তৃণমূল পর্যায়ের নারীদের হাতের নাগালে তথ্যসেবা
jugantor
তৃণমূল পর্যায়ের নারীদের হাতের নাগালে তথ্যসেবা
বাগেরহাটের চিতলমারীতে তথ্য আপার মাধ্যমে ঘরে বসেই তথ্য সেবা পাচ্ছেন তৃণমূল পর্যায়ের নারীরা। লিখেছেন-

  শফিকুল ইসলাম সাফা  

১০ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাগেরহাটের চিতলমারীতে ঘরে বসে তথ্য আপা সেবা পাচ্ছেন তৃণমূল পর্যায়ের গ্রামীণ নারীরা। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে তারা সহজেই বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন। মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় মহিলা সংস্থা কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন তথ্য আপা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিতায়নে, সমাজে জেন্ডার বৈষম্য দূর করতে তথ্যপ্রযুক্তির সুবিধা গ্রহণ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। নারীর ভাগ্যবদলের এ সরকারি উদ্যোগ চিতলমারীর নারীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। বিনামূল্যে নারীদের তথ্য প্রযুক্তিভিত্তিক সেবা প্রদানের মাধ্যমে চাকরির আবেদনপত্র পূরণ, ভর্তি পরীক্ষার ফরম পূরণ, বিভিন্ন পরীক্ষার ফলাফল ই-মেইল, মেসেঞ্জার, স্কাইপির সাহায্যে যোগাযোগ, কৃষি, শিক্ষা, ব্যবসা ইত্যাদি সংক্রান্ত পরামর্শ প্রদান, আইনি সহায়তার পরামর্শ প্রদান, নারীদের ডায়াবেটিকস পরীক্ষা, রক্তচাপ পরীক্ষা, তাপমাত্রা, ওজন মাপাসহ গ্রামীণ নারীদের উৎপাদিত ও সংগৃহীত পণ্য বিক্রয়ের জন্য www.IaaIsobuj.com মার্কেট প্লেস পরিচালনা ডোর টু ডোর পদ্ধতিতে এবং উঠান বৈঠকের মাধ্যমে প্রদান করা হয়। এই সেবা গ্রহণের মাধ্যমে তৃণমূলে নারীরা সমাজ উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখছেন।

এ প্রসঙ্গে তথ্য সেবা কর্মকর্তা মোসা. মুর্শিদা আক্তার জানান, এখানে ইন্টারনেট সুবিধাবঞ্চিত নারীদের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন তথ্য সেবা দিয়ে সহযোগিতা করেন তারা। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নের উদ্দেশ্যে এ প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। এ উপজেলায় গত আড়াই বছরে ২৫ হাজার ৩৫৬ জন নারী বিনামূল্যে এই সেবা গ্রহণ করেছেন। এর মধ্যে উঠান বৈঠক হয়েছে ৪৫টি, ডোর টু ডোর থেকে ১৮ হাজার ৫০০ জন এবং তথ্য কেন্দ্র থেকে ৪৭০ জন সেবা গ্রহণ করেছেন।

তৃণমূল পর্যায়ের নারীদের হাতের নাগালে তথ্যসেবা

বাগেরহাটের চিতলমারীতে তথ্য আপার মাধ্যমে ঘরে বসেই তথ্য সেবা পাচ্ছেন তৃণমূল পর্যায়ের নারীরা। লিখেছেন-
 শফিকুল ইসলাম সাফা 
১০ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাগেরহাটের চিতলমারীতে ঘরে বসে তথ্য আপা সেবা পাচ্ছেন তৃণমূল পর্যায়ের গ্রামীণ নারীরা। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে তারা সহজেই বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন। মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় মহিলা সংস্থা কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন তথ্য আপা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিতায়নে, সমাজে জেন্ডার বৈষম্য দূর করতে তথ্যপ্রযুক্তির সুবিধা গ্রহণ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। নারীর ভাগ্যবদলের এ সরকারি উদ্যোগ চিতলমারীর নারীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। বিনামূল্যে নারীদের তথ্য প্রযুক্তিভিত্তিক সেবা প্রদানের মাধ্যমে চাকরির আবেদনপত্র পূরণ, ভর্তি পরীক্ষার ফরম পূরণ, বিভিন্ন পরীক্ষার ফলাফল ই-মেইল, মেসেঞ্জার, স্কাইপির সাহায্যে যোগাযোগ, কৃষি, শিক্ষা, ব্যবসা ইত্যাদি সংক্রান্ত পরামর্শ প্রদান, আইনি সহায়তার পরামর্শ প্রদান, নারীদের ডায়াবেটিকস পরীক্ষা, রক্তচাপ পরীক্ষা, তাপমাত্রা, ওজন মাপাসহ গ্রামীণ নারীদের উৎপাদিত ও সংগৃহীত পণ্য বিক্রয়ের জন্য www.IaaIsobuj.com মার্কেট প্লেস পরিচালনা ডোর টু ডোর পদ্ধতিতে এবং উঠান বৈঠকের মাধ্যমে প্রদান করা হয়। এই সেবা গ্রহণের মাধ্যমে তৃণমূলে নারীরা সমাজ উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখছেন।

এ প্রসঙ্গে তথ্য সেবা কর্মকর্তা মোসা. মুর্শিদা আক্তার জানান, এখানে ইন্টারনেট সুবিধাবঞ্চিত নারীদের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন তথ্য সেবা দিয়ে সহযোগিতা করেন তারা। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নের উদ্দেশ্যে এ প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। এ উপজেলায় গত আড়াই বছরে ২৫ হাজার ৩৫৬ জন নারী বিনামূল্যে এই সেবা গ্রহণ করেছেন। এর মধ্যে উঠান বৈঠক হয়েছে ৪৫টি, ডোর টু ডোর থেকে ১৮ হাজার ৫০০ জন এবং তথ্য কেন্দ্র থেকে ৪৭০ জন সেবা গ্রহণ করেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন