বিশেষ সাক্ষাৎকার

আমি কখনই অভিনয় ছেড়ে যাইনি

  এস. আহসান ১১ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অভিনেত্রী আনিকা কবির শখ
অভিনেত্রী আনিকা কবির শখ

মডেলিং দিয়ে মিডিয়ায় কাজ শুরু করলেও পরে অভিনয়ে এসে দর্শকপ্রিয়তা পান আনিকা কবির শখ। নাটকের পাশাপাশি সিনেমাতেও কাজ করতে দেখা গেছে তাকে।

কিন্তু হঠাৎ করেই গায়েব হয়ে গেলেন। একেবারে আলোচনার বাইরে। এক সময়ের আলোচিত এ অভিনেত্রী সম্প্রতি আবারও অভিনয়ে ফিরেছেন। মিডিয়ায় তার অনুপস্থিতি এবং প্রাসঙ্গিক কিছু বিষয় নিয়ে যুগান্তরের মুখোমুখি হয়েছিলেন।

যুগান্তর: নতুন একটি নাটকের শুটিং করলেন কয়েকদিন আগে। কেমন ছিল কাজটি?

শখ: শেখ সেলিমের পরিচালনায় নাটকটির নাম ‘সামচু ভাই সংগ্রামী হতে চায়’। এ নাটকে আমার সহশিল্পী জাহিদ হাসান ভাইয়া। নাটকটির গল্প জাহিদ ভাইকে ঘিরে আবর্তিত হবে। আমিও কেন্দ্রীয় একটি চরিত্রে অভিনয় করেছি। অনেকদিন পর এ ধরনের সুন্দর একটি নাটকে অভিনয় করে ভালো লাগছে। শুনেছি, নাটকটি আগামী ঈদে প্রচার হবে। এ ছাড়া আরও কিছু নাটকে কাজ করার পরিকল্পনা আছে।

যুগান্তর: প্রায় এক বছর ধরে আপনি অভিনয়ে অনিয়মিত, কেন?

শখ: মাঝে মধ্যেই কিন্তু আমি কাজ করেছি। সেগুলো নিয়ে অলোচনা হয়নি। গত ঈদেও আমার অভিনীত তিনটি নাটক প্রচার হয়েছে। তাই বলব আমি অভিনয় ছেড়ে দেইনি। আর এক বছর ধরে কাজ করছি না- এ তথ্যও সঠিক নয়।

যুগান্তর: কিন্তু আপনি তো সব ধরনের যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ করে রেখেছিলেন। স্বভাবতই অনেকে ধরে নিয়েছেন আপনি অনেকটা ‘আউট অব মিডিয়া’...

শখ: কিছুদিন আগ পর্যন্ত আমার মা হাসপাতালে ভর্তি ছিল। তার সেবা করা কিংবা তার পাশে থাকার কারণে দু’মাস আমি মিডিয়ার সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ রেখেছিলাম। আমি পরিবারের বড় মেয়ে। একটা দায়িত্ববোধের জায়গা থেকেই ওই সময়ে কারও সঙ্গে যোগাযোগ রাখিনি। শুধু পরিবার ও ঘনিষ্ঠজনদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছি। আর আমার মোবাইলেও সমস্যা হচ্ছিল। তাই মোবাইল ফোনটা বন্ধ দেখাচ্ছিল। এখন থেকে আমাকে নিয়মিত মোবাইলে পাওয়া যাবে।

যুগান্তর: অনেকদিন ধরে ফেসবুকেও আপনাকে দেখা যাচ্ছে না। ফেসবুকে কি আপনার সক্রিয় কোনো অ্যাকাউন্ট নেই?

শখ: না। কারণ, গত কয়েক বছর ধরে ফেসবুক নিয়ে খুব বিড়ম্বনায় আছি। বারবার আমার আইডি হ্যাক করা হচ্ছে। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি আপাতত ফেসবুকে আর সক্রিয় হব না। আমার নামে যদি কোনো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থাকে এবং সেসব অ্যাকাউন্ট থেকে যদি কোনো কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয়, সেই দায়ভার আমার নয়। এ বিষয়ে সবাইকে সচেতন করার চেষ্টা করছি।

যুগান্তর: এখন থেকে কি অভিনয়ে নিয়মিত দেখা যাবে?

শখ: আগেই বলেছি, আমি কিন্তু কাজ থেকে কখনই বিরতি নেইনি। আমার বিয়ের তিন দিন পর থেকেই কিন্তু আমি কাজ শুরু করেছিলাম। তবে এবারের প্রেক্ষাপটটা ভিন্ন। মায়ের অসুস্থতার কারণে আমাকে কিছুদিন বিরত থাকতে হয়েছিল। ব্যক্তিগত সব বিষয় তো আর দর্শকদের জানানো যায় না। আমি যদি কখনও অভিনয় থেকে দূরে সরে যাই কিংবা কাজ বন্ধ করে দিই, তাহলে তা ঘোষণা দিয়েই করব। আমার ঘোষণা ছাড়া কেউ যেন কোনো ভুল তথ্য পরিবেশন না করেন, এ অনুরোধ রাখছি সবার প্রতি। এখন থেকে নিয়মিত কাজ করার ইচ্ছা আছে।

যুগান্তর: নতুন করে আপনার বিয়ের গুঞ্জনও রয়েছে...

শখ: এটা পুরোপুরি গুজব। কিছু নিন্দুক এ ধরনের খবর ছড়িয়ে দিয়েছেন। এ খবরটি যেন আর না ছাড়ানো হয়, তার জন্য মিডিয়ার সবার কাছে থেকে সহযোগিতা চাই।

যুগান্তর: তাহলে কি নিলয়ের সঙ্গে আপনার সংসার এখনও টিকে আছে?

শখ: এটা অনেক পুরনো একটা বিষয়। এ বিষয় নিয়ে এখন নতুন করে আর কোনো কথা বলতে চাই না। আমার ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে চোখ রাখলেই আমার কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানা যাবে। আল্লাহর রহমতে এখন বেশ ভালো আছি। বাকি জীবনটাও যেন ভালোভাবে অতিক্রম করতে পারি, সে চেষ্টাই করছি।

যুগান্তর: দর্শক কিন্তু আপনার কাজের অপেক্ষায় থাকেন...

শখ: সেটা আমি ভালো করেই জানি। কারণ তাদের ভালোবাসার কারণেই আমার এত পরিচিতি কিংবা এত কাজ করার সুযোগ পাওয়া। তবে সেই দর্শকদের প্রতি আমার কথা হল আমারও ব্যক্তিগত জীবন আছে। অবসর দরকার হয়। রোবটের মতো শুধু কাজ করে যেতে চাই না। একসঙ্গে অনেক মানুষের মন রাখার চেষ্টা করে যাই। কিন্তু সেই জায়গা থেকে দর্শকদের প্রতি আমার আর্জি হল, তারাও যেন আমাকে কনসিডার করেন।

যুগান্তর: ইদানীং আপনার সঙ্গে সহজে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না বলে অনেক নির্মাতার অভিযোগ রয়েছে...

শখ: যারা আমাকে মোবাইলে মেসেজ দিচ্ছেন, তাদের কিন্তু সঙ্গে সঙ্গেই উত্তর দিচ্ছি। আমার সঙ্গে যারা সত্যিই যোগাযোগ করতে চায়, তারা কিন্তু সহজেই পাচ্ছেন। আর যারা এ নিয়ে সমালোচনা করছেন, তারা সব সময়ই এ কাজটি করে যান।

যুগান্তর: কাজে ফেরার পরও আপনার সঙ্গে অনেকেই যোগাযোগ করতে পারছেন না...

শখ: দেখুন আমি তো একজন মানুষ। কিন্তু আমার সঙ্গে সারাক্ষণ অসংখ্য মানুষ যোগাযোগের চেষ্টা করছেন। এতে করে আমার স্বাভাবিক কাজে ব্যাঘাত ঘটছে। বিশেষ করে শুটিং শুরু করার পর নির্মাতাদের পাশাপাশি প্রচুর সংখ্যক সাংবাদিকও আমার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছেন। তাদের প্রত্যেককেই আমি সময় দিয়েছি, কথা বলেছি। আর শুটিংয়ের সময় তো আমার ফোন বন্ধ রাখতে হচ্ছে। তাছাড়া যতক্ষণ বাসায় থাকি, ততক্ষণ মায়ের সেবা যত্নের মধ্যে দিয়েই সময় পার করি। বাসায় থাকার সময়টাতে ফোন বেশিরভাগ সময়ই বন্ধ রাখি।

যুগান্তর: আপনি তো একজন নৃত্যশিল্পীও। এ নিয়ে কাজ করা হয়?

শখ: হ্যাঁ। সামনেই শিল্পকলায় নৃত্য উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে নাচ নিয়ে হাজির হব। এ ছাড়া গত ঈদেও একাধিক টেলিভিশন চ্যানেলে নাচের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছি। আগামী ঈদেও অনুরূপভাবে টিভিতে কাজ করা হবে।

যুগান্তর: ক্যারিয়ার নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

শখ: অল্প সময়ের এ জীবনে অনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে এসেছি। মানুষের কাছে থেকে প্রচুর ভালোবাসা পেয়েছি। এ ভালোবাসাকে সঙ্গে নিয়ে আগামীর দিনগুলো পার করতে চাই। আমার এখনও অনেক শেখার বাকি আছে। সেই অপূর্ণতাগুলো চেষ্টার মাধ্যমে অর্জন করে নতুনভাবে দর্শকের সামনে আসতে চাই।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×