রাষ্ট্রের ভবিষ্যৎ প্রতিটি শিশুই
jugantor
রাষ্ট্রের ভবিষ্যৎ প্রতিটি শিশুই

  রীতা ভৌমিক  

১২ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

একজন শিশু শুধু একটি পরিবারের দায়িত্ব না; প্রতিটি শিশু একটি রাষ্ট্রের ভবিষ্যৎ। এ শিশুদের মেধা বিকাশ, তাদের শারীরিক ও মানসিক সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে না পারলে দেশ এগুতে পারবে না। শিশুদের এগিয়ে যাওয়ার এ পথ সুগম করতে সরকার সব সময় ইতিবাচক উদ্যোগ নিচ্ছে।

এছাড়া শিশুদের লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক নানা শিক্ষা প্রদানের জন্য জেনারেশন ব্রেকথ্রু প্রকল্প কাজ করছে। সরকার শিশুদের যথাযথ বিকাশ ও শিক্ষার পরিবেশ নিশ্চিত করতেও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এ প্রসঙ্গে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক বলেন, দেশের ২০ হাজার স্কুল ও মাদ্রাসার শিক্ষা কার্যক্রমে লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে।

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের হেড অব এডুকেশন প্রোগ্রাম মুরশিদ আক্তার জানান, লিঙ্গ সমতা ও প্রজননস্বাস্থ্য সূচকের গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি সত্ত্বেও লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক সঠিক জ্ঞানের অভাবে বাংলাদেশের কিশোর-কিশোরীরা লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতার শিকার হচ্ছে। শৈশবে দেখে আসা লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্যমূলক নিয়মের কারণে ছেলেমেয়ে এবং কিশোর-কিশোরীদের একটি বড় অংশ লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতার শিকার হয়। যৌন এবং প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক অধিকারের অভাবে এইচআইভি, অযাচিত গর্ভধারণ, মাতৃমৃত্যু, অনিরাপদ গর্ভপাত এবং বাল্যবিয়ের হার বাড়ছে।

ঢাকা, বরিশাল, পটুয়াখালী এবং বরগুনা জেলার ৩০০টি বিদ্যালয়ে এবং ৫০টি মাদ্রাসায় ‘জেনারেশন ব্রেকথ্রু’ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। বিদ্যালয়ে এবং মাদ্রাসায় বিভিন্ন শিক্ষামূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে কিশোর-কিশোরীদের প্রজননস্বাস্থ্য সেবা অধিকার, লিঙ্গবিষয়ক সহিংসতা এবং লিঙ্গ সমতাবিষয়ক শিক্ষা প্রদান করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে প্রকল্পের আওতায়, জেন্ডার ইক্যুটিবল মুভমেন্ট ইন স্কুল (জিইএমএস) ম্যানুয়ালটি জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড-এর অনুমোদনক্রমে ৩০০টি বিদ্যালয় এবং ৫০টি মাদ্রাসার শিক্ষা কার্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

জেনারেশন ব্রেকথ্রু প্রকল্প কম্পিউটার গেমস ও বোর্ড গেমসের ব্যবহার করে ১০-১৯ বছরের কিশোর-কিশোরীদের লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক শিক্ষা প্রদান, বোর্ড গেম, বিদ্যালয়ে এবং মাদ্রাসাভিত্তিক কিশোর-কিশোরী ক্লাব ও জিইএমএস শ্রেণিকক্ষ ইত্যাদি নানা প্রদর্শনীর মাধ্যমে তুলে ধরে।

রাষ্ট্রের ভবিষ্যৎ প্রতিটি শিশুই

 রীতা ভৌমিক 
১২ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

একজন শিশু শুধু একটি পরিবারের দায়িত্ব না; প্রতিটি শিশু একটি রাষ্ট্রের ভবিষ্যৎ। এ শিশুদের মেধা বিকাশ, তাদের শারীরিক ও মানসিক সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে না পারলে দেশ এগুতে পারবে না। শিশুদের এগিয়ে যাওয়ার এ পথ সুগম করতে সরকার সব সময় ইতিবাচক উদ্যোগ নিচ্ছে।

এছাড়া শিশুদের লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক নানা শিক্ষা প্রদানের জন্য জেনারেশন ব্রেকথ্রু প্রকল্প কাজ করছে। সরকার শিশুদের যথাযথ বিকাশ ও শিক্ষার পরিবেশ নিশ্চিত করতেও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এ প্রসঙ্গে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক বলেন, দেশের ২০ হাজার স্কুল ও মাদ্রাসার শিক্ষা কার্যক্রমে লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে।

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের হেড অব এডুকেশন প্রোগ্রাম মুরশিদ আক্তার জানান, লিঙ্গ সমতা ও প্রজননস্বাস্থ্য সূচকের গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি সত্ত্বেও লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক সঠিক জ্ঞানের অভাবে বাংলাদেশের কিশোর-কিশোরীরা লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতার শিকার হচ্ছে। শৈশবে দেখে আসা লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্যমূলক নিয়মের কারণে ছেলেমেয়ে এবং কিশোর-কিশোরীদের একটি বড় অংশ লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতার শিকার হয়। যৌন এবং প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক অধিকারের অভাবে এইচআইভি, অযাচিত গর্ভধারণ, মাতৃমৃত্যু, অনিরাপদ গর্ভপাত এবং বাল্যবিয়ের হার বাড়ছে।

ঢাকা, বরিশাল, পটুয়াখালী এবং বরগুনা জেলার ৩০০টি বিদ্যালয়ে এবং ৫০টি মাদ্রাসায় ‘জেনারেশন ব্রেকথ্রু’ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। বিদ্যালয়ে এবং মাদ্রাসায় বিভিন্ন শিক্ষামূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে কিশোর-কিশোরীদের প্রজননস্বাস্থ্য সেবা অধিকার, লিঙ্গবিষয়ক সহিংসতা এবং লিঙ্গ সমতাবিষয়ক শিক্ষা প্রদান করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে প্রকল্পের আওতায়, জেন্ডার ইক্যুটিবল মুভমেন্ট ইন স্কুল (জিইএমএস) ম্যানুয়ালটি জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড-এর অনুমোদনক্রমে ৩০০টি বিদ্যালয় এবং ৫০টি মাদ্রাসার শিক্ষা কার্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

জেনারেশন ব্রেকথ্রু প্রকল্প কম্পিউটার গেমস ও বোর্ড গেমসের ব্যবহার করে ১০-১৯ বছরের কিশোর-কিশোরীদের লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য সেবাবিষয়ক শিক্ষা প্রদান, বোর্ড গেম, বিদ্যালয়ে এবং মাদ্রাসাভিত্তিক কিশোর-কিশোরী ক্লাব ও জিইএমএস শ্রেণিকক্ষ ইত্যাদি নানা প্রদর্শনীর মাধ্যমে তুলে ধরে।