ফুসফুসে ক্যান্সার আক্রান্ত নারীর সংখ্যা বাড়ছে

  ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান ২৪ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ফুসফুসে ক্যান্সার আক্রান্ত নারীর সংখ্যা বাড়ছে

প্রাথমিক অবস্থায় ফুসফুস ক্যান্সারের সাধারণত কোনো লক্ষণ থাকে না। কাশির সঙ্গে রক্ত, কাশির কারণে কণ্ঠস্বর পরিবর্তন হয়ে যেতে পারে। কর্কশ, খসখসে হয়ে যেতে পারে কণ্ঠস্বর।

যদি দু’সপ্তাহের বেশি সময় ধরে কণ্ঠস্বরের পরিবর্তন থেকে যায়, হঠাৎ করে প্রায় ১০ পাউন্ড বা তার বেশি ওজন কমে যাওয়াও ফুসফুস ক্যান্সারের লক্ষণ হতে পারে। ডায়েট বা ব্যায়াম ছাড়া ওজন কমে যাওয়া ক্যান্সারের লক্ষণ।

ক্যান্সারের কোষ খাবারে শক্তি সব শুষে নিয়ে এবং অপ্রত্যাশিতভাবে ওজন কমিয়ে দিয়ে থাকে। খাওয়ায় অরুচি, চেস্ট পেইন, শতকরা ৫০ ভাগ মানুষের ফুসফুস ক্যান্সার ধরা পড়ে বুক এবং কাঁধের ব্যথা নির্ণয়ের মাধ্যমে।

ঘন ঘন নিউমোনিয়া বা ব্রঙ্কাইটিস আক্রান্ত হওয়া রোগীদের ফুসফুস ক্যান্সার হওয়ার আশঙ্কা বেশি থাকে। অনেক সময় টিউমার শ্বাসনালীর কাছে অবস্থান করে যার ফলে নিউমোনিয়া বা ব্রঙ্কাইটিস আক্রান্ত হওয়া রোগীদের ফুসফুস ক্যান্সার দেখা দিয়ে থাকে। দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করুন। ফুসফুস ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার কারণ হিসেবে ৮০ ভাগই দায়ী ধূমপান।

বিশ্বব্যাপী নারীদের মধ্যে ধূমপানের প্রবণতা বাড়ার কারণে মেয়েদের মধ্যে ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার হারও বাড়ছে। নারীদের মধ্যে ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার সংখ্যা বাড়ছে। নারীরা এডিনোকার্সিনোমা নামক ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়।

আমাদের দেশের নারীদের মধ্যে ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার বৃদ্ধির হার তাদের জীবনযাত্রার পরিবর্তন।

এখন মেয়েরা অনেক বেশি পথে-ঘাটে বের হচ্ছেন, কর্মজীবী হচ্ছেন। অনেকেই সিগারেট বা মদ্যপানে অভ্যস্ত হয়ে উঠছেন। তারা এখন অনেক বেশি পথে-ঘাটে ধোঁয়াধুলার মধ্যে কাজ করছেন।

প্রাথমিক অবস্থায় এ ক্যান্সার ফুসফুসের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে। লক্ষণ দেখা যায় না বলে এ স্টেজে খুব কম রোগী বুঝতে পারেন, তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। অন্য রোগের ক্ষেত্রে এক্স-রে করতে গিয়ে ধরা পড়তে পারে ফুসফুস ক্যান্সার।

প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ দুই ধরনের ধূমপান থেকে যতটা সম্ভব নিজেকে দূরে রাখুন। পরিবারে কারও ক্যান্সার থাকলে সতর্ক থাকুন। ৫০ বছর পরই এ ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি। বছরে একবার অবশ্যই হেলথ চেকআপ জরুরি।

লেখক : বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ, ইবনে সিনা ডায়াগনস্টিক ও কনসালটেশন সেন্টার, লালবাগ, ঢাকা

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×