রান্নায় স্বাস্থ্যকর তেল

প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  অধ্যাপক ডা. মো. তৌফিকুর রহমান ফারুক

ছবি- সংগৃহীত

মিসেস জামান ৪৫ বছর বয়স, গত ৪ বছর ধরে ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন। হৃদরোগ প্রতিরোধের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণের পরামর্শ দিলে তিনি রান্নার তেল ব্যবহারের ব্যাপারে কিছু পরামর্শ চান।

রান্নায় কী কী ধরনের তেল ব্যবহার স্বাস্থ্যকর

রান্নায় উদ্ভিজ্জাত তেল বিশেষ করে সানফ্লাওয়ার ওয়েল, সয়াবিন তেল, ক্যানোলা ওয়েল, কর্ণ তেল, ওলিভ ওয়েল, বাদামের তেল, সানফ্লাওয়ার তেল ব্যবহার স্বাস্থ্যকর।

আর কী কী ধরনের তেল স্বাস্থ্যকর

অ্যাভোক্যাডো তেল, গ্রেপসিড তেল, রাইস ব্রান তেল ও তিলের তেল স্বাস্থ্যকর কিন্তু এগুলো বেশি দামি ও কম পাওয়া যায়।

উদ্ভিজ্জাত তেল স্বাস্থ্যকর কেন

উদ্ভিজ্জাত তেল ব্যবহার হৃদরোগ প্রতিরোধক, কারণ এতে প্রচুর অসম্পৃক্ত চর্বি বা ফ্যাটি এসিড থাকে যা রক্তে ভালো কোলেস্টেরল বা এইচডিএল এর মাত্রা বাড়ায়। রক্তের ভালো কোলেস্টেরল বা এইচডিএল হৃদযন্ত্রের করোনারি রক্তনালিতে ও অন্যান্য রক্তনালিতে ব্লক হওয়ার আশঙ্কা কমায়, ফলে হার্ট অ্যাটাক, মস্তিষ্কে স্ট্রোক ও হাত-পায়ের পচন বা গ্যাংগ্রিন হওয়ার ঝুঁকি কমায়।

ট্রান্স ফ্যাট ও হাইড্রোজেনেটেড তেল কি- এগুলো ব্যবহার কি স্বাস্থ্যকর

বারবার একই তেল ব্যবহার করলে তাপের কারণে তেলের মধ্যে ট্রান্স ফ্যাট ও হাইড্রোজেনেটেড তেল তৈরি হয় যা স্বাস্থ্যকর নয়। তাই তেল একবার কোনো কিছু ভাজা বা অন্য কাজে ব্যবহারের পর তা বর্জন করা উচিত।

ট্রপিক্যাল তেল কী

পামওয়েল ও নারকেল তেলকে ট্রপিক্যাল তেল বলে। ট্রপিক্যাল উদ্ভিজ্জ তেল যেমন পামওয়েল, নারকেল তেল খাওয়া স্বাস্থ্যকর নয়, কারণ ট্রপিক্যাল উদ্ভিজ্জ তেলে প্রচুর সম্পৃক্ত চর্বি বা ফ্যাটি এসিড থাকে যা রক্তে খারাপ কোলেস্টেরল বা এলডিএল এর মাত্রা বাড়ায়।

সলিড ফ্যাট বা শক্ত চর্বি কী স্বাস্থ্যকর

লার্ড এবং মার্জারিন স্বাস্থ্যকর নয় কারণ এগুলোতে প্রচুর পরিমাণে সম্পৃক্ত চর্বি বা ফ্যাটি এসিড থাকে যা রক্তে খারাপ কোলেস্টেরল বা এলডিএল এর মাত্রা বাড়ায় যা হৃদযন্ত্রের করোনারি রক্তনালিতে ও অন্যান্য রক্তনালিতে ব্লক হওয়ার আশঙ্কা বাড়ায়।

লেখক : অধ্যাপক, কার্ডিওলজি, জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও হাসপাতাল, ঢাকা