পর্যটনে সম্ভাবনাময় নলবুনিয়ার চর

  মো. জসিম উদ্দিন সিকদার, আমতলী থেকে ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নলবুনিয়ার চর
নলবুনিয়ার চর। ফাইল ছবি

অপার সম্ভাবনাময় পর্যটন এলাকা তালতলীর নলবুনিয়ার চর। তালতলীর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বদরুদ্দোজা শুভর নামানুসারে এ চরের নাম রাখা হয় শুভ সন্ধ্যা সমুদ্রসৈকত পিকনিক স্পট।

বনবিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বরগুনার তালতলী উপকূলীয় বনবিভাগের আওতায় সিআরপিএআরপি প্রকল্পের নন ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল নৈসর্গিক প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি নলবুনিয়ার চর। ২০০৬ সালে সিআরপিএআরপি প্রকল্পের অর্থায়নে ৫৮ হেক্টর জমিতে নন ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল গড়ে তোলে বনবিভাগ। এ বনে ঝাউগাছ, আকাশমণি, অর্জুন, খইয়্যা বাবলা, মাউন্ট, কালি বাবলা, বাদাম, কড়ই ও খয়েরসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রয়েছে।

বঙ্গোপসাগরের কোলঘেঁষা দশ কিলোমিটার নলবুনিয়া বনাঞ্চল প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরূপ লীলাভূমি। এ বনাঞ্চলের সাগরপ্রান্তে দাঁড়িয়ে সূর্যোদ্বয় ও সূর্যাস্তের অপরূপ এবং মনোরম দৃশ্য উপভোগ করা যায়। শীত মৌসুমে এ পল্লীতে হাজারও পরিবার শুঁটকি শুকানোর কাজে ব্যস্ত থাকেন। এ স্থানে দূরদূরান্ত থেকে পর্যটকরা নৌ ও স্থলপথে আসছেন। পর্যটকদের জন্য সুন্দর ও মনোরম পরিবেশে সব ধরনের সুব্যবস্থা রয়েছে এখানে। ঘুরতে ঘুরতে অপরূপ সৌন্দর্যের প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে যায় দর্শনার্থী।

এ মনোমুগ্ধকর দর্শনীয় স্থানটিতে যেতে নেই কোনো সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। পর্যটকরা নৌপথে এ চরের দৃশ্য দেখতে আসেন। নেই কোনো হোটেল-মোটেল ও খাবার ব্যবস্থা। পর্যটকরা নিজেদের খাবার সঙ্গে করে নিয়ে আসতে হয়। প্রতিদিন এ শুভ সন্ধ্যা পিকনিক স্পটে শত শত পর্যটক দেখতে আসেন। পর্যটকদের দাবি সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো হলে নলবুনিয়া শুভ সন্ধ্যা পর্যটক স্থানটি সারা বছরই থাকবে সরগরম।

আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরমেয়র মতিয়ার রহমান বলেন, নলবুনিয়ার শুভ সন্ধ্যা সমুদ্রসৈকত পিকনিক এলাকা অতুলনীয়। সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এ পর্যটন এলাকা আরও সমৃদ্ধ হবে। তিনি বলেন, অপার সম্ভাবনাময় পর্যটন এলাকা নলবুনিয়ার চর দিন দিন প্রসারিত হচ্ছে। নলবুনিয়ার চর পর্যটন এলাকা হিসেবে ঘোষণার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানাই।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter