট, উত্তরা জনপথ রোড, নতুন বাজার, সায়েদাবার, যাত্রাবাড়ি, বনানী, গুলশান ১ ডিএনসিসি মার্কেট।

দাম : খাটের দাম পড়বে দশ হাজার থেকে শুরু সত্তর হাজারের মধ্যে, আলমিরা পড়বে পনেরো হাজার থেকে শুরু করে চল্লিশ হাজারের মধ্যে, ড্রেসিং টেবিল দশ হাজার থেকে পঁচিশ হাজারের মধ্যে পেয়ে যাবেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন