নরমাল ডেলিভারি গর্ভবতীর অধিকার
jugantor
নরমাল ডেলিভারি গর্ভবতীর অধিকার

  -সুস্থ থাকুন ডেস্ক  

২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালগুলো মায়েদের সিজারের পরিবর্তে নরমাল ডেলিভারিকে প্রধান্য দিচ্ছে।

বেসরকারি হাসপাতালগুলোর মধ্যে বিআরবি হাসপাতালের মাদার অ্যান্ড চাইল্ড বিভাগে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তত্ত্বাবধানে মায়েদের সব ধরনের গাইনি রোগের আধুনিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

গর্ভবতী মায়েদের নিরাপদ সন্তান প্রসব বলতে নরমাল ডেলিভারিকেই বুঝায়। আগে সন্তান জন্মদানের জন্য নরমাল ডেলিভারিই ছিল স্বাভাবিক প্রক্রিয়া, কিন্তু বর্তমানে সিজারের (অস্ত্রোপচার) মাধ্যমে সন্তান জন্মদান বহুগুণে বেড়েছে। সিজারের প্রবণতা বাড়ার অন্যতম কারণ আমাদের আধুনিক জীবন-যাপন ও মানসিক অবস্থা এবং নরমাল ডেলিভারিতে মায়েদের অনাকাঙ্ক্ষিত ভয় পাওয়া।

কিন্তু অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সন্তান জন্মদানের ফলে একজন মা সারাজীবন ভয়াবহ পরিণতির মধ্য দিয়ে পার করতে হয়, যা স্বাভাবিক জীবনের পরিপন্থী। সুস্থ স্বাভাবিক উপায়ে সন্তান জন্মদান মায়েদের অধিকার।

বাংলাদেশের হিসাবে বর্তমানে সিজারের হার প্রায় ৩০ শতাংশ, তবে শহরাঞ্চলে এই হার কয়েকগুণ বেশি। সন্তান প্রসবের ক্ষেত্রে অস্ত্রোপচারের অস্বাভাবিক হার বৃদ্ধির পেছনে মায়ের সার্বিক অবস্থা, সামাজিক অবস্থান, সেবাদানকারী ও চিকিৎসার প্রতুলতা, আইন ইত্যাদি যুক্ত। বর্তমানে গর্ভবতী মায়েদের নিরাপদ সন্তান প্রসবের জন্য বিশ্বমানের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার হচ্ছে। এসব প্রযুক্তির ব্যবহার প্রসূতি মায়েদের পরিচর্যা ও চিকিৎসায় আমূল পরিবর্তন সাধিত করেছে। মায়েদের নিরাপদ সন্তান প্রসবের জন্য নরমাল ডেলিভারির পাশাপাশি এখন দেশে পেইনলেস নরমাল ডেলিভারিও হচ্ছে যা মায়েদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এক নবদিগন্ত।

সেই সঙ্গে প্রসূতি মায়েদের সন্তান প্রসবের জন্য নরমাল ডেলিভারির পাশাপাশি পেইনলেস নরমাল ডেলিভারি ও সিজারিয়ান ডেলিভারিসহ অত্যাধুনিক সব চিকিৎসাসেবা প্রদান করছে।

বিআরবি হাসপাতালে প্রসূতি মায়েদের সেবায় রয়েছে একটি ‘সর্বাধুনিক নরমাল ডেলিভারি সেন্টার’ যা ২৪ ঘণ্টাই খোলা থাকে, যেন মায়েরা জরুরি মুহূর্তেও চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত না হয়। এই সেন্টরের অধীনে একটি বিশেষায়িত সেবা হল মায়েদের ‘পেইনলেস নরমাল ডেলিভারি’ যার ফলে একজন মা তার সন্তান প্রসবকালীন সম্পূর্ণ ব্যথ্যামুক্ত, নিরাপদ এবং কোনো রূপ জটিলতা ছাড়াই স্বাভাবিকভাবে তার সন্তান প্রসব করতে পারেন। এখানে বিশেষজ্ঞ কনসালটেন্ট-এর সরাসরি তত্ত্বাবধানে, দক্ষ রেজিস্ট্রার, মেডিকেল অফিসার, মিডওয়াফ এবং নার্স টিম দ্বারা পেইনলেস নরমাল ডেলিভারি করা হয়।

অভিজ্ঞ এনেস্থেসিওলজিস্ট দ্বারা ২৪ ঘণ্টা ইপিডুরাল ব্যবস্থা, নরমাল ডেলিভারি উপযোগী ব্যায়াম, প্রসব পরবর্তী মায়ের মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদান। তাছাড়া মায়েদের প্রসব পূর্ববর্তী, প্রসবকালীন ও পরবর্তী সেবাসহ সব ধরনের গাইনি রোগের সমন্বিত চিকিৎসা নিয়মিত প্রদান হয়। বর্তমানে গড়ে প্রতি মাসে ৮০-১০০ জনের নরমাল ডেলিভারি হচ্ছে বিআরবি হাসপাতালে।

বিআরবি হাসপাতালের নরমাল ডেলিভারি সেন্টার থেকে আপনার কাঙ্ক্ষিত সেবা পেতে আপনি ১০৬৪৭ নম্বরে অথবা ৭৭/এ, পান্থপথ, ঢাকায় হাসপাতালে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন।

নরমাল ডেলিভারি গর্ভবতীর অধিকার

 -সুস্থ থাকুন ডেস্ক 
২৩ জানুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালগুলো মায়েদের সিজারের পরিবর্তে নরমাল ডেলিভারিকে প্রধান্য দিচ্ছে।

বেসরকারি হাসপাতালগুলোর মধ্যে বিআরবি হাসপাতালের মাদার অ্যান্ড চাইল্ড বিভাগে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তত্ত্বাবধানে মায়েদের সব ধরনের গাইনি রোগের আধুনিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

গর্ভবতী মায়েদের নিরাপদ সন্তান প্রসব বলতে নরমাল ডেলিভারিকেই বুঝায়। আগে সন্তান জন্মদানের জন্য নরমাল ডেলিভারিই ছিল স্বাভাবিক প্রক্রিয়া, কিন্তু বর্তমানে সিজারের (অস্ত্রোপচার) মাধ্যমে সন্তান জন্মদান বহুগুণে বেড়েছে। সিজারের প্রবণতা বাড়ার অন্যতম কারণ আমাদের আধুনিক জীবন-যাপন ও মানসিক অবস্থা এবং নরমাল ডেলিভারিতে মায়েদের অনাকাঙ্ক্ষিত ভয় পাওয়া।

কিন্তু অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সন্তান জন্মদানের ফলে একজন মা সারাজীবন ভয়াবহ পরিণতির মধ্য দিয়ে পার করতে হয়, যা স্বাভাবিক জীবনের পরিপন্থী। সুস্থ স্বাভাবিক উপায়ে সন্তান জন্মদান মায়েদের অধিকার।

বাংলাদেশের হিসাবে বর্তমানে সিজারের হার প্রায় ৩০ শতাংশ, তবে শহরাঞ্চলে এই হার কয়েকগুণ বেশি। সন্তান প্রসবের ক্ষেত্রে অস্ত্রোপচারের অস্বাভাবিক হার বৃদ্ধির পেছনে মায়ের সার্বিক অবস্থা, সামাজিক অবস্থান, সেবাদানকারী ও চিকিৎসার প্রতুলতা, আইন ইত্যাদি যুক্ত। বর্তমানে গর্ভবতী মায়েদের নিরাপদ সন্তান প্রসবের জন্য বিশ্বমানের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার হচ্ছে। এসব প্রযুক্তির ব্যবহার প্রসূতি মায়েদের পরিচর্যা ও চিকিৎসায় আমূল পরিবর্তন সাধিত করেছে। মায়েদের নিরাপদ সন্তান প্রসবের জন্য নরমাল ডেলিভারির পাশাপাশি এখন দেশে পেইনলেস নরমাল ডেলিভারিও হচ্ছে যা মায়েদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এক নবদিগন্ত।

সেই সঙ্গে প্রসূতি মায়েদের সন্তান প্রসবের জন্য নরমাল ডেলিভারির পাশাপাশি পেইনলেস নরমাল ডেলিভারি ও সিজারিয়ান ডেলিভারিসহ অত্যাধুনিক সব চিকিৎসাসেবা প্রদান করছে।

বিআরবি হাসপাতালে প্রসূতি মায়েদের সেবায় রয়েছে একটি ‘সর্বাধুনিক নরমাল ডেলিভারি সেন্টার’ যা ২৪ ঘণ্টাই খোলা থাকে, যেন মায়েরা জরুরি মুহূর্তেও চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত না হয়। এই সেন্টরের অধীনে একটি বিশেষায়িত সেবা হল মায়েদের ‘পেইনলেস নরমাল ডেলিভারি’ যার ফলে একজন মা তার সন্তান প্রসবকালীন সম্পূর্ণ ব্যথ্যামুক্ত, নিরাপদ এবং কোনো রূপ জটিলতা ছাড়াই স্বাভাবিকভাবে তার সন্তান প্রসব করতে পারেন। এখানে বিশেষজ্ঞ কনসালটেন্ট-এর সরাসরি তত্ত্বাবধানে, দক্ষ রেজিস্ট্রার, মেডিকেল অফিসার, মিডওয়াফ এবং নার্স টিম দ্বারা পেইনলেস নরমাল ডেলিভারি করা হয়।

অভিজ্ঞ এনেস্থেসিওলজিস্ট দ্বারা ২৪ ঘণ্টা ইপিডুরাল ব্যবস্থা, নরমাল ডেলিভারি উপযোগী ব্যায়াম, প্রসব পরবর্তী মায়ের মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদান। তাছাড়া মায়েদের প্রসব পূর্ববর্তী, প্রসবকালীন ও পরবর্তী সেবাসহ সব ধরনের গাইনি রোগের সমন্বিত চিকিৎসা নিয়মিত প্রদান হয়। বর্তমানে গড়ে প্রতি মাসে ৮০-১০০ জনের নরমাল ডেলিভারি হচ্ছে বিআরবি হাসপাতালে।

বিআরবি হাসপাতালের নরমাল ডেলিভারি সেন্টার থেকে আপনার কাঙ্ক্ষিত সেবা পেতে আপনি ১০৬৪৭ নম্বরে অথবা ৭৭/এ, পান্থপথ, ঢাকায় হাসপাতালে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন।