ব্যস্ততা তবু দেয় না অবসর

  এইচ সাইদুল ০৮ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এ সময়ের ব্যস্ত অভিনেত্রী নাদিয়া আহমেদ
এ সময়ের ব্যস্ত অভিনেত্রী নাদিয়া আহমেদ

এ সময়ের ব্যস্ত অভিনেত্রী নাদিয়া আহমেদ। বেশ কিছুদিন মার্কিন মুলুকে কাটিয়েছেন। কোরবানির ঈদের পর দেশে ফিরেছেন। ফিরেই আগের কিছুসহ নতুন কয়েকটি ধারাবাহিক নাটকের শুটিং করছেন নিয়মিত।

অভিনয়ের পাশাপাশি বিশেষ দিনের নতৃানুষ্ঠানেও দেখা যায় তাকে। অভিনয়, নাচ ও সংসার জীবন নিয়ে সম্প্রতি তারাঝিলমিলের মুখোমুখি হয়েছেন। গল্পচ্ছলে জানিয়েছেন না বলা অনেক কথা। তাকে নিয়ে লিখেছেন-

টিভি নাটকে মিষ্টি হাসির এক দক্ষ অভিনেত্রীর নাম নাদিয়া আহমেদ। খুব বেশি বিশ্লেষণ দিয়ে তাকে পরিচিত করানোর প্রয়োজন নেই। স্বনামেই পরিচিত তিনি। নাচ দিয়েই যার ক্যারিয়ার শুরু।

দীর্ঘদিন টেলিভিশনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে শিশুশিল্পী হিসেবে তার নাচ দেখে মুগ্ধ হয়েছেন দর্শক। তারপরই বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে মডেলিং করে দর্শকদের নজরে আসেন। সেই সূত্রেই নিজেকে অভিনয়ে প্রতিষ্ঠিত করতে বেশি সময় লাগেনি এ অভিনেত্রীর। নিয়মিত অভিনয়ের পাশাপাশি নৃত্যচর্চা করে চলেছেন। নাচের স্কুলের সঙ্গেও জড়িত রয়েছেন তিনি। এ মুহূর্তে কয়েকটি খণ্ড ও ধারাবাহিক নাটকে অভিনয়ে নিয়মিত ব্যস্ততার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন।

নাদিয়ার অভিনয় জগতে পথচলা শুরু হয় ১৯৯৯ সালে। ‘বারো রকম মানুষ’ নামে বিটিভির একটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমেই এ জগতে পা রাখেন।

প্রথম ধারাবাহিকেই আলোচনায় আসেন তিনি। এরপর তো শুধুই তার সফলতার ইতিহাস। তবে সহজেই এ পথে জনপ্রিয়তা আসেনি। অনেক চড়াই উতরাই পাড়ি দিয়ে দেড় যুগ ধরে নিজের জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছেন এ অভিনেত্রী। একজন শিল্পীকে তার ভালো কাজের মধ্য দিয়ে দর্শকের কাছে গ্রহণযোগ্যতা ধরে রাখতে হয়। এমনটিই মনে করেন জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী।

তিনি বলেন, ‘দর্শকদের কাছে জনপ্রিয়তা এবং গ্রহণযোগ্যতা ধরে রাখতে ভালো কাজের বিকল্প নেই। সংখ্যাকে প্রাধান্য দেয়ার কোনো মানে হয় না। যে কাজই করা হোক সেটি যেন ভালো ও মানসম্মত হয় এটিই মুখ্য বিষয়।’

নাদিয়া বলেন, ‘অনেকেই শুধু তারকাখ্যাতির জন্যই কাজ করেন। তারকা হওয়ার জন্য আমি কাজ করি না। কাজ করতে গিয়ে আগে গল্প শুনি। নিজের চরিত্র সম্পর্কে জানি। তারপর কাজে মনোযোগী হই।

রাতারাতি তারকা বনে যাওয়ার মোহ নিয়ে কাজ করার কোনো মানে হয় না। কম হোক, ভালো কাজ করলে দর্শক অবশ্যই তা গ্রহণ করবে এবং ভালো কাজ করা অভিনেতাকে স্মরণ করবে। ভালো গল্পের নাটকে কাজ করে এসেছি এতদিন। দর্শক হয়তো সে কারণেই আমাকে ভালোবাসেন। আমার অভিনয় দেখেন। ফেসবুকে, মোবাইলে মেসেজ করেন। তাদের ভালোবাসায় আরও ভালো অভিনয় করতে ইচ্ছা করে।’

কোরবানির ঈদের আগেই নাদিয়া আমেরিকায় বসবাসরত তার বাবা-মায়ের কাছে বেড়াতে যান। জন্মদিনটাও সে দেশেই কাটান। সেখানে বেশ কিছুদিন থাকার পর অক্টোবরের শুরুতে দেশে ফেরেন।

এসেই আবারও ব্যস্ত হয়ে উঠেছেন অভিনয় নিয়ে। গত মাস থেকে আরটিভিতে প্রচার শুরু হয়েছে তার অভিনীত ‘অর্ধেক সত্য’ নামে ধারাবাহিক নাটক। এটি নির্মাণ করেছেন অঞ্জন আইচ। আসছে ১৬ নভেম্বর থেকে বাংলাভিশনে প্রচার হবে তার অভিনীত ‘চাটাম ঘর’ নামে আরেকটি ধারাবাহিক নাটক। এটি নির্মাণ করেছেন শামীম জামান।

২২ নভেম্বর থেকে এশিয়ান টিভিতে প্রচার শুরু হবে তার অভিনীত ‘সব জান্তা শমসের’। এটিও নির্মাণ করেছেন শামীম জামান। এদিকে নাদিয়া যোগ দিয়েছেন এনটিভিতে প্রচার চলতি ‘মিস্টার টেনশন’ ধারাবাহিক নাটকে। সবগুলো ধারবাহিক নাটকে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে নাদিয়া বলেন, ‘অর্ধেক সত্য’ ধারাবাহিকটি থ্রিলারধর্মী।

এটিতে আমি অভিনয় করেছি মোশাররফ করিমের বিপরীতে। এ ছাড়া শামীম জামানের নাটকে অন্যরকম একটা আনন্দ থাকে। ‘চাটামঘর’ ও ‘সবজান্তা শমসের’ নিয়ে আমি আশাবাদী।

আশা করছি নাটক দুটি প্রচারে এলে দর্শকদের চাহিদা পূরণ করবে। ‘মিস্টার টেনশন’ নাটকটিতে আমার চরিত্রেও ভিন্নতা রয়েছে। দর্শকদের চাহিদা মাথায় রেখেই অভিনয় করেছি। আশা করছি দর্শকদেরও ভালো লাগবে।’

দর্শক মহলে নাচ-অভিনয়ে সাড়া জাগানো এ অভিনেত্রী ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে অভিনয়শিল্পী নাঈমের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। বিয়ের পর থেকে ঘুরে বেড়িয়েছেন অনেক জায়গাতেই। যদিও এখনও ভ্রমণ শেষ হয়নি, চলছে। সংসার জীবনেও মিষ্টি সময় পার করছেন এ জুটি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×