বৈচিত্র্যময় বান্দরবান : নাজুক যোগাযোগ ব্যবস্থা

  আলাউদ্দিন শাহরিয়ার, বান্দরবান ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বান্দরবান

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে লীলাভূমি বান্দরবান জেলাটি যেন একটি সবুজ কার্পেটের ওপর দাঁড়িয়ে আছে। দুচোখ যেদিকে যায় শুধুই সবুজের সমারোহ। চলে মেঘ আর পাহাড়ের লুকোচুরি।

প্রকৃতি যেন সবটুকু উজাড় করে দিয়ে পেখম মেলে বসে আছে পাহাড়ি ঝর্ণায়। তবে বৃষ্টির মৌসুমে ঝর্ণাগুলো হয়ে ওঠে বিপজ্জনক।

ঝর্ণায় যাওয়ার পথগুলো হয়ে যায় পিচ্ছিল এবং ঝর্ণার পাদদেশে পানির স্রোত আর গভীরতা বেড়ে গিয়ে পরিণত হয় মৃত্যু কূপে। স্থানীয় প্রশাসন এবং পর্যটন করপোরেশনের পক্ষ থেকে সতর্কতামূলক কোনো সাইনবোর্ড এবং দিকনির্দেশনা না থাকায় স্পটগুলোয় বাড়ছে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা। ইতিমধ্যে ঘটেছে একাধিক প্রাণহানির ঘটনা।

ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটক দম্পতি শামীম আহমেদ ও রোকসানা বলেন, বান্দরবান-চট্টগ্রাম এবং বান্দরবান-কক্সবাজার সড়কে চলাচলকারী বাসগুলোর অবস্থা খুবই বাজে। কোনো ধরনের সেবা নেই, উল্টো হয়রানির শিকার হচ্ছে পর্যটকেরা। অপরদিকে ট্যুরিস্ট স্পটগুলোর ভ্রমণের ট্যুরিস্ট গাড়িগুলোর ভাড়াও অনেক বেশি। নীলগিরি ৪৭ কিলোমিটারের ভাড়া সাড়ে ৪ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত নিচ্ছে। এটি খুবই অস্বাভাবিক। পর্যটনশিল্পের বিকাশে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন এবং উন্নত পরিবহনগুলোর চলাচল অবাধ করার দাবি জানান তারা।

ঋতু বৈচিত্র্যের সঙ্গে বান্দরবানের রূপ বদলায়, সৌন্দর্যে আসে বৈচিত্র্য। তবে একেক ঋতুতে বান্দরবানের সৌন্দর্য একেক রকম। বর্ষায় পাহাড়ি জেলাটি রূপ লাবণ্য যেন ভিন্ন মাত্রায় ফুটে ওঠে। ধূলি ধুসরিত পরিবেশ হয়ে ওঠে স্বচ্ছ। নীলাচল, নীলগিরি, চিম্বুক, নীলদিগন্ত, ক্যাওক্রাডং, বগালেক, সাকাহাফং পাহাড়ের সবুজাভ চূড়ায় শুভ্র মেঘেদের বিচরণ। পাশাপাশি কয়েক হাজার ফুট ওপর থেকে নেমে আসা দামতুয়া, তিনাপ সাইতার, রিজুক, জাদিপাই, চিংড়ি, নাফাকুম, ঝুরঝুরি, শৈলপ্রপাতের ঝর্ণাধারার দৃশ্য যে কারোর নয়ন জুড়ায়। আবার শীতে অন্যরূপে হাজির হয় বান্দরবান। চারদিকে তখন সবুজের সমারোহ, পাহাড়ের চূড়ায় গহিন অরণ্য। সাঙ্গু ও মাতামুহুরী দুটি নদীর স্বচ্ছ জলে নৌ ভ্রমণ, অবগাহনের আনন্দই আলাদা।

জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম জানান, বৈচিত্র্যময় বান্দরবানের পর্যটনশিল্পের বিকাশে নতুন নতুন আরও কিছু দর্শনীয় পর্যটন স্পট খোঁজা হচ্ছে। দামতুয়া ট্যুরিস্ট স্পটের সৌন্দর্য বর্ধনে অবকাঠামোগত উন্নয়ন কাজ করা হচ্ছে। নিরাপত্তা এবং যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ পর্যটকদের জন্য প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধা বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে প্রশাসন। পর্যটকদের ভ্রমণে কোনো ধরনের ঝুঁকি নেই এখানে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×