ফের শাকিব খান

  তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক ২৭ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এবারের ঈদে ‘পাসওয়ার্ড’ ছবি দিয়ে বাজিমাত করেছেন দেশ সেরা চিত্রনায়ক শাকিব খান। এ সফলতার পর তার প্রযোজনা সংস্থা থেকে আরও চারটি নতুন ছবি তৈরির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। চারটি ছবির মধ্যে একটি পাসওয়ার্ডের সিক্যুয়াল। অন্যগুলো হচ্ছে- ‘বীর, ফাইটার ও প্রিয়তমা। এর মধ্যে ‘প্রিয়তমা’ পরিচালনা করবেন হিমেল আশরাফ। ‘বীর’ পরিচালনা করবেন কাজী হায়াৎ ও ‘ফাইটার’ বদিউল আলম খোকন। শাকিব খানের প্রযোজনায় চার ছবির আনুষ্ঠানিক ঘোষণার পর ঢাকাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি নড়েচড়ে উঠেছে। তবে একসঙ্গে চার ছবি নিয়ে মাঠে নামার বিষয়ে কী ভাবছেন এ নায়ক। শাকিব খান বলেন, ‘চাইলেই কিন্তু আমি এবারের ঈদে কয়েকটি কো-প্রডাকশনের কাজ করতে পারতাম। কিন্তু সেটা যদি করতাম তাহলে ইন্ডাস্ট্রিতে তালা পড়ে যেত। তাই পাসওয়ার্ড নিয়ে পরিকল্পনা করলাম। টাকা-পয়সা কী আসবে না আসবে সেটা নিয়ে চিন্তা করিনি। আমার মাথায় ছিল আগে ইন্ডাস্ট্রি বাঁচাতে হবে। মুক্তির পর দর্শকরা যেভাবে আগ্রহ নিয়ে এ ছবিটি একাধিকবার দেখেছেন, তাতে কী মনে হয়েছে দেশি ছবির প্রতি তারা বিমুখ? মোটেই না। আমরা বরং দর্শকদের পছন্দমতো ছবি দিতে পারছি না।’

দর্শকদের পছন্দের ছবি বলতে কী বোঝাতে চাইছেন শাকিব খান? এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি ছবির গল্পই নয় শুধু, ক্যানভাসটাও যদি বড় হয় তাহলে সে ছবি সফল হতে বাধ্য। ক্যানভাস বলতে আমি অ্যারেঞ্জমেন্ট, লোকেশনের কথা বলছি। সঙ্গে রয়েছে টেকনোলাজির ব্যবহার। এসব কিছু পাসওয়ার্ডে ছিল। আমি বলব, এটা মালেক আফসারীর জীবনে সবচেয়ে সফল পরিচালনা ও সফল ছবি। সুতরাং যারা সমালোচনা করবেন, তারা সেটা করবেনই। সমালোচনাটাকেও আমি শিক্ষা বলে মনে করি। সবার আগে ভালো ছবি বানাতে হবে। না হলে বড় বড় কথা বলে লাভ নেই। ভালো ছবি বানিয়ে বড় কথা বলুক, তাতে অন্তত ইন্ডাস্ট্রি বাঁচবে।’

কিন্তু যারা এক সময় আপনার সমালোচনা করত তাদের অনেকেই তো এখন আপনার সঙ্গে কাজ করছেন? এমন প্রশ্নে শাকিব বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে যারা অযথাই ষড়যন্ত্র করেছিল তাদের অবস্থান এখন কোথায়, সেটা আমাকে দেখিয়ে দিতে হবে না। বরং অনেকেই এখন আমার সঙ্গে কাজ করতে ইচ্ছুক। অনেকেই বললে ভুল হবে, সবাই। কিন্তু সবাইকে তো আর আমি কাজ দিতে পারব না। যাদের সম্ভব তাদের দিয়েছি, দিচ্ছি এবং দেব। সেটা আমার প্রযোজিত পরবর্তী চারটি ছবি দেখলেই বুঝতে পারবেন।’

কিন্তু যে চারটি ছবির ঘোষণা দিলেন সেটা নিয়েও অনেকে প্রশ্ন তুলছেন। যাদের পরিচালক হিসেবে নিয়েছেন, তারা হয়তো এক সময় হিট ছবি উপহার দিয়েছেন। কিন্তু পরবর্তীতে তারা যা বানিয়েছেন সেটা থেকে কিন্তু দর্শকরা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। তাই তাদের নিয়ে এ সময়ে কাজ করাটা অনেকটা জুয়া খেলার মতো হয়ে গেল না?

শাকিব খান বলেন, ‘সিনেমা তো জুয়া খেলার মতোই। কোটি কোটি টাকা ইনভেস্ট করে কেউ কী বলতে পারবেন, তার টাকা ফেরত আসবে? আমিও না হয় মরা ইন্ডাস্ট্রিকে বাঁচাতে আবারও জুয়া খেললাম। তবে একেবারেই যে জুয়া তা নয়। এই যেমন, মালেক আফসারী পাসওয়ার্ডের আগে সর্বশেষ যে ছবিটি বানিয়েছেন, সেটা নিয়েও অনেক কিছুই বলেছেন। কিন্তু তাতে কী ওই ছবিটিকে সফল করাতে পেরেছেন? পারেননি। কারণ, শুধু গলাবাজি দিয়ে কিছুই হয় না। কাজও দেখাতে হয়। পাসওয়ার্ডে সেই বাজেট, অ্যারেঞ্জমেন্ট, লোকেশন, টেকনোলজি সবই পেয়েছেন তিনি। তাই বাজিমাত করেছেন। এ উদাহরণটি মেনে নিলে নতুন ছবিতে যাদের পরিচালক হিসেবে নিয়েছি তাদেরও সে রকম সুযোগ দিতে চাই। আমার বিশ্বাস, তারা হয়তো নিজেদের অভিজ্ঞতার সঙ্গে আমার চিন্তা-ভাবনাজুড়ে ভালো কিছুই বানাবেন। সবচেয়ে বড় কথা, এগুলো শতভাগ দেশি ছবি। এটাতে তো সবাই সন্তুষ্ট থাকবেন!’

আরও পড়ুন

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৫৬ ২৬
বিশ্ব ৯,৬২,৮৮২২,০৩,২৭৪৪৯,১৯১
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×