ওপেন হার্ট সার্জারি ছাড়াই ভাল্বের ত্রুটি সংশোধন

  যুগান্তর ডেস্ক ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ওপেন হার্ট সার্জারি ছাড়াই ভাল্বের ত্রুটি সংশোধন

ভারতে সম্প্রতি প্রথমবারের মতো দিল্লির ফরটিস এসকর্টস হার্ট ইন্সটিটিউটে ৬৯ বছর বয়সী রোগীর দেহে ওপেন হার্ট সার্জারি ছাড়াই মাইট্রাক্লিপ নামক ক্যাথেটার বেসড কার্ডিয়াক প্রসিডিউরের মাধ্যমে হার্টের ভাল্বের ত্রুটি রিপিয়ার করা সম্ভব হয়েছে। এই ইন্সটিটিউটের চেয়ারম্যান ডা. অশোক শেঠের নেতৃত্বে একদল চিকিৎসক এ অনন্য সাফল্য অর্জন করেন। ভারতের চিকিৎসা ক্ষেত্রে এটি একটি যুগান্তকারী সাফল্য। এখন থেকে হার্টের ভাল্বের ত্রুটিযুক্ত রোগীরা ওপেন হার্ট সার্জারি ছাড়াই তাদের হার্টের ত্রুটি সারাতে পারবেন।

১৩ বছর আগে ৬৯ বছর বয়সী রোগীর একবার ওপেনহার্ট সার্জারি হয়েছিল। পরে হার্টের ভাল্বে মারাত্মক লিকেজ সৃষ্টি হয় ফলশ্রুতিতে হার্ট ফেইলিউর ডেভেলপ করে এবং হার্টের সাইজ ধীরে ধীরে বড় হতে থাকে। রোগী মারাত্মক শ্বাসকষ্ট এবং অত্যাধিক দুর্বলতায় ভুগছিলেন।

শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় এবার ওপেন হার্ট সার্জারি করা সম্ভব ছিল না এবং এ পর্যন্ত এ ধরনের সমস্যার সমাধান কেবল ওপেন হার্ট সার্জারির মাধ্যমেই করা যেত।

এখন থেকে রোগীরা কোনো ধরনের বড় কাটাছেঁড়া ছাড়াই এ সমস্যার সমাধান নিতে পারবেন। ডা. অশোক শেঠ বলেন, ‘মাইট্রাক্লিপ একটি যুগান্তকারী ক্যাথেটার বেসড কার্ডিয়াক প্রসিডিউর যেটা একটি সাধারণ এনজিওগ্রামের মতো পদ্ধতি যার মাধ্যমে কোনো ধরনের বড় কাটাছেঁড়া ছাড়াই হার্টের মাইট্রাল ভাল্বের ত্রুটি রিপিয়ার করা যায়।

এ পদ্ধতিতে রোগীর কুঁচকির শিরা দিয়ে একটি বিশেষ ধরনের ক্যাথেটার হার্টের চেম্বারে প্রবেশ করিয়ে পদ্ধতি চলাকালীন সময় ইকোকার্ডিওগ্রাফি এবং এক্সরের সহায়তায় হার্টের ত্রুটিযুক্ত ভাল্বে একটি ক্লিপ পরিয়ে ত্রুটিটি বা লিকেজটি সারিয়ে ফেলা হয়। এ পদ্ধতির পর রোগীরা ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা পর বাড়ি ফিরে যেতে পারেন।’

সম্প্রতি নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে প্রকাশিত ঈঙঅচঞ ট্রায়ালে দেখা যায়, মাইট্রাক্লিপ প্রসিডিউরের সুফল শুধু রোগীর সুস্থতা ও উপসর্গগুলোর উন্নতিতে সীমাবদ্ধ নয়, এর পাশাপাশি রোগীর বেঁচে থাকার সময় বাড়িয়ে দেয়।

ভারতে মাইট্রাক্লিপের প্রবর্তনের মাধ্যমে ওষুধ সত্ত্বেও ধীরে ধীরে লিকিং ভাল্ব থেকে ক্রমাগত শারীরিক অবনতির শিকার এবং ভাল্ব প্রতিস্থাপন সার্জারির জন্য অনুপযুক্ত এরকম অনেক রোগীর উপকারে আসবে বলে আশা করা যায়।

দিল্লির ফরটিস এসকর্টস হার্ট ইন্সটিটিউটের সহযোগিতায় বাংলাদেশের খুলনা, চট্টগ্রাম এবং কুমিল্লায় ৩টি বিশেষায়িত কার্ডিয়াক হাসপাতাল পরিচালিত হচ্ছে যেখানে হার্টে রিং পরানো, হার্ট সার্জারিসহ হার্ট সংক্রান্ত সব সেবা চালু আছে।

নতুন নতুন টেকনোলোজি এবং চিকিৎসা পদ্ধতি দিয়ে বাংলাদেশের হৃদরোগ চিকিৎসায় দিল্লির ফরটিস এসকর্টস হার্ট ইন্সটিটিউট সহায়তা করে যাচ্ছে এবং অদূর ভবিষ্যতে মাইট্রাক্লিপ পদ্ধতি বাংলাদেশেও চালু হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। -সুস্থ থাকুন ডেস্ক

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×