শুটিং স্পট

তৌসিফের অপেক্ষায় পার্কে বসেছিলেন টয়া

  তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক ১৪ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তখন দুপুর গড়িয়ে বিকাল। রাজধানীর উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের পার্কের ঠিক মাঝখানের জায়গায় একা বসে আছেন মুমতাহিনা টয়া। চোখে মুখে প্রচণ্ড বিরক্তি। মোবাইলে দৃষ্টি থাকলেও আনমনা হয়ে বারবার এদিক ওদিক তাকাচ্ছিলেন। দিনদুপুরে মশাও বেশ উৎপাত করছিল। উৎসাহী দু-এক জোড়া চোখ তার দিকে দৃষ্টি দিয়ে আবারও পা বাড়াচ্ছেন নিজ গন্তব্যে। এভাবেই কিছুক্ষণ একা বসেছিলেন টয়া। মনে হচ্ছিল যেন কারও প্রতীক্ষায় আছেন। সুনসান সেই নীরবতা ভেঙে হঠাৎ তৌসিফের আগমন ঘটে সেখানে। পূর্ব কোনো ঘটনার জেরে টয়া তৌসিফের সঙ্গে ঠিকমতো কথাই বলছিলেন না। ঠিক এ সময়ের ‘কাট’ শব্দ শোনা যেতেই দু’জনে স্বাভাবিক হলেন। বোঝা গেল শুটিং হচ্ছিল এখানে। সামনে এগিয়ে যেতেই পার্কের রাস্তাঘেঁষা একটি জায়গা থেকে উঠে এলেন পরিচালক। ততক্ষণে টয়ার সেই বিরক্তির ভাবটা আর নেই। হাস্যোজ্জ্বল ভঙ্গিতেই তৌসিফের দিকে টিপ্পনী কেটে বলেন, ‘তোমাকে তো পাত্তাই দিলাম না। ব্যাপারটা খুব এনজয় করেছি।’ পাশ থেকে তৌসিফ বলেন, ‘আরে ধুর, আমিও পাত্তা দিয়ে চলি না বুঝেছ।’ তাদের কথার লাগাম টেনে ধরলেন পরিচালক। পরবর্তী দৃশ্য ধারণের জন্য দু’জনের করণীয় কী, তা বুঝিয়ে দিলেন। এবার দু’জনই চোখের নিমিষে উধাও। পরিচালক একটু পর খোঁজ নিয়ে জানালেন, তারা পাশের এক বাড়িতে পোশাক পরিবর্তনের কাজে ব্যস্ত। এরই মধ্যে পরিচালক জাকিউল ইসলাম রিপন জানালেন নাটকের অদ্যোপান্ত। নাম ‘ব্যথা’। রচনা করেছেন শফিকুর রহমান শান্তনু। মূলত দু’জন মানুষের বন্ধুত্ব এবং প্রেম নিয়ে নাটকের মূল গল্প তৈরি করা হয়েছে। গল্পে তৌসিফ ও টয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী। ক্যাম্পাস জীবনের শুরু থেকেই তাদের মধ্যে দারুণ বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। এক সময় সেই বন্ধুত্ব প্রেমে রূপ নেয়। এক সময় সেই সম্পর্কে ছেদ ঘটে। প্রতিশোধের ছোঁয়াও থাকে তাতে।

কিছুক্ষণ পর তৌসিফ ফিরে এলেন একটি টি-শার্ট পরে, টয়ার পরনে শাড়ি। পাশ থেকে তৌসিফ টয়াকে দুষ্টুমি করে বলেন, ‘এত সুন্দর করে সেজে এসে লাভ নেই। কারণ আমি বিবাহিত।’ প্রতি উত্তরে টয়া বলেন, ‘তোমাকে আমার একদম পছন্দ নয়।’ তাদের এসব কথা শুনে উপস্থিত শুটিং সেটের প্রায় সবাই হেসে ওঠেন। পরিচালকের নির্দেশে পরবর্তী দৃশ্য ধারণের কাজে ব্যস্ত হয়ে ওঠেন তৌসিফ ও টয়া। বিকাল থেকে সন্ধ্যা গড়িয়ে রাত হয়ে যায়। সেখান থেকে ১৩ নম্বরে আপনঘর শুটিং হাউসে চলে আসে পুরো ইউনিট। নাটকটি শিগগিরই একটি বেসরকারি টেলিভিশনে প্রচার হবে বলে পরিচালক জানান।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×